1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মার্কিন-সৌদি জোট বিপন্ন? আঞ্চলিক রসায়নের ভবিষ্যৎ কী?

ক্যাম্প ডেভিডে পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলির শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে আলোচনায় বসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ ইরান, আইসিস, কৌশলগত অবস্থান ইত্যাদি নানা বিষয় উঠে আসছে সেই বৈঠকে৷

US-Präsident Obama trifft Anführer der Golfstaaten in Washington

সৌদি নেতাদের সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা

শিয়া ইরানের সঙ্গে আন্তর্জাতিক সমাজের সম্ভাব্য পরমাণু চুক্তিকে কেন্দ্র করে গভীর সংশয়ে ভুগছে পারস্য উপসাগরীয় সুন্নি দেশগুলি৷ ক্যাম্প ডেভিডে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সঙ্গে ‘শীর্ষ সম্মেলনে' অনুপস্থিত বেশিরভাগ রাষ্ট্রপ্রধান৷ বিশেষ করে সৌদি বাদশাহ সালমানের অনুপস্থিতি সবচেয়ে আলোচিত বিষয়৷

এক মহলের মতে, পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলি অ্যামেরিকার সঙ্গে এক স্থায়ী সামরিক জোট গঠন করে আঞ্চলিক সংকটে মার্কিন সামরিক শক্তির ফায়দা তুলতে চাইছে৷ সে ক্ষেত্রে ওয়াশিংটনকে বাধ্যতামূলকভাবে বার বার সশস্ত্র সংগ্রামে জড়িয়ে পড়তে হবে৷

এমন প্রেক্ষাপটে এই গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চলের প্রতি অ্যামেরিকার ভবিষ্যৎ নীতি কী হওয়া উচিত, তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিতর্ক চলছে৷ সুন্নি দেশগুলির প্রতি অ্যামেরিকার ‘অন্ধ' নীতির সমালোচনা করছেন অনেকে৷ তাঁদের মতে, নাইন ইলেভেনের সৌদি আততায়ীদের থামানো যায়নি৷ তার পরেও মার্কিন পররাষ্ট্র নীতি কার্যত পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলির হাতে জিম্মি হয়ে পড়েছে৷ এবার ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক হলে আখেরে অ্যামেরিকারই লাভ হবে৷ সে দেশের প্রভাবের ক্ষেত্র আরও বড় হবে৷ সাংবাদিক সানাম শান্তিয়েই এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন শেয়ার করেছেন৷

হিউম্যান রাইটস ওয়াচ-এর কর্মকর্তা সারা লিয়ে হুইটসন অ্যামেরিকার সঙ্গে পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলির সহযোগিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে একটি প্রতিবেদন শেয়ার করেছেন৷

অন্যদিকে পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলির মধ্যেও ওবামা-র নীতি সম্পর্কে ক্ষোভ বাড়ছে৷ বাদশাহ সালমানের নেতৃত্বে সৌদি আরব আঞ্চলিক পরাশক্তি হিসেবে বার বার নিজস্ব শক্তি জাহির করছে৷ ইয়েমেনে সাম্প্রতিক সেনা অভিযান তারই দৃষ্টান্ত৷ এমনকি পরমাণু শক্তি তথা পরমাণু অস্ত্র আয়ত্ত করার বিষয়েও ভাবনা-চিন্তা করছ সে দেশ৷ ফলে ওয়াশিংটনকে ভেবে-চিন্তে সাবধানে পদক্ষেপ নিতে হবে৷ সৌদি পরমাণু নীতি সম্পর্কে প্রতিবেদন শেয়ার করছেন অনেকে৷

কৌশলগত নীতির বাইরে আরও একটি বিষয় আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এসে পড়ছে৷ অনেকের দাবি, ওয়াশিংটনকে অবশেষে পারস্য উপসাগরীয় দেশগুলির মানবাধিকার রেকর্ড নিয়ে সোচ্চার হতে হবে৷ মত প্রকাশের অধিকার, সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা, ব্লগারদের প্রতি অবিচারের মতো বিষয়েও খোলামেলা আলোচনা করার সময় এসে পড়েছে৷ এ বিষয়ে ওবামার প্রতি বাহরাইনের এক মানবাধিকার কর্মীর খোলা চিঠি শেয়ার করেছেন বহু মানুষ৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়