1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

মার্কিন কূটনীতিকদের জন্য আইস বাকেট নিষিদ্ধ

‘এএলএস আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ' অ্যামেরিকা ও ইউরোপ সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে৷ এক কঠিন স্নায়ুরোগের গবেষণায় অর্থ সংগ্রহের এই মহৎ কাজের উপর ‘নৈতিক কারণে' নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷

এক বালতি কনকনে ঠান্ডা বরফের টুকরো৷ স্বেচ্ছায় তা নিজের গায়ে ঢালতে দেওয়ার মতো পাগলামি কেউ করে? করে বৈকি৷ কোটিপতি থেকে শুরু করে প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট এমন দুঃসাহসিক কাণ্ড করছেন৷ উদ্দেশ্য অত্যন্ত মহৎ৷ কারণ এই ‘স্টান্ট' থেকে যে অর্থ সংগ্রহ করা হচ্ছে, তা একটি জনহিতকর কাজে ব্যয় করা হচ্ছে৷ সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ‘এএলএস আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ' ছড়িয়ে পড়ছে দিকে দিকে৷

রোগটির নাম অ্যাময়িওট্রফিক ল্যাটেরাল সক্লেরোসিস বা এএলএস, লু গেয়ারিগ নামেও যেই ব্যাধি পরিচিত৷ কঠিন এই স্নায়ু রোগ হলে রোগীর শরীরের অনেক পেশির স্বাভাবিক ক্রিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়৷ এই রোগের মোকাবিলা করতে প্রয়োজন আরও গবেষণা৷ তার জন্য অর্থ সংগ্রহ করতেই চলছে এই ‘আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ'৷ সবাইকেই যে বরফ-বৃষ্টি সহ্য করতে হবে, তা নয়৷ এর বদলে ১০০ ডলার দান করলেও চলবে৷ যারা বরফের অভিঘাত সহ্য করছেন, তাঁরা সেই ছবি পোস্ট করে অন্যদের কাছেও চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছেন৷ মাইক্রোসফট কোম্পানির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস-এর এমন ছবি প্রকাশিত হবার পর এই বিষয়টিকে ঘিরে আগ্রহ আরও বেড়ে গেছে৷ প্রাক্তন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশ-ও বরফের অভিঘাত সহ্য করে নিজের ছবি তুলিয়েছেন৷ বর্তমান প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা অবশ্য এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেননি৷ এর বদলে তিনি অর্থ দানের পথ বেছে নিয়েছেন৷

মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিষয়টিকে ভালো চোখে দেখছে না৷ তাই সব মার্কিন কূটনীতিকের উপর ‘বালতি নিষেধাজ্ঞা' চাপানো হয়েছে৷ মহৎ কাজের জন্য অর্থ সংগ্রহের বিষয়ে সরাসরি আপত্তির কথা বলছে না পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়৷ ফেডারেল প্রশাসনের একটি নির্দেশিকার উল্লেখ করে বলা হয়েছে, যে রাষ্ট্রদূত সহ উচ্চপদস্থ কূটনীতিকরা নিজেদের পদের মর্যাদা ভেঙে ‘প্রাইভেট গেন' বা ব্যক্তিগত লাভের জন্য কোনো কাজ করতে পারেন না – তা সে কাজ যতই মহৎ হোক না কেন৷

এদিকে ‘আইস বাকেট চ্যালেঞ্জ' কতটা নিরাপদ, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে৷ বৃহস্পতিবার অ্যামেরিকার কেন্টাকি রাজ্যের এক বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠানে বরফ ঢালার কাজে সাহায্য করছিলেন কয়েকজন দমকল কর্মী৷ তাঁদের মধ্যে চারজন আহত হয়েছেন, দু'জনের অবস্থা গুরুতর৷ দুর্ঘটনাটি সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ বিস্তারিত না জানালেও বেসরকারি সূত্র থেকে জানা গেছে, বরফের আধারটি বিদ্যুতের তারের সংস্পর্শে চলে আসে৷

এসবি/ডিজি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন