1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মালয়েশীয় বিমানের খোঁজে নতুন উদ্যোগ

এমএইচ৩৭০ বিমানের রহস্য ভেদ করার পথে আবার কিছুটা আশার আলো দেখা যাচ্ছে৷ এবার ভারত মহাসাগরের এমন একটি অংশে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে, স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী বিমানটি যেখানে উধাও হয়ে গিয়েছিল৷

গত ৮ই মার্চ মালয়েশিয়া এয়ারলাইন্সের বোয়িং ৭৭৭-এর এমএইচ৩৭০ বিমানটি উধাও হয়ে যায়৷ ২৩৯ জন যাত্রী ও কর্মীদের পরিণতি সম্পর্কেও কিছু জানা যায়নি৷ প্রাথমিক সূত্র অনুযায়ী ধাপে ধাপে অনেক জায়গায় অনেক রকম অনুসন্ধান চালিয়েও বিমানটির কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি৷

এবার ভারত মহাসাগরের দক্ষিণে প্রায় ৬০,০০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় অনুসন্ধান শুরু হচ্ছে৷ ‘সেভেন্থ আর্ক' নামে চিহ্নিত এই এলাকায়ই বিমানটির সঙ্গে স্যাটেলাইটের শেষ বারের মতো যোগাযোগ ঘটেছিল৷ অস্ট্রেলিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী ওয়ারেন ট্রাস বলেন, স্যাটেলাইট থেকে পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে এবার পার্থ শহর থেকে প্রায় ২,০০০ কিলোমিটার পশ্চিমে এই এলাকার প্রতি বিশেষ মনোযোগ দেওয়া হচ্ছে৷

গোটা প্রক্রিয়াটি অবশ্য বেশ সময়সাপেক্ষ হবে৷ সমুদ্রের নীচে ছয় কিলোমিটার দীর্ঘ জমির মানচিত্র তৈরি করতে আরও তিন মাস সময় লাগবে৷ তারপর আগস্ট মাসে অনুসন্ধান শুরু হবে৷

Malaysia Suche nach Flug MH370 Karte

এবার ভারত মহাসাগরের দক্ষিণে প্রায় ৬০,০০০ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় অনুসন্ধান শুরু হচ্ছে

কাজ শেষ করতে ১২ মাস পর্যন্ত সময় লাগতে পারে৷ সমুদ্রের নীচের এই অংশ মোটামুটি সমতল মালভূমির মতো হলেও কিছু জায়গায় খাদ রয়েছে৷ বিমানটি এমন কোনো খাদে পড়ে গেলে তা শনাক্ত করা অত্যন্ত কঠিন হবে৷ গোটা অভিযানের মূল্য ৫ কোটি ৬০ লক্ষ মার্কিন ডলার বা তার বেশি হতে পারে৷ দরপত্রের ভিত্তিতে কোনো বেসরকারি কোম্পানি এই কাজের নেতৃত্ব দেবে৷

এদিকে বিমানের শেষ মুহূর্ত সম্পর্কে আরও কিছু তথ্য পাওয়া গেছে৷ সে সময় বিমানটি অটোপাইলটে চলছিল বলে মনে করা হচ্ছে৷ তেল শেষ হয়ে যাওয়ার পর সেটা সমুদ্রে আছড়ে পড়ে৷ স্যাটেলাইট পিং বিশ্লেষণ করে বিমানের যে গতিপথের খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে, তাতে মনে হচ্ছে শেষের দিকে বিমানটির নিয়ন্ত্রণ কোনো পাইলটের হাতে ছিল না৷

এসবি/ডিজি (রয়টার্স, এএফপি, ডিপিএ)

নির্বাচিত প্রতিবেদন