1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

মালয়েশিয়ার বিমান বিধ্বস্ত: টুইটার যা ফাঁস করেছে!

ইউক্রেনের আকাশে মালয়েশিয়ার বিমান ঠিক কিভাবে বিধ্বস্ত হয়েছে তা এখনো নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি৷ তবে টুইটার ট্রেন্ড অনুসরণ করলে এ ব্যাপারে অনেকটা ধারণা পাওয়া যায়৷

মালয়েশিয়ার উড়াল এমএইচ১৭ আমস্টারডাম থেকে কুয়ালালামপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে ১৭ জুলাই৷ নেদারল্যান্ডসের স্থানীয় সময় দুপুর সোয়া বারটায় যাত্রা শুরুর চার ঘণ্টা পর বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় এয়ারলাইন কোম্পানির৷ এরপরই জানা যায়, ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের শহর শাখটারক্সের কাছে বিমানটি বিধ্বস্ত হয়েছে৷ সেসময় রাশিয়া-ইউক্রেন সীমান্ত থেকে মাত্র ৪০ কিলোমিটার দূরে ছিল সেটি৷

এমএইচ১৭ বিমানে থাকা ২৯৮ আরোহীর সকলে প্রাণ হারিয়েছেন৷ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, মরদেহগুলো বৃষ্টির মতো ঝড়ে পড়ছিল আকাশ থেকে৷ শনাক্ত করার পর্যায়ে নেই অধিকাংশ মৃতদেহ৷ এমনকি বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার পর তিনদিন সেগুলো মাটিতে পড়ে ছিল অবহেলায়৷

এখন মূল যে প্রশ্নটি সবার মাঝে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তা হচ্ছে কিভাবে বিধ্বস্ত হয়েছে বিমানটি? সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বিশেষ করে টুইটার প্রকাশিত বিভিন্ন মন্তব্য, ছবি, ভিডিও ইঙ্গিত দিচ্ছে রাশিয়ার তৈরি বুক ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ধ্বংস হয়ে থাকতে পারে এমএইচ১৭৷ এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছেন৷

ইউক্রেনের কর্মকর্তা এন্টন গেরাশেঙ্কো জানিয়েছেন, দেশটির উত্তরাঞ্চলে অবস্থানরত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা বুক মিসাইল লঞ্চার ব্যবহার করে বিমনাটি ভূপাতিত করেছে৷ বার্তাসংস্থা এপি দাবি করেছে, তাদের এক সাংবাদিক বিদ্রোহী-নিয়ন্ত্রিত শহর স্নিজেতে বুক মিসাইল দেখেছেন৷

তথ্য সরানো হয়েছে দ্রুত

বিলিংসক্যাট ডটকম নামক ওয়েবসাইটের অনুসন্ধানী সাংবাদিক ইলিওট হিগিন্স ইন্টারনেটে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন৷ এটি দেখে মনে হচ্ছে, একটি মিসাইল লঞ্চার স্নিজে শহরের রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে৷

এখানে উল্লেখ করা প্রয়োজন, মূল ভিডিওটি ইউটিউব থেকে দ্রুত মুছে ফেলা হয়েছিল৷ কিন্তু হিগিন্স সেটি সেভ করে রেখেছিলেন এবং পরে আবারো পোস্ট করেন৷ ক্রাউডসোর্সিংয়ের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের আলোকে হিগিন্সের দাবি, স্নিজের যে রাস্তায় মিসাইলটি দেখা গেছে সেটি বিমানটি যেখানে ভূপাতিত হয়েছে সেখান থেকে মাত্র ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার দূরে৷

একাধিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে জানা যাচ্ছে, বিদ্রোহীদের নেতা ইগোর স্ট্রেলকভ নিজেও একটি বিমান গুলি করে ভূপাতিত করার কথা রাশিয়ার ফেসবুক খ্যাত ভিকন্টাক্টেতে পোস্ট করেছিলেন৷ ইউক্রেনের পরিবহণ বিমান মনে করে বিমানটির দিকে মিসাইল ছোড়া হয়েছিল৷ কিন্তু অল্প কিছুক্ষণের মধ্যে পোস্টটি ডিলিট করে দেন তিনি৷ এমনকি সেটির কোনো স্ক্রিনশটও ইন্টারনেটে পাওয়া যায়নি৷ তাই বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত করা যাচ্ছে না৷

রাশিয়াপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ভুল করে মালয়েশিয়ার বিমানটি ভূপাতিত করেছে বলে মনে করছেন অনেকে৷ টুইটারে এমনটা লিখেছেনও তারা৷ এএফপি মিয়ানমারের নিউজ এডিটর ক্যালি ম্যাকনামারা ইয়াহু নিউজের একটি লিংক শেয়ার করেছেন টুইটারে যা ইঙ্গিত দিচ্ছে, বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ভুল করে বিমানটিতে হামলা করে থাকতে পারে:

ইউক্রেনের উত্তরাঞ্চলে অবস্থিত রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা অবশ্য বিমানটি গুলি করে ভূপাতিত করার খবর অস্বীকার করেছে৷ তারা বরং দাবি করছে, ইউক্রেনের জঙ্গি বিমানের হামলায় ভূপাতিত হয়েছে এমএইচ১৭৷ তবে এই দাবির পক্ষে বিশ্বাসযোগ্য কোনো তথ্যপ্রমাণ এখনোও পাওয়া যায়নি৷

এদিকে, বিমান দুর্ঘটনার খবরে শোক প্রকাশ করেছেন অসংখ্য মানুষ৷ টুইটারে #এমএইচ১৭ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে বিভিন্ন মন্তব্য, ছবি পোস্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত৷ উড়ালটিতে থাকা সর্বকনিষ্ঠ বিমানবালার ছবি প্রকাশ করেছেন ভিকাশ মিশ্রা৷ একই ছবি শেয়ার করেছেন আরেক টুইটার ব্যবহারকারী দেশ রাজও:

ইউক্রেনের মাটিতে অযত্নে পড়ে আছে নিহতদের বিভিন্ন জিনিসপত্র৷ ম্যাশেবল এর প্রতিবেদক ক্রিস্টোফার মিলার সেসবের কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন টুইটারে:

নির্বাচিত প্রতিবেদন