1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মার্কিন জাহাজ পাঠানো নিয়ে চীনের নতুন সতর্কবার্তা

উত্তর কোরিয়ার নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী করা হয়েছে মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ৬১ বছর বয়স্ক কিম কোয়ান জিন কে৷ ওদিকে চীন মার্কিন-দক্ষিণ কোরীয় নৌমহড়ার আগে তার তটরেখার অদূরে সামরিক তৎপরতার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছে৷

default

মার্কিন রণতরী ইউএসএস জর্জ ওয়াশিংটন

উত্তর কোরিয়ার নতুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী কিম কোয়ান জিন জয়েন্ট চিফ অফ স্টাফের সাবেক প্রধান৷ প্রায় চার দশক তিনি সামরিক বাহিনীতে দায়িত্ব পালন করেছেন৷ বলা হচ্ছে, রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন কৌশলগত নীতিতে তাঁর অভিজ্ঞতা রয়েছে৷ আজকেই তাকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে৷

সৌল সরকার একজন সেনানায়ককে তার নতুন প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবে ঘোষণার মাঝেই শুক্রবার উত্তর কোরিয়ার মিত্র ও সমর্থক দেশ চীনের কাছ থেকে আবার এক হুঁশিয়ারি এল৷ অ্যামেরিকা নৌবাহিনীর বিমানবাহী একটি জাহাজ পাঠিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায়৷ নাম ইউএসএস জর্জ ওয়াশিংটন৷ আগামী রবিবার থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে চার দিন ব্যাপী একটি যৌথ মহড়া শুরু করবে অ্যামেরিকা৷

Korea-Konflikt 2010

উত্তর কোরিয়ার গোলার আঘাতে বিধ্বস্ত দক্ষিণ কোরিয়ার একটি এলাকা

চীন তার তটরেখার অদূরে এধরণের সামরিক মহড়ার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দিয়েছে৷ উত্তর কোরিয়ারও যুদ্ধং দেহী ভাব কমেনি৷এ ব্যাপারে একে পুরোপুরি উস্কানিমূলক কর্মকান্ড হিসেবে দেখছে উত্তর কোরিয়া৷ উত্তর কোরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থার খবরে বলা হয়েছে, কোরিয়া উপদ্বীপে পরিস্থিতি যুদ্ধের দিকে পৌঁছে যাচ্ছে৷

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হং লেই জানান, পীত সাগরে যৌথ মহড়ার বিষয়ে আমাদের অবস্থান পরিষ্কার৷ আমরা একে সহজে মেনে নিচ্ছি না৷ আমাদের অনুমতি ছাড়া যে কেউ ইচ্ছেমত এসে মহড়া শুরু করে দিতে পারে না৷ চীনের প্রধানমন্ত্রীও এই যৌথ মহড়ার ঘটনাকে উস্কানিমূলক বলে আখ্যায়িত করেছেন৷ ওদিকে ওয়াশিংটন জোর চেষ্টা চালাচ্ছে যাতে চীন কমিউনিস্ট পিয়ং ইয়ং সরকারকে বাগে আনতে তৎপর হয় এবং ঐ অঞ্চলে উত্তেজনা প্রশমিত হয়৷

যে-দ্বীপে উত্তর কোরিয়া গোলা হামলা চালায় মঙ্গলবার সেই ইয়নপিয়ং উত্তর কোরিয়া থেকে ১২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত৷ ১৪শ বাসিন্দার মধ্যে মাত্র ৪৭ জন এখন ইয়নপিয়ং-এ রয়েছে৷ বাকিরা নিরাপদে আশ্রয় গ্রহণ করেছে অন্য জায়গায়৷

সৌল সরকার সেনা সংখ্যা বাড়াচ্ছে দ্বীপে৷ ইয়নপিয়ং-এর পাশাপাশি রয়েছে আরো ৪টি দ্বীপ৷ অর্থাৎ পাঁচটি দ্বীপে সেনা সংখ্যা পাঁচ হাজার থেকে ১২ হাজার করতে যাচ্ছে সৌল৷ এ খবর জানিয়েছে ইয়নহাপ বার্তা সংস্থা৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: আবদু্ল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়