1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মার্কিন উপস্থিতি প্রতিহত করার আহ্বান শিয়া নেতার

ইরাকের শিয়া নেতা মুক্তাদা আল সাদর দেশে মার্কিনিদের উপস্থিতি শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিহত করার জন্যে আহ্বান জানিয়েছেন৷ একই সঙ্গে ইরাকের নতুন সরকারকে একটা সুযোগ দেওয়ার জন্যে দেশের মানুষকে একত্রিত হবারও আহ্বান জানিয়েছেন তিনি৷

default

শিয়া নেতা মুক্তাদা আল সাদর

প্রায় চার বছর স্বেচ্ছা নির্বাসনে ইরানে কাটানোর পরে দেশে ফিরে শনিবার সমর্থকদের সামনে মুক্তাদা আল-সাদরের এটিই প্রথম ভাষণ৷ গত মাসে সাদরের ‘আন্দোলন' ৭ জন মন্ত্রী ও পার্লামেন্টে ৩৯টি আসন নিয়ে নতুন সরকারে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে সরকারের সঙ্গে একটি চুক্তি নিশ্চিত করেছে৷

Unruhen in Najaf

সাদরের সমর্থক মেহদি আর্মী

রাজধানী বাগদাদ থেকে ১৬০ কিলোমিটার দক্ষিণে নাজাফে হাজার হাজার সমর্থকের উদ্দেশ্যে এই শিয়া নেতা বলেন, আমরা এখনও যোদ্ধা৷ তাই প্রতিহত করা থামিয়ে দিলে হবে না৷ কারণ আমাদের লক্ষ্য দেশ থেকে দখলদারিদের বের করে দেওয়া৷ গত বুধবারে তিনি ইরান থেকে দেশে ফিরে আসেন এবং এরপরে এটিই তাঁর প্রথম ভাষণ৷ ইরাকের নতুন সরকারকে সমর্থন দেওয়ার জন্যে শিয়া নেতা সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, সরকার যদি জনগণকে রক্ষা করে, নিরাপত্তা নিশ্চিত করে এবং সেবামূলক কাজ করে তবে সরকারকে তিনিও সমর্থন দেবেন৷ ভাষণের শুরুতেই সাদর অ্যামেরিকা ও ইসরায়েলকে ‘না' বলার জন্যে, এবং দখলদারিদের প্রত্যাহার করার জন্যে সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানান৷

২০০৩ সালে ইরাকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন অভিযানের পরে, সাদরের সমর্থক মেহদি আর্মীর, মার্কিন এবং ইরাকি বাহিনীর সঙ্গে বহুবার সংঘর্ষ হয়েছে৷ এখনও প্রায় ৫০ হাজার মার্কিন সৈন্য রয়েছে ইরাকে৷ তবে তারা আছে বাগদাদ এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে হওয়া একটি নিরাপত্তা চুক্তির আওতায়৷ চুক্তি অনুযায়ি, চলতি বছরের শেষ নাগাদ তাদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার কথা রয়েছে৷ ২০১০ সালরে ১ সেপ্টেম্বর থেকে ইরাকে কমব্যাট অভিযান শেষ হবার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়ার পরে, বাদবাকি মার্কিন সৈন্যরা ইরাকে রয়েছে প্রধানত ইরাকি বাহিনীকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্যে৷ তবে কমব্যাট অভিযান শেষ হওয়া সত্ত্বেও, আত্মরক্ষার জন্যে মার্কিন সৈন্যদের পাল্টা গুলি করার অধিকার রয়েছে৷ শুধু তাই নয়, দ্বিপক্ষীয় নিরাপত্তা চুক্তির আওতায়, ইরাকি বাহিনী যদি তাদেরকে কোন অভিযানে অংশ নেওয়ার জন্যে অনুরোধ করে তবে মার্কিন সৈন্যরা যে কোন অভিযানেও অংশ নিতে পারবে৷

পেন্টাগন ২০০৬ সালে শিয়া নেতা মুক্তাদা আল সাদরকে ইরাকের স্থিতিশীলতার জন্যে সবচেয়ে বড় হুমকি হিসেবে চিহ্নিত করে৷ সাদরের বাহিনী সবচেয়ে সক্রিয় এবং ভয়ংকর সশস্ত্র শিয়া বাহিনী হিসেবে পরিচিত৷ হাজার হাজার সুন্নিকে হত্যার জন্যে ওয়াশিংটন মেহদি বাহিনীকে দায়ী করে থাকে৷

প্রতিবেদন:ফাহমিদা সুলতানা

সম্পাদনা:আরাফাতুল ইসলাম