1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ব্লগওয়াচ

মিরাজের জন্য বাড়ি: প্রশংসা, সমালোচনা

ক্রিকেটের নতুন সেনশেসন মেহেদী হাসান মিরাজের পরিবারের জন্য বাড়ি তৈরি করে দিতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ তাঁর এই উদ্যোগের প্রশংসা করছেন অনেকে৷ তবে আছে অন্যরকম প্রতিক্রিয়াও৷

প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেসসচিব আশরাফুল আলম খোকন  বুধবার তাঁর ফেসবুক পাতায় এই সিদ্ধান্তের কথা জানান৷ মিরাজের একটি ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেন, ‘‘ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজের পরিবারের জন্য বাড়ি তৈরি করে দিচ্ছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা৷ প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা ইতিমধ্যে খুলনার জেলা প্রশাসককে জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ৷ বাড়ি করার জন্য উপযুক্ত স্থান খুঁজে বের করে এই ব্যবস্থা নেবে স্থানীয় জেলা প্রশাসন৷''

এদিকে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস)-এর এক প্রতিবেদন বলছে, খুলনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ইতিমধ্যে মিরাজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে৷ তাঁর কাছে বাড়ি নির্মাণের জন্য পছন্দের জায়গা জানতে চাওয়া হলে মিরাজ স্টেডিয়ামের পাশে খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্লটের কথা জানান৷ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাড়ি নির্মাণ করে দেয়ার ঘোষণা শুনে মিরাজ আনন্দে কেঁদেছেন বলেও জানিয়েছে বাসস৷

এমন উদ্যোগের কারণে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অনেকে৷ প্রশংসাও হচ্ছে বেশ৷ আরেফিন শুভ আরিফ ফেসবুকে লিখেছেন, ‘‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্ত, যা তরুণ টাইগারদের আত্মবিশ্বাসকে আরও বাড়িয়ে তুলবে এবং বাংলাদেশের ক্রিকেটকে নিয়ে যাবে অনন্য উচ্চতায়৷'' শাহিন আহমেদ লিখেছেন, ‘‘... এজন্যই দেশের মানুষ আপনাকে (প্রধানমন্ত্রী) দেশরত্ন বলে৷''

তবে শাহেদ আলম  মনে করেছেন, এর মাধ্যমে হয়ত মিরাজকে তাঁর নিজের সহকর্মীদের কাছে, বিশ্ব ক্রিকেট অঙ্গনে একটু হেয় করা হলো৷ ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘‘... ও (মিরাজ) এমন ভালো খেললে, আপন পরিশ্রমেই বাড়ি বানাতে পারতো এক বছরের মধ্যেই৷ এই প্রতিভাকে, তাঁর নিজের সহকর্মীদের কাছে, বিশ্ব ক্রিকেট অঙ্গনে একটু কি হেয় করা হলো না? আমাদের আদিখ্যেতার একটা সীমা থাকা দরকার, নিজেকে ওমর খলিফা বানানোর চেষ্টার একটু বিচক্ষণতাবোধ কাম্য, যে কাকে উপকার করলে তাঁর উপকার হবে, নাকি অপকার হবে!''

ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় হিন্দুদের মন্দির ও বাড়িঘর ভাঙচুরের বিষয়টি সামনে এনে জীবন তালুকদার লিখেছেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী, মিরাজকে বাড়ি বানিয়ে দিচ্ছেন খুবই ভালো কথা৷ সে দেশের জন্য অনেক বড় সুনাম বয়ে এনেছে৷ আপনার কাছে মনে হয়েছে তাঁর এটি পাওনা৷ কিন্তু বি.বাড়িয়ায় এতো হিন্দু পরিবারের বাড়ি ভাঙা হলো, আপনার মুখের সমবেদনাও কি তাঁদের পাওনা ছিল না?''

অনুপম দেবাশীষ রায়  আশা করছেন, জনগণের করের টাকা থেকে নয়, প্রধানমন্ত্রী নিজের টাকা থেকে এই বাড়িটি তৈরি করে দেবেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘হাতের ইশারা করলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আর বাড়ি গড়া হয়ে গেলো! মুঘল আমলের নবাব টবাবদেরও এত ক্ষমতা ছিল কিনা কে জানে? অবশ্য আমরা এটাতে কেউ কোনো সমস্যা দেখব না৷ ভালোই করসে, একটা ছেলেকে বাড়ি বানায়ে দিসে৷ ক্ষমতার সীমালংঘনের কোনো ব্যাপারই এইখানে নাই! আশা করি, এই মহতি কর্মকান্ডে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জনগণের ট্যাক্সের টাকা অথবা জনগণের জমিন ব্যবহার না করে নিজের ভিটা এবং নিজের গাঁটের পয়সা ব্যবহার করবেন৷''

আরিফুল ইসলাম বিজয়'ও  বাড়ি নির্মাণের ব্যয়ের উৎস নিয়ে মন্তব্য করেছেন৷ তাঁর প্রশ্ন, ‘‘...টাকাটা কি ছাত্রদের থেকে কর হিসেবে নেওয়া হবে?''

বিষয়টি নিয়ে একটু মজাও করছেন কেউ কেউ৷ যেমন নাসির উদ্দীন সুমন লিখেছেন, ‘‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদীয়মান খেলোয়াড় মিরাজকে খুলনায় বাড়ি তৈরি করে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে৷ তবে কামনা করি, এমন কেউ যাতে বাড়ি না করে যাদের বাঁশের প্রতি দুর্বলতা আছে৷''

মুশতাক আহমেদ মিরাজকে একটি পরামর্শ দিয়েছেন৷ ‘‘মিরাজ বা‌ড়ি করার সময় চোখ-কান সব খোলা রাখবা৷ যে হা‌রে বাঁশ দি‌য়ে বি‌ল্ডিং তৈরি কর‌ছে দেখবা সু‌যোগ পাই‌লে তোমা‌রেও বাঁশ দি‌য়ে দি‌বে,'' ফেসবুকে লিখেছেন তিনি৷

সংকলন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়