1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মার্গট কেসমানের পদত্যাগ : সংবাদভাষ্য

জার্মানির লুথেরান চার্চের প্রধান বিশপ মার্গট কেসমান মদ্যপ অবস্থায় গাড়ি চালানোর সময়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ার ফলে দেশজুড়ে প্রবল বিতর্ক দেখা দিয়েছে৷ এই অবস্থায় বুধবার পদত্যাগের ঘোষণা করলেন কেসমান৷

default

জার্মানির লুথেরান চার্চের প্রধান বিশপ মার্গট কেসমান

বিশপ মার্গট কেসমান পদত্যাগ করলেন৷ ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক৷ তিনি নিজেকে কখনই প্রোটেস্টান্ট ধর্মের পোপ হিসেবে গণ্য করেন নি, যিনি সব ভুল-ভ্রান্তির উর্দ্ধে৷ লুথেরান চার্চের প্রথম নারী প্রধান কেসমানের জীবনে বিবাহ বিচ্ছেদ ও ক্যান্সারের বিরুদ্ধে সংগ্রামের মত ঘটনা ঘটেছে৷ পরিস্থিতির সঙ্গে তিনি সংগ্রাম করেছেন, অত্যন্ত খোলামেলাভাবে তিনি সেবিষয়ে আলোচনাও করেছেন৷ ঠিক একারণেই তাঁর বিপুল জনপ্রিয়তা শুধু প্রোটেস্টান্ট সম্প্রদায়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে নি – ধর্মীয় সংস্কারপন্থীদের দৃষ্টিতেও তিনি ছিলেন আশার এক আলো – সৎ, উদ্যমী এবং উদার৷ মানুষের কাছাকাছি থেকেও তারকা হয়ে উঠেছিলেন এই নারী৷

সমাজ যদি কোন ধর্মীয় নেতার ভুল-ভ্রান্তি ক্ষমা করতে পারে, তাহলে কেসমানই সেই ব্যক্তিত্ব৷ গত শনিবার পুলিশ যখন তাঁর রক্তে অ্যালকোহল পরীক্ষা করতে চেয়েছে, তিনি আপত্তি করেন নি৷ নিজের আচরণেই স্তম্ভিত দেখাচ্ছিল তাঁকে৷ তিনি বলেন, তিনি মারাত্মক এক ভুল করে ফেলেছেন৷ বলেন, মদ খেয়ে গাড়ি চালানো কতটা বিপজ্জনক ও দায়িত্বজ্ঞানহীন, সেবিষয়ে তিনি সচেতন৷

24.02.2010 DW-TV Journal Nachrichten Käßmann

সাংবাদিকদের কেসমান বলেন, তিনি মারাত্মক এক ভুল করে ফেলেছেন

যে অন্যকে জল খেতে বলে নিজে মদ খায়, সে সমালোচকদের হাতে মোক্ষম অস্ত্র তুলে দেয়৷ মার্গট কেসমানও তা বিলক্ষণ জানেন৷ তাঁর ভাবমূর্তি যে বহু বছরের জন্য ক্ষতিগ্রস্ত হবে, তা জানাই ছিল৷ এমনকি লুথেরান চার্চের সংগঠন তাদের নেত্রীর প্রতি সমর্থন জানানো সত্ত্বেও এবং জনসাধারণের একটা উল্লেখযোগ্য অংশ তাঁর ভুল আচরণ ক্ষমা করতে প্রস্তুত হওয়া সত্ত্বেও কোন লাভ হয় নি৷ তাঁর নিজের দৃষ্টিভঙ্গীতে বিষয়টি ছিল অত্যন্ত স্পষ্ট৷ ক্ষমতা আঁকড়ে ধরে থাকলে প্রকাশ্যে বার বার তাঁকে হেনস্তা করা হত৷ এমন এক পদে থেকে সেটা সহ্য করা অত্যন্ত কঠিন হত৷

বলাই বাহুল্য, কেসমানের সমালোচকের অভাব নেই৷ নিজের এবং খ্রিষ্টধর্মের অন্য সম্প্রদায়ের মধ্যে তাঁর সমালোচনা করা হয়৷ গোঁড়া রক্ষণশীলরা তাঁকে নারী হিসেবে প্রোটেস্টান্ট গির্জার শীর্ষ পদে গ্রহণ করতে চায় নি৷ ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের সঙ্গে সম্মিলিত প্রার্থনার প্রশ্নে পোপের কাছ থেকে কোন প্রত্যাশা নেই তাঁর, বলেছিলেন কেসমান৷ ফলে তাঁরা অসন্তুষ্ট হন৷ আফগানিস্তানে জার্মানির সামরিক অভিযানের জোরালো সমালোচনা করে তিনি রাজনীতিকদেরও চক্ষুঃশূল হয়েছিলেন৷

Deutschland Kirche Verkehr Alkohol Margot Kässmann

খ্রীষ্টধর্মের ইতিহাসে কেসমানই প্রথম ব্যক্তি নন, যিনি ভুল করেছেন

আজ অনেকে মজা পেলেও কেসমানের পদত্যাগ কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক ও মর্মান্তিক এক ঘটনা – বিশেষ করে জার্মানির প্রোটেস্টান্ট সম্প্রদায়ের জন্য৷ সংস্কারপন্থী হিসেবে মার্গট কেসমান সমাজে প্রোটেস্টান্ট ধর্মকে নতুন এক গুরুত্ব দিয়েছিলেন৷ যখন তিনি দেশে শিক্ষার ক্ষেত্রে আরও ন্যায্য বণ্টন, উন্নয়নশীল দেশগুলির জন্য আরও উদ্যোগের দাবি জানিয়েছেন, তখন তার মধ্যে যথেষ্ট সততা ও আন্তরিকতার ছাপ পাওয়া গেছে৷

নেতৃস্থানীয় নারী হিসেবে সমাজে নিজের ভূমিকাকে খাটো করে দেখালেও মার্গট কেসমান দেখিয়ে দিয়েছেন, যে পুরুষদের একচেটিয়া ক্ষেত্রের মধ্যেও এক নারী শীর্ষে ওঠার ক্ষমতা রাখেন – এমনকি বিবাহ-বিচ্ছেদ সত্ত্বেও৷ তিনি গির্জার আধুনিক ও উন্মুক্ত রূপের প্রতিনিধিত্ব করেছেন৷

আমি চেয়েছিলাম, মার্গট কেসমান যেন পদত্যাগ না করেন৷ কারণ এই সিদ্ধান্তের মাধ্যমেও তিনি ধর্মীয় প্রতিনিধি হয়েও নিজের ভুল মেনে নেওয়ার দৃষ্টান্ত তৈরি করে আদর্শ হয়ে উঠতে পারতেন৷ মনে রাখতে হবে, খ্রীষ্টধর্মের ইতিহাসে তিনিই প্রথম ব্যক্তি নন, যিনি ভুল করেছেন৷ ওল্ড ও নিউ টেস্টামেন্টের অনেক আদর্শ ব্যক্তিত্ব নাটকীয় ভুল করেও ধর্মের বিকাশের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে গেছেন৷

লেখক: সাবিনে ডামাশকে, অনুবাদ: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল ফারূক