1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মিশরের নিখোঁজ বিমানের হদিশ পাওয়া গেল

বৃহস্পতিবার ভোরে মিশরের ইজিপ্ট-এয়ারের এ৩২০ বিমান প্যারিস থেকে কায়রোর পথে নিখোঁজ হয়ে যায়৷ বিমানটি ধ্বংস হয়ে গেছে বলে জানা গেছে৷ নিছক দুর্ঘটনা, নাকি সন্ত্রাসী হামলা – সেটা এখনো স্পষ্ট নয়৷

প্রশান্ত মহাসাগরের কোনো জনহীন প্রান্ত নয়, খোদ ইউরোপের দক্ষিণে ভূমধ্যসাগরের এক প্রান্তে নিখোঁজ একটি যাত্রীবাহী বিমান৷ অথচ সেই বিমানের পরিণতি সম্পর্কে এক দিন পরেও নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছিল না৷ মিশরের নৌবাহিনী শুক্রবার বিমানের ধ্বংসাবশেষের খোঁজ পেয়েছে৷

বিমানটিকে সর্বশেষ মিশরের উপকূলের কাছে চিহ্নিত করা গিয়েছিল৷

বিমানটির পরিণতির ফলে চরম অনিশ্চয়তায় ভুগছিলেন যাত্রীদের আত্মীয়-স্বজন৷

তথ্য-প্রমাণের অভাবে উঠে আসছিল নানা তত্ত্ব৷ সন্ত্রাসবাদীরা বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বিমানটি ধ্বংস করেছে বলে মনে করছে এক মহল৷

এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মনোনয়নের লড়াইয়ে ব্যস্ত ডোনাল্ড ট্রাম্পও সন্ত্রাসবাদীদের ঘাড়েই দায় চাপিয়ে দিচ্ছেন৷

সমুদ্রের উপর ভাসমান কিছু বস্তুকে নিখোঁজ বিমানের ধ্বংসাবশেষ হিসেবে ধরে নেওয়া হলেও পরে তা ভুল প্রমাণিত হয়৷

বিমানের খোঁজে যোগ দিয়েছে একের পর এক দেশ৷ বিশাল আকারে সমুদ্রে চলেছে অভিযান৷ এই প্রেক্ষাপটে বেসমারিক বিমান চলাচলের ক্ষেত্রে চরম দুর্বলতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকে৷ আধুনিক যুগে এত স্যাটেলাইট, জিপিএস ট্র্যাকিং সত্ত্বেও আস্ত একটা বিমান কী করে নিখোঁজ হতে পারে, তা বোঝা অনেকের পক্ষেই কঠিন হচ্ছে৷ বিমানটির সন্ধানে বিলম্বও অনেকের ক্ষোভের কারণ৷

আধুনিক প্রযুক্তির দৌলতে যেখানে জার্মান চ্যান্সেলরের ফোনে পর্যন্ত আড়ি পাতা সম্ভব, সেখানে আস্ত এক বিমান উধাও হয় কী করে – এমন প্রশ্নও শোনা যাচ্ছে৷

এসবি/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন