1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিসরাতায় যুদ্ধ, দারায় অভিযান

উত্তাল আরব বিশ্বে দৃশ্যপট এখন একাধিক৷ লিবিয়ায় যেমন রণাঙ্গণ, সেরকম সিরিয়ায় বিক্ষুব্ধ শহরগুলোর উপর অভিযান চালাচ্ছে নিরাপত্তা বাহিনী৷

default

মিসরাতার পথযুদ্ধে বিদ্রোহীরা

লিবিয়ার পশ্চিমে মিসরাতা'কে নিয়েই এখন চিন্তা৷ গাদ্দাফি বাহিনী কখনো সেখান থেকে সরে যাচ্ছে, আবার কখনো নতুন করে আক্রমণ চালাচ্ছে৷ গাদ্দাফির সেনারা শহরের কেন্দ্র ছেড়ে সরে গেছে বটে, কিন্তু প্রান্ত থেকে তাদের গোলা বর্ষণ বন্ধ করেনি৷ যেমন ন্যাটোর বিমানও রাজধানী ত্রিপোলি ও তার আশেপাশে গাদ্দাফি বাহিনীর ঘাঁটিগুলোর উপর আঘাত হেনে চলেছে৷ কিন্তু ন্যাটোর সব আক্রমণ সত্ত্বেও যুদ্ধে অচলাবস্থার কথাই বলছেন পর্যবেক্ষকরা৷ গত শনিবার তো বিদ্রোহীরা মিসরাতায় প্রায় জয়োৎসবই করে ফেলেছিল৷ পথে-ঘাটে গাদ্দাফির সৈন্যদের মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছিল৷ কিন্তু তার পরেও গাদ্দাফির সৈন্যরা শহরের উপকণ্ঠ থেকে আবার ঢোকার চেষ্টা করছে, মূল সড়ক যোগাযোগটি বিচ্ছিন্ন করার চেষ্টা করছে৷ তাদের রকেট আর গোলা বর্ষণ তো চলেছেই৷

Syrische Truppen stürmen Widerstandshochburg Daraa

সিরীয় সৈন্যরা ডারায় অভিযান চালাচ্ছে

ওদিকে সিরিয়ার পরিস্থিতি ক্রমেই আরো উত্তপ্ত, আরো মর্মান্তিক হয়েউঠছে৷ সোমবার ডারায় যা ঘটল, তার কথা ভাবলে তো বটেই৷ দক্ষিণের এই শহরটিতে সেনাবাহিনী আন্দোলনকারীদের উপর গুলি চালানোর ফলে প্রায় ৪০ জন প্রাণ হারিয়েছে, আহত হয়েছে ৭০ জন কি তারও বেশি৷ রবিবার উপকূলের জাবলেহ শহরে অনুরূপভাবে প্রাণ হারায় ১৩ জন মানুষ৷ হতাহতের সংখ্যা যতো বাড়ছে, ততো আন্তর্জাতিক রাষ্ট্রসমাজের টনক নড়ছে৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শাস্তিমূলক ব্যবস্থার কথা ভাবছে৷ ইউরোপীয় ইউনিয়ন, জাতিসংঘ নিন্দাসূচক প্রস্তাবের কথা ভাবছে৷ কিন্তু সর্বাগ্রে সিরিয়ার মানুষদের রক্তপণ দিতে হচ্ছে৷

অন্তত এটুকু স্পষ্ট যে সিরীয় কর্তৃপক্ষ আপাতত একটা সামরিক সমাধানের কথাই ভাবছেন৷ কিন্তু তার বিপদ হল, সে সমাধান ব্যর্থ হলে আপোষের পথটা আরো সঙ্কীর্ণ হয়ে আসবে৷ অন্য বিপদ: জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনার নভি পিল্লাই জেনেভা থেকে ইতিমধ্যেই এই নির্বিচার হত্যাকাণ্ডের নিন্দা করেছেন৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: জান্নাতুল ফেরদৌস

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়