1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিশর নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের জরুরি বৈঠক

মিশর পরিস্থিতি, মিশরে ত্রাণ সহায়তাসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বুধবার জরুরি বৈঠকে বসছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা৷ এদিকে, জার্মানি আর ডেনমার্ক এরই মধ্যে মিশরের উন্নয়ন খাতে অর্থ সহায়তা বাতিল করেছে৷

মিশর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে বুধবার ব্রাসেলসে জরুরি বৈঠকে বসছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের ২৮টি দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা৷ মিশরে বর্তমান সহিংস পরিস্থিতি এবং পরবর্তী কর্মপন্থা ঠিক করাই তাঁদের আলোচনার মূল বিষয়৷

ইউরোপীয় ইউনিয়নের পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ক্যাথরিন অ্যাশটন জানিয়েছেন, বুধবারের এই আলোচনার পরই তিনি ঠিক করবেন যে কায়রো গিয়ে দু'পক্ষের মধ্যে মধ্যস্থতা তিনি করবেন কিনা৷

সাংবাদিকদের অ্যাশটন জানান, তিনি গত সপ্তাহে মিশরের প্রধানমন্ত্রীর সাথে কথা বলেছেন৷ জানিয়েছেন যে, তারা চাইলে তিনি মিশরে গিয়ে আলোচনার উদ্যোগ নিতে পারেন৷ নিজেদের ছুটি বাতিল করে এ বৈঠকে ২৮টি দেশের সব পরররাষ্ট্রমন্ত্রীই উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করা হচ্ছে৷

জার্মানি, ইটালি, নেদারল্যান্ডস এবং আরো কয়েকটি দেশ এরই মধ্যে মিশরে অস্ত্র রপ্তানি বন্ধ ঘোষণা করেছে৷ গত বছর মিশরের গণতান্ত্রিক সংস্কারের জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়ন যে পাঁচ বিলিয়ন ইউরো দেয়ার পরিকল্পনা করছিল, তা আদৌ দেয়া হবে কিনা – তাও নির্ভর করছে এই বৈঠকের উপর৷

Hosni Mubarak 13.04.2013

মুক্তি পেতে পারেন হোসনি মুবারক

বুধবার বৈঠক শুরুর ঠিক আগে ইউরোপীয় ইউনিয়ন কমিশনের প্রেসিডেন্ট জোসে মানুয়েল বারোসো জানান, মিশরের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নিতে সবাইকে একটি নির্দিষ্ট পথ বেছে নিতে হবে, যা খুব সহজ হবে না৷ ডাচ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্স টিমারমান্স জানান, গণতন্ত্রের পথে অগ্রসর হলেই কেবল মিশরকে ত্রাণ দেয়া হবে অন্যথায় নয় এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নকে এ ব্যাপারে কঠোর হতে হবে৷

যুক্তরাষ্ট্র কি করবে

এদিকে, হোয়াইট হাউস মঙ্গলবার জানায় যে, মার্কিন সরকার মিশরে সামরিক সহায়তা স্থগিত করেছে৷ হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জশ আর্নেস্ট জানান, মিশরের সাথে ত্রাণ ও অন্যান্য সহায়তার বিষয়টি বিবেচনা করা হচ্ছে, তবে এখনও তা বাতিল করা হয়নি৷ তবে তিনি এও জানান যে, মানবাধিকার লঙ্ঘনের এই পরিস্থিতি চলতে থাকলে তারা ত্রাণ বাতিলের বিষয়টিও তারা ভেবে দেখবেন৷

আরব বিশ্বের চোখে মিশর

অন্যদিকে, মিশর পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কি পদক্ষেপ নেয় তা খেয়াল রাখছে আরব ও মুসলিম বিশ্ব৷ মিশরের সেনা প্রধান আব্দেল ফাতাহ আল সিসি ডয়চে ভেলেকে জানিয়েছেন, গণতন্ত্রের পথে হাঁটার সময় মিশরের শেষ হয়ে গেছে, তাই এক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক সমপ্রদায়ের মধ্যস্থতা জরুরি বলে মনে করেন তিনি৷ ইউরোপীয় ইউনিয়ন অন্তর্বর্তী সরকারের যে সমালোচনা করছে তাতে তারা খুশি নয় বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন সিসি৷

বাদিয়ে, মুরসি কারাগারে, মুক্তির পথে মুবারক

গত সপ্তাহে মিশরে নিহত হয়েছে অন্তত নয়শ' জন৷ এর মধ্যে শতাধিক নিরাপত্তা সদস্য, যাঁরা বেশিরভাগই মুরসি সমর্থক৷ ক্ষমতাচ্যুত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসি এখন কারাগারে৷ মঙ্গলবার মিশরের আইনজীবীরা জানান, মুসলিম ব্রাদারহুডের ধর্মীয় নেতা মোহাম্মদ বাদিয়েকে ১৫ দিনের জন্য বন্দি করা হয়েছে৷ এরপরই তাঁর বিচার শুরু হবে৷

ওদিকে, আর এক আইনজীবী জানালেন, মিশরের সদ্য পদত্যাগী ভাইস-প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ এল বারাদেই জাতির সঙ্গে বিশ্বাস ভঙ্গের অভিযোগে আদালতের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন৷

বাদিয়ে এবং বারাদেই যখন বিচারের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন, তখন মিশরের সাবেক সামরিক শাসক হোসনি মুবারক কারাগার থেকে খুব শিগগিরই মুক্ত হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবীরা৷ চারটি অভিযোগের মধ্যে তিনটিতেই শর্ত সাপেক্ষে খালাস পেয়েছেন তিনি৷ এবার চতুর্থটিতেও মুবারক খালাস পাবেন বলে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবী৷

এপিবি/ডিজি (এএফপি/এপি/রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন