1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিশরে আবারো সহিংসতা

মিশরের নিরাপত্তারক্ষীদের অভিযানে অনেক মুরসি সমর্থক নিহত হয়েছে বলে দাবি করছে মুসলিম ব্রাদারহুড৷ অন্যদিকে সরকার বলছে, সংষর্ষে দুজন নিরাপত্তাকর্মী নিহত হয়েছে৷

রাজধানী কায়রোর রাবা আল আদিয়া এলাকায় টানা ছয় সপ্তাহ ধরে অবস্থান করছিল মুরসি সমর্থকরা৷ বুধবার স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় এই সমর্থকদের হঠাতে হেলিকপ্টার, সাঁজোয়া যান ও বুলডোজার নিয়ে অভিযান শুরু করে নিরাপত্তাবাহিনী৷ এ সময় টিয়ারগ্যাস ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে তারা৷

এরই মধ্যে মুরসিপন্থিদের দুটি ক্যাম্প থেকে উৎখাত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে অ্যাসোসিয়েটেড প্রেস৷ মুসলিম ব্রাদারহুডের দাবি, উৎখাতের সময় দুপক্ষের সংঘর্ষে অনেক মুরসি সমর্থক নিহত হয়েছে৷ তবে সরকার এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে বলছে, সংঘর্ষে কেবল তাদের দুজন নিরাপত্তা সদস্য নিহত হয়েছে৷

ক্যাম্পে থাকা বেশিরভাগ মানুষকে কাছের ওরমান বোটানিক্যাল গার্ডেন এবং কায়রো বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷

Ägypten Proteste Kairo

সংঘর্ষে অনেক মুরসি সমর্থক নিহতও হয়েছেন

অন্যদিকে, নাসের সিটির ক্যাম্পগুলো সরানোর জন্য সেদিকেও অভিযান চালিয়েছে সেনাবাহিনী৷ কায়রো এবং নাসের সিটি থেকে অন্তত দুইশ বিক্ষোভকারীকে আটক করা হয়েছে বলে গণমাধ্যমকর্মীদের জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নিরাপত্তা কর্মকর্তা৷

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কেবল টিয়ারগ্যাস ব্যবহার করা হচ্ছে, তবে কেউ গুলি ছুড়লে নিরাপত্তাবাহিনীও পাল্টা জবাব দিতে বাধ্য হবে৷ কেবল জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিক্ষোভকারীদের আটক করা হয়েছে বলে বিবৃতিতে বলা হয়৷

অভিযানে সেনাবাহিনী অংশ না নিলেও নিরাপত্তার সার্বিক দায়িত্বে ছিল তারা৷

এই অভিযানের আশঙ্কায় মুরসি সমর্থকরা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নিয়েছিল৷ তারা তাদের অবস্থানগুলোর চারপাশে বালির বস্তা ও বড় বড় পাথরের স্তূপ জমিয়ে ক্যাম্পগুলোকে প্রায় দুর্গ বানিয়ে ফেলেছিল৷ তবে, শেষ পর্যন্ত এতে কোন কাজ হয়নি৷

চলতি বছরের ৩ জুলাই প্রেসিডেন্ট মুরসি ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর মিশরজুড়ে সহিংসতায় এ পর্যন্ত অন্তত আড়াইশ মানুষের মৃত্যু হয়েছে৷

এপিবি/এসবি (এপি/রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন