1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মানুষগুলোও যদি বিল্ডিংগুলোর মতো দেশের জন্য কাজ করতো!

বাংলাদেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলিতে বেশ কিছু লেখালেখি হয়েছে৷ ব্লগওয়াচে সেই বিষয়গুলো তুলে ধরা হলো৷

সামহয়্যার ইন ব্লগে এস এম রাকিব লিখেছেন, ‘‘রবিবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিতে গিয়ে দেখলাম পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছে শেখ মুজিবর রহমান হল, জিয়াউর রহমান হল, বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল আর বেগম খালেদা জিয়া হল৷ দেখে বড়ই ভালো লাগলো৷ হলগুলো যাঁদের নামে তাঁদের উত্তরসুরী বা স্বয়ং সেই যারা আজ ‘অ্যাকটিং পার্ট অব বাংলাদেশ পলিটিকস' তারা যদি ঐ ভবনগুলোর মতো নিজেরাও পাশাপাশি থেকে দেশের জন্য কাজ করত তাহলে কতই না ভালো হতো!''

একই ব্লগে শেখ সেলিম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কিছু কাজের ব্যাখ্যা দিয়েছেন৷ তাঁর লেখার শিরোনাম দিয়েছেন, ‘সংবিধান সচেতন আওয়ামী লীগের সংবিধান লংঘন৷'

লিখেছেন, ‘‘সংবিধানকে নিজ দলের স্বার্থে যথেচ্ছ ব্যবহার করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেই স্বৈরাচারী মনোভাব নিয়ে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করছে, হরণ করেছে কথা বলার অধিকার এবং মত প্রকাশের স্বাধীনতা৷ সংবিধান রক্ষার নামে সেনাবাহিনীসহ অন্যান্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের দাঁড় করিয়েছে জনগণের মুখোমুখী৷ সংবিধান রক্ষার নামে একে একে অসাংবিধানিক পন্থা অবলম্বন করে ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করছে৷ আওয়ামী লীগের ঘৃন্যতম কার্যক্রমকে সবাই 'না' বলুন৷ রুখে দাঁড়ান এ ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে৷''

নাজমুল পিন্টু'র ব্লগের শিরোনাম ‘বাংলাদেশের রাজনৈতিক মুসলিম'

তিনি লিখেছেন, ‘‘প্রকৃত মুসলিম আর বাংলাদেশের একজন রাজনৈতিক মুসলিমের মধ্যে বিশাল একটা ফারাক আছে৷ একজন মুসলিম তাঁর নেতা হিসেবে মানেন মহানবী (সা.) কে, আর আমাদের বাংলাদেশি রাজনৈতিক মুসলিমরা নেতা মানেন তাদের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দকে৷''

তার একটা প্রমাণ হলো কোনো মানুষ যদি আমাদের সারা বিশ্বের ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের প্রিয়মানুষ (সা.) কে অপমান করে, তবে কোনো রাজনৈতিক দলের একদল তা ‘মত প্রকাশের অধিকার' বলে পার পেয়ে যায়, আর আরেক দল ‘বাংলার মাটিতে ইসলাম কায়েম করে ছাড়বো, এরপর এদের বিচার করে ছাড়বো ইনশা আল্লাহ-' বলে ইসলামের বুলি ছোড়া শুরু করে৷ নিজেরা এই অপমানের বদলা না নিতে পারলেও, কেউ যদি ওই অপমানের প্রতিশোধ নেয় তখন তারাই হয় ধর্মের কল নাড়ানো শুরু করে কিংবা চেতনার বাণী প্রসব করে৷''

সারা বিশ্বের মুসলিম মানে এক ও অভিন্ন জাতি৷ এর দ্বিতীয় কোনো শাখা নেই, আর যারা ‘জাতীয়তার' নামে বিভেদ তৈরি করে, তাদের ফয়সালা তো তিনি করবেন যিনি সবার ও আমার একমাত্র প্রভু৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়