1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ইউরোপ

মার্কিন নাগরিকদের ইউরোপ ভ্রমণে ভিসা চালুর দাবি

ইউরোপ ভ্রমণে আগ্রহী মার্কিনিদের জন্য পুনরায় ভিসা ব্যবস্থা চালুর জন্য ব্রাসেলসের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপিয়ান সাংসদরা৷ বুলগেরিয়া, রুমানিয়াসহ কয়েকটি দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে ভিসা লাগার জবাবে এই উদ্যোগ৷

আগামী দুই মাসের মধ্যে মার্কিন নাগরিকদের জন্য ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলো ভ্রমণে বাধ্যতামূলক ভিসা চালু করতে চায় ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট৷ ওয়াশিংটন ইইউভুক্ত সব দেশের নাগরিকদের ভিসা ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের সুযোগ না দেয়ায় এই ব্যবস্থার পক্ষে পার্লামেন্ট৷ বৃহস্পতিবার তাই পার্লামেন্টের সদস্যরা একটি রেজ্যুলেশন অনুমোদন করেছে, যাতে মার্কিন নাগরিকদের জন্য আগামী মে মাসের মধ্যে ভিসা ব্যবস্থা চালুতে ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে৷

পার্লামেন্টে ভোটাভুটির পর আলডি গ্রুপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিলিৎস হাইউসমেনোভা এক বিবৃতিতে জানান, বুলগেরিয়া, রুমানিয়া, ক্রোয়েশিয়া, সাইপ্রাস এবং পোল্যান্ডসহ যৌথ নাগরিকত্ব আছে এমন ইইউ নাগরিকরা ভিসা ছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারছে না৷ সব মিলিয়ে প্রায় ১৪ শতাংশ ইইউ নাগরিকের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের ক্ষেত্রে ভিসা নেয়ার বাধ্যবাধকতা রয়েছে বলে জানান তিনি৷

হাইউসমেনোভা তাই মনে করেন, এসব নাগরিকের অধিকার রক্ষায় কমিশনকে আরো উদ্যোগী হতে হবে এবং একইসঙ্গে আন্তর্জাতিক স্তরে নিজেদের শক্তি ও ঐক্যের প্রদর্শনীর সময়ও এখন৷

বলা বাহুল্য, এর আগে ২০১৪ সালেও এ রকম এক উদ্যোগের দাবি জানালেও তা শেষ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হয়নি৷ তবে কমিশন জানিয়েছে, ইইউভুক্ত সব দেশের নাগরিকরা যাতে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণের ক্ষেত্রে ‘ভিসা রেসিপ্রোসিটি' সুবিধা পায় সেই লক্ষ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাডমিনস্ট্রেশনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে৷

‘‘আমরা জুন মাসে এ সংক্রান্ত আপডেট জানাবো এবং ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও কাউন্সিলের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ চালিয়ে যাবো,'' জানিয়েছেন ইউরোপিয়ান কমিশনের এক মুখপাত্র৷ ইউরোপিয়ান কর্মকর্তারা আশা করছেন, আগামী ১৫ জুন ইইউ এবং যুক্তরাষ্ট্রের মন্ত্রী পর্যায়ের এক বৈঠকে বিষয়টির সুরাহা হতে পারে৷

ব্রাসেলস আসলে মার্কিন নাগরিকদের জন্য আবারো ভিসা বাধ্যতামূলক করতে চায় না, কেননা প্রতিবছর ইউরোপে আসা পর্যটকদের এবং বাণিজ্যিক কারণে ভ্রমণকারীদের মধ্যে একটি বড় অংশই মার্কিন নাগরিক৷

এআই/এসিবি (রয়টার্স, ডিপিএ, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়