মানুষ সরকারকে সময় দিলেও প্রতিশ্রতির বাস্তবায়ন চায় | বিশ্ব | DW | 07.01.2011
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মানুষ সরকারকে সময় দিলেও প্রতিশ্রতির বাস্তবায়ন চায়

প্রতিশ্রুতি পূরণে সরকারকে এখন অনেক সতর্কভাবে এগোতে হবে৷ মানুষ সময় দিতে প্রস্তুত কিন্তু নির্ধারিত সময়ের পর তার ফল দেখতে চায়৷ গত ২ বছরে সরকারের বেশিকছু প্রতিশ্রুতি প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে৷

default

শেখ হাসিনা (ফাইল ছবি)

তাই সামনের দিনগুলোতে আর কাউকে দোষারোপ করে পার পাওয়া যাবেনা৷ এমন অভিমত বিশ্লেষকদের৷

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহাজোট সরকারের ২ বছর পূর্তিতে বৃহস্পতিবার জাতির উদ্দেশ্যে দেয়া ভাষণে সব প্রতিশ্রুতি পূরণের আশ্বাস দিয়ে দেশবাসীকে আরেকটু ধৈর্য ধরার আহ্বান জানিয়েছেন৷ এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি আনিসুল হক বলেছেন, ধৈর্য ধরতে আপত্তি নেই৷ কারণ দুই বছর খুব বেশি সময় নয়৷ কিন্তু গত ২ বছরে প্রতিশ্রুতির অনেক জায়গায় মানুষ হোঁচট খেয়েছে৷ তাই আরো দুই বছর পর ব্যর্থতার জন্য সরকার বিরোধী দলকে দোষারোপ করার তেমন সুযোগ পাবেনা৷

অর্থনীতিবিদ ড. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, মধ্যস্বত্বভোগীদের দাপট কমিয়ে মানুষের ক্রয় ক্ষমতা বাড়ান যেত৷ কিন্তু সরকার সেটা করেনি৷ আর বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী বেশ কিছু প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং নতুন প্রকল্পের কথা বললেও নির্ধারিত সময়ে হচ্ছেনা যা জটিলতার সৃষ্টি করছে৷

বিএনপি এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতার ওপর কোন প্রতিক্রিয়া জানায়নি৷ তবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ মনে করেন, প্রধানমন্ত্রী গত ২ বছরের ব্যর্থতা কিছুটা স্বীকার করেছেন৷ কিন্তু দেশবাসীকে ভবিষ্যতের জন্য আশ্বস্ত করতে পারেননি৷

অন্যদিকে মহাজোট সরকারের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ তার দলীয় কর্মীদের এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর বক্তৃতায় স্বচ্ছতা রয়েছে৷ এই সরকারের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ আইন-শৃঙ্খলা এবং দ্রব্যমূল্য৷ এ দুটি যে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি তা প্রধানমন্ত্রী নিজেও জানেন৷ আইন-শৃঙ্খলা এবং দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে আনা গেলে এই সরকার আবারও ক্ষমতায় যাবে বলে এরশাদ মনে করেন৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক