1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিয়ানমারে মানবাধিকার ভঙ্গের ব্যাপারে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ

পূর্ব মিয়ানমারের সংঘাতে প্রায় পাঁচ লক্ষ মানুষ উদ্বাস্তু৷ এবং সরকারি সেনাবাহিনী ও বিদ্রোহীরা, উভয় তরফেই শিশু সৈনিকদের রংরুট করা অব্যাহত রয়েছে৷

default

মিয়ানমারে বিক্ষোভ

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ মানবাধিকার সংগঠনের বাৎসরিক বিবরণে বলা হয়েছে যে, সরকারি সেনাবাহিনী সংঘাত-পীড়িত এলাকায় বেসামরিক নাগরিকদের উপর সরাসরি আক্রমণ এবং অত্যাচারের জন্য দায়ী৷ মিয়ানমারের কিছু কিছু এলাকায় দেশের স্বাধীনতা লাভের সময়, অর্থাৎ ১৯৪৮ সাল থেকেই এ'ধরণের সংঘাত চলেছে৷

Myanmar Birma Kindersoldaten

মিয়ানমারে শিশু সৈনিক

এইচআরডাবলিউ সেনাবাহিনীর বিভিন্ন অপকর্মের তালিকা দিয়েছে : বাধ্যতামূলক শ্রমদান, আইন বহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, অধিবাসীদের বলপূর্বক বিতাড়ন এ'সব যেরকম ব্যাপক, তেমনই ব্যাপক মানুষ-মারা মাইন বোমার ব্যবহার এবং মহিলা ও ছোট মেয়েদের উপর যৌন হামলা৷ হিউম্যান রাইটস ওয়াচ শারীরিক নিপীড়ন, মারধোর, ফসল বিনষ্ট করা এবং উপজাতীয়দের জমি ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করারও ফিরিস্তি দিয়েছে৷

বিশেষ করে বর্মার পূর্বাঞ্চলে কারেন, কারেন্নি এবং শান রাজ্যগুলিতে, এবং পশ্চিম বর্মার আরাকান রাজ্যগুলিতে এই অবস্থা, বলে এইচআরডাবলিউ'এর রিপোর্ট দাবি করেছে৷ পূর্বাঞ্চলে পাঁচ লক্ষ মানুষ এই সব সংঘাতের ফলে উদ্বাস্তু৷ থাইল্যান্ডের উদ্বাস্তু শিবিরগুলিতে বাস করছে আরো প্রায় দেড় লক্ষ উদ্বাস্তু৷ বাংলাদেশের সরকারি উদ্বাস্তু শিবিরগুলিতে রয়েছেন প্রায় ২৮,০০০ রোহিঙ্গা উদ্বাস্তু৷

স্বশাসন এবং বিভিন্ন অধিকারের দাবিতে যারা বিদ্রোহী হয়েছে, তেমন গোষ্ঠীগুলির অধিকাংশই সামরিক শাসকদের সঙ্গে যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে৷ কিন্তু সরকার যে এই গোষ্ঠীগুলিকে এক ধরণের সীমান্তরক্ষী বাহিনীতে পরিণত করার পরিকল্পনা করছেন, তার ফলেই উত্তেজনা আবার বৃদ্ধি পেয়েছে৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়