1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিসরাটায় হামলা অব্যাহত, পোপের সমঝোতার আহ্বান

মিসরাটা থেকে সৈন্য ফেরত আনার ঘোষণা সত্ত্বেও লিবীয় নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফির অনুগত সরকারি বাহিনী সেখানে হামলা অব্যাহত রেখেছে৷ এদিকে, লিবিয়ার সংকট সমাধানে অস্ত্র নয়, বরং কূটনৈতিক পন্থা অবলম্বনের আহ্বান জানালেন পোপ৷

default

যুদ্ধরত সৈন্যদের মহড়া

মিসরাটার সর্বশেষ পরিস্থিতি

প্রায় দুই মাস ধরে লিবিয়ায় যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে গাদ্দাফি বাহিনী৷ তবে হঠাৎ করেই গতকাল শনিবার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী খালেদ কাইম ঘোষণা দেন সৈন্যদের মিসরাটা ছেড়ে আসার৷ এছাড়া সেখানে পার্শ্ববর্তী শহরগুলো থেকে উপজাতীয় নেতাদের যাওয়ার কথাও বলা হয়৷ উদ্দেশ্য বিদ্রোহীদের সাথে সমঝোতা বৈঠক শুরু করা৷ এমনকি রবিবার সকালেও উপমন্ত্রী কাইম একই ঘোষণার পুনরাবৃত্তি করে বলেন যে, সৈন্যরা মিসরাটা ছেড়ে চলে না আসলেও সেখানে হামলা বন্ধ করা হয়েছে৷

কিন্তু কাইমের এমন ঘোষণা সত্ত্বেও সেখানে সামরিক হামলা আদৌ কমেনি৷ বরং উল্টো গত ৬৫ দিনের মধ্যে সবচেয়ে বেশি মানুষ খুন করা হয়েছে শনিবার৷ মিসরাটার প্রধান হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. খালিদ আবু ফালরা জানিয়েছেন, অন্যান্য দিন ঐ শহরে গড়ে ১১ জন করে মানুষ প্রাণ হারিয়েছে৷ অথচ শুধুমাত্র শনিবারেই সেখানে নিহত হয়েছে ২৮ জন এবং আহত হয়েছে আরো অন্তত ১০০ জন৷

গাদ্দাফির এমন কূটচালের বিশ্লেষণ

Libyen Misrata Adschdabiya Kampf Flash-Glaerie

বিদ্রোহীদের একাংশ

গাদ্দাফি প্রশাসনের এমন আচরণকে ‘নোংরা কূটচাল' বলে অভিহিত করেছে বিদ্রোহী গোষ্ঠী৷ তাদের অভিযোগ, এমন দ্বিমুখী কৌশলের দ্বারা বিদ্রোহী এবং উপজাতীয় নেতাদের সাথে প্রতারণা করাই হচ্ছে গাদ্দাফির উদ্দেশ্য৷ লিবিয়ার বেনগাজি ভিত্তিক ট্রানজিশনাল ন্যাশনাল কাউন্সিল - টিএনসি'র সামরিক মুখপাত্র কর্নেল ওমর বানি বলেছেন, ‘‘জঘন্য খেলা খেলছে গাদ্দাফি৷ তারা মিসরাটা ছেড়ে চলে যায়নি৷ বরং ত্রিপোলি সড়ক থেকে কিছুটা সরে গিয়ে তারা আবারও হামলা চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে৷'' এছাড়া পূর্ব ও পশ্চিমাঞ্চলের উপজাতীয় নেতাদেরকেও দ্বিধা-বিভক্ত করতে চাচ্ছে গাদ্দাফি প্রশাসন৷ আর এর মাধ্যমে তারা দেখাতে চাই যে, এটা গৌত্রীয় দ্বন্দ্ব কিংবা গৃহযুদ্ধের পরিস্থিতি কিন্তু সেটা সত্য নয় এবং সেটা কখনই ঘটবে না, বলেন বানি৷

ইস্টার সানডের বার্তায় পোপ

এদিকে, খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহত্তম উৎসব ইস্টার সানডে'র বার্তায় পোপ ষোড়শ বেনেডিক্ট লিবিয়াসহ উত্তর আফ্রিকা ও মধ্যপ্রাচ্যের দেশসমূহে অস্ত্র নয় বরং কূটনৈতিক পন্থায় সংকট সমাধানের আহ্বান জানিয়েছেন৷ সেইন্ট পিটার্স চত্বরে সমবেত হাজার হাজার ভক্তের উদ্দেশ্যে তাঁর ইস্টার ভাষণে পোপ বলেন, ‘‘লিবিয়ার চলমান সংঘাতের ক্ষেত্রে অস্ত্রের বদলে সমঝোতা এবং সংলাপের পন্থা বেছে নেওয়ার আহ্বান জানাই৷''

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: ফাহমিদা সুলতানা

নির্বাচিত প্রতিবেদন