1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

মিয়ানমারের ইনলে হ্রদে মাছ কমছে

জেলেদের জালে ক্রমেই আরো কম মাছ পড়ছে৷ হ্রদের পানির কারণেই এটা হচ্ছে৷ পানি ক্রমেই নোংরা হচ্ছে৷ জেলেদের সংখ্যাও বাড়ছে৷ ইনলে হ্রদের পানি ও চারপাশের প্রাণীরা বিপন্ন৷

জেলেরা যেন সার্কাসের লোক! মাছ ধরার জন্যে হাত খালি রাখতে তারা এক পা দিয়ে হাল ধরে, আর এক পায়ে নৌকার উপর দাঁড়িয়ে থাকে৷ তাদের মাছ ধরার পদ্ধতি যেমনই পুরনো, তেমনই আশ্চর্য৷ অন্য কোথাও পাওয়া যাবে না৷

উ টেট উইন টন আর তাঁর সতীর্থরা জাতিসংঘের ইনলে হ্রদ সংরক্ষণ কর্মসূচির হয়ে হ্রদের পানিতে টহল দেন৷ জাতিসংঘের এই কর্মসূচি ইনলে হ্রদ ও তার পাড়ের বাসিন্দাদের সাহায্য করতে চায়৷ উ টেট সেই প্রকল্পেরই কর্মী৷ আবার এটা তাঁর দেশও বটে৷ উ টেট বলেন, ‘‘ইনলে হ্রদ আমাদের দেশের একটি ঐতিহাসিক স্থান৷ ইনলে হ্রদ সুরক্ষার কাজে নিযুক্ত থাকতে পেরে, এই সুযোগ পেয়ে আমি খুশি৷''

Inle See Myanmar Asien

ইনলে হ্রদের তীরে জনপত

হ্রদের মাঝে শাকসবজি

প্রথমেই তারা নামবেন সেই চাষিদের কাছে, যারা হ্রদের মাঝখানে শাকসবজির চাষ করে৷ অন্তত কিছুদিন আগে পর্যন্ত ঠিক এ ভাবেই চাষ করত: পানির নীচে গাড়া বাঁশের খুঁটির ওপর ভাসমান জমিতে৷ আজ অবশ্য প্লাস্টিকের ব্যাগে টম্যাটোর গাছ লাগানো হয়ে থাকে৷ চাষিদের কাছে প্রক্রিয়াটা নতুন বলে কৃষি অর্থনীতিবিদ উ মিন সো-র ধারণা৷ তিনিই চাষিদের এই প্রক্রিয়া শিখিয়েছেন৷ উ মিন সো বলেন, ‘‘সার ব্যাগেই দেওয়া আছে, কাজেই তা চুঁইয়ে হ্রদের পানিতে গিয়ে পড়ছে না৷ ফলে হ্রদের পানির অবনতি ঘটছে না৷''

মাটির ক্ষয় থেকে হ্রদ বুজে যাচ্ছে

কোনো কোনো নার্সারি আদৌ ইনলে হ্রদে নয়, বরং পাহাড়ে৷ জনসংখ্যা বাড়ছে৷ জঙ্গল কাটা হচ্ছে নতুন জমির খোঁজে৷ অন্যদিকে মাটির ক্ষয় চলেছে৷ ক্ষয়ের ফলে চাষিরা তাদের সোনার জমি হারাচ্ছে৷ সেই মাটি গিয়ে পড়ছে উপত্যকায়, ইনলে হ্রদে৷ কাজেই ইনলে হ্রদ বুজে যাচ্ছে৷ যা রোখার জন্য এখন বাঁধ দেওয়া হচ্ছে, যাতে উপত্যকা অভিমুখে মাটির ক্ষয় আটকানো যায়৷ পাথর আর বাঁশ দিয়ে বাঁধ তৈরি করছে যে মানুষেরা, তারা এখানকারই বাসিন্দা৷ এ ভাবেই তারা পলিমাটি বাঁচাচ্ছে, আর সেই সঙ্গে বাঁচাচ্ছে ইনলে হ্রদকে৷ কয়েক কিলোমিটার দূরেই ছোট ছোট গাছ লাগানো হয়েছে৷ জাতিসংঘের ইনলে হ্রদ সংরক্ষণ কর্মসূচির একটি মূল অঙ্গ হল তাই৷

জেলেদের সহযোগিতা

ফেরা যাক ইনলে হ্রদে৷ জেলেদের সহযোগিতা ছাড়া এখানে কিছু হবার উপায় নেই৷ তারাই নিজেদের মধ্যে আপোশ করে হ্রদের একটি এলাকায় মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে, যাতে মাছের সংখ্যা বাড়তে পারে৷ কয়েকদিন পর পর জেলেরাই মাছ না ধরে নৌকা নিয়ে টহলে বেরোয়, সবাই মাছ ধরার নিয়মকানুন মেনে চলছে কিনা, তা দেখতে৷

ইনলে হ্রদের মৎস্যশিকারী উ টোন উইন-ও এই উদ্যোগে জড়িত৷ সেও চায়, তার জালে যেন আরো মাছ ওঠে৷ তার ছেলে যেন তারই মতো ইনলে হ্রদের জেলে হয়ে উঠতে পারে৷

ইন্টারনেট লিংক

সংশ্লিষ্ট বিষয়