1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিশরের মহাভারত শেষে উল্লাস দুনিয়াজুড়ে

মুবারক বিদায়৷ ইতিহাস তৈরি হল নীলনদের দেশ মিশরে৷ নতুন শতকের প্রথম বড়মাপের বিপ্লবের সাক্ষী হল এই গ্রহ৷

default

মুবারকের প্রস্থানের কথা ঘোষণা করলেন সুলেইমান

মহাভারতের যুদ্ধ শেষ হয়েছিল ১৮ দিনে৷ মিশরেও গণতন্ত্রের শান্তিপূর্ণ বিপ্লব শেষ হল সেই ১৮ দিনেই৷ গঙ্গা আর নীলনদ মিলেমিশে গেল৷

তাহরির স্কোয়্যারে প্রবল উল্লাস

উল্লাসের ছবি বিশ্বজুড়ে৷ ওয়াশিংটন থেকে কলকাতা, ভায়া কায়রো একাকার হয়ে গেছে গোটা বিশ্ব৷ মিশরকে এই শতাব্দীর প্রথম সফল বিপ্লবের সাফল্যের জন্য অভিনন্দন শোনা গেছে অস্ট্রেলিয়া থেকে শুরু করে মালয়েশিয়া পর্যন্ত৷ নেপাল থেকে এসেছে বার্তা, এসেছে ওয়েলিংটন থেকেও৷ হোয়াইট হাউজে আস্ত একখানা বক্তৃতা দিয়েছেন বারাক ওবামা৷ মুবারকের পদত্যাগের খবর ছড়িয়ে পড়ার আধঘন্টার মধ্যে সেই বক্তৃতাও বড় পর্দায় দেখে উল্লাসে মেতে উঠেছে তাহরির স্কোয়্যার৷ তরুণ মিশর জন্মেছে ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১১৷ আজও বিশ্বজুড়ে সারাদিন ধরে এই উৎসবের রেশ থাকবে৷

Flash-Galerie Ägypten Mubarak Rücktritt Jubel

মিশরের জনতার উল্লাস

সেনাবাহিনীকেই শেষ পর্যন্ত দায়িত্ব দিয়ে বিদায় মুবারকের

‘দীর্ঘ ষাট বছরের বেশি সময় ধরে আমি দেশসেবা করেছি৷' শেষের আগের ভাষণে বলেছিলেন হোসনি মুবারক৷ এই ষাট বছরের মধ্যে বেশিটাই অবশ্যি সেনাবাহিনীতে৷ তারপর দেশ শাসনে৷ তো, যাবার বেলায় শেষ প্যাঁচটাও মন্দ মারেন নি ৮২ বছরের মুবারক৷ বিশেষ ব্যবস্থা করে সেনাবাহিনীর হাতে তুলে দিয়ে গেছেন ক্ষমতা৷ এটা একটা স্পষ্ট উস্কানি৷ যাতে ফিরে আসার ক্ষীণ হলেও একটা রাস্তা থেকে যায়৷ কারণ, সেনাবাহিনীটি তাঁরই নিজের হাতে গড়া৷ তাদের মধ্যে প্রচুর বশংবদ আছে, যারা যে কোন সময়ে কাজে নেমে যেতে পারে৷ দায়িত্ব তাই পেয়েছে সেনাবাহিনীর হাই কাউন্সিল৷ উচ্চতম পর্য়ায়ের সেনা অফিসার দায়িত্ব হাতে নিয়ে প্রথমেই বিদায়ী প্রেসিডেন্টকে এবং তাঁর কাজকে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন৷ ফলে আনুগত্য যে রয়ে গেল, তাতে কোন সন্দেহ নেই৷

আলজেরিয়াতেও মিশরের ছোঁয়া

আলজিয়ার্সে প্রেসিডেন্ট আবদেল আজিজ বুতেফলিকার পদত্যাগের দাবি জানিয়েছে বিরোধীরা৷ গত প্রায় ১৯ বছর গদি দখল করে আছেন এই বুতেফলিকা৷ শুক্রবার মিশরের খবর ছড়িয়ে পড়ার পরেই এক স্বতঃস্ফূর্ত সমাবেশে মেতে ওঠে বিরোধীরা৷ নিরাপত্তা বাহিনী যদিও কড়া হাতে সেই জমায়েত ভেঙে দিয়েছে৷ বিরোধী আরসিডি দলের দাবি, এই অভিযানে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছে, যাদের মধ্যে দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক৷ নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও সরকার-বিরোধীরা আজ শনিবার ফের বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে৷ টিউনিশিয়া আর মিশরের পর উত্তর আফ্রিকার দেশ আলজেরিয়াতেও স্বৈরাচারী শাসক বুতেফলিকার বিরুদ্ধে জনরোষ বেড়ে চলেছে৷

প্রতিবেদন : সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়
সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন