1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মুম্বই ঘটনায় পাকিস্তানের দিকে আঙুল তুলল ভারত

২৬/১১-এর মুম্বই সন্ত্রাসী হামলার নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং হামলাকারীদের বিচারের কাঠগোড়ায় আনার জন্য দ্বিগুণ প্রয়াসের অঙ্গীকার ব্যক্ত করেছেন৷

default

শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি চিদাম্বরম

মুম্বই সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের স্মৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, মোমবাতি হাতে পথযাত্রা, সর্বধর্ম প্রার্থনাসভা, মুম্বইকাণ্ডের ওপর লেখা বই প্রকাশ ইত্যাদি কর্মসূচির মধ্য দিয়ে আজ পালন করা হয় ২৬/১১-এর দুঃস্বপ্নের কালো দিনগুলির দ্বিতীয় বার্ষিকী৷ পাশাপাশি নেয়া হয় সন্ত্রাস প্রতিরোধের নতুন সংকল্প৷

প্রধানমন্ত্রী ড: মনমোহন সিং শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ নিবেদন করে এক বিবৃতিতে হামলাকারীদের বিচারের কাঠগোড়ায় আনতে দ্বিগুণ প্রয়াসের অঙ্গীকার করেন৷ অভিবাদন জানান সেই সব নিরাপত্তা কর্মী ও সাধারণ মানুষকে, যাঁরা নিজের জীবন দিয়ে লড়াই করেছিলেন৷ লড়াই করেছিলেন সেইসব শক্তির বিরুদ্ধে যাঁরা দেশের বহুমাত্রিক সামাজিক জীবনকে ধ্বংস করতে চেয়েছিল৷

Mohammed Ajmal Kasab

এ হামলার একমাত্র ধৃত ও জীবিত সন্ত্রাসী আজমল কাসাভ এখন জেলবন্দি

২৬/১১-এর এই দিনটিকে সামনে রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে৷ গোয়েন্দা সূত্রে খবর আছে যে, পাকিস্তান-ভিত্তিক লস্কর-ই-তৈয়বা আবারো হামলা চালাবার ষড়যন্ত্র করছে৷ বিদেশি গোয়েন্দা সূত্রেও বলা হয়েছে ২৬/১১-এর মত ভিড়ে ভরা জায়গায় হামলা হতে পারে৷ মুম্বই শহরে রুটমার্চ করে আধুনিক হাতিয়ারে সুসজ্জিত নিরাপত্তা বাহিনী৷ নিতদের স্মৃতিতে সংসদে পালন করা হয় এক মিনিট নীরবতা৷

এই উপলক্ষে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি.চিদাম্বরম মুম্বাই-এ শহীদ বেদিতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেন৷ শুধু তাই নয়, ২৬/১১-এর অপরাধীদের বিচারের কাঠগোড়ায় আনতে পাকিস্তানের নিষ্ক্রিয়তায় হতাশা ব্যক্ত করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তাঁর পাকিস্তান সফরে পাকিস্তান সরকার এবিষয়ে যে আশ্বাস দিয়েছিলেন তা পালন করেননি৷ আশা করবো ২৬/১১-এর জঘন্যতম অপরাধে যারা দোষী, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়ে জাতি হিসেবে পাকিস্তান তার দায়িত্ব পালন করবে৷ প্রতিবেশী দেশকে বিশ্বাস করা ভারতের নীতি, তবে দেশবাসীকে এটাও মনে করিয়ে দেয়া আমার কর্তব্য যে, এক প্রতিবেশী দেশ তার কথা রাখেনি৷ তাই দেশকে সর্বদা সতর্ক থাকতে হবে৷

Terror in Mumbai

হামলার সময় সেনাবাহিনীর সতর্ক অবস্থান

এই প্রসঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর আধুনিকীকরণের ওপর জোর দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পুলিশ বাহিনীর দক্ষতা ও পেশাগত কুশলতা বাড়তে ট্রেনিং, সাজসরঞ্জাম এবং কর্মক্ষেত্রে অন্যান্য সুযোগ সুবিধা দেবার কথা বলেন৷ তিনি বিশেষভাবে পুলিশ ইন্সপেক্টর তুকারাম ওম্বলের সাহসিকতা এবং চরম আত্মত্যাগের উল্লেখ করেন৷ শহীদ তুকারাম নিরস্ত্র অবস্থায় কাসাভের গুলি খেয়েও তাঁকে ছাড়েননি৷ জীবন্ত ধরতে সাহায্য করেন৷ তা নাহলে পাকিস্তানের সঙ্গে এই সন্ত্রাসী হামলার অকাট্য যোগসূত্র হারিয়ে যেত, বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চিদাম্বরম৷ অন্যদিকে পাকিস্তান বলেছে, মুম্বই হামলার অপরাধীদের শাস্তি দিতে পাকিস্তান অঙ্গীকারবদ্ধ৷ সেই দায়িত্ব সে পালন করবে আইনি পথে৷

এই উপলক্ষে নিহতদের পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন আর্থিক সুবিধা ও কর্মসংস্থানের জন্য গ্যাস ও পেট্রোল পাম্পের মালিকানা দেয়া হয়৷ মুম্বইকাণ্ডে প্রাণ হারান দেশবিদেশের ১৬৬জন৷ একমাত্র ধৃত ও জীবিত সন্ত্রাসী আজমল কাসাভ ফাঁসির আসামি হিসেবে এখন জেলবন্দি৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক