1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘মানবাধিকার, তুমি আসলে কার?''

একাত্তরে ব্যাপক মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আবদুল আলীমকে আমৃত্যু কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত৷ ফাঁসির আদেশ না হওয়ায় অনেকেই হতাশ৷ ডা. ইমরান এইচ সরকার প্রশ্ন রেখেছেন, ‘‘মানবাধিকার, তুমি কি গণহত্যার মাস্টারমাইন্ডের?’’

একাত্তরে রাজাকার বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে ব্যাপক নিধনযজ্ঞ চালানোর অভিযোগে বিএনপি নেতা আবদুল আলীমকে মৃত্যুবরণ না করা পর্যন্ত কারাজীবন যাপনের আদেশ দিয়েছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২৷ হত্যা, গণহত্যা ও লুটতরাজের মতো অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে মৃত্যুদণ্ডই দেয়া হতো, কিন্তু স্বাধীনতাবিরোধী দল মুসলিম লীগের এই সাবেক নেতার বেশি বয়স এবং পঙ্গু বলে আমৃত্যু কারাদণ্ড দেয়া হয়৷ ৮৩ বছর বয়সি এই যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি না হওয়ায় ব্লগার আরিফ জেবতিক ফেসবুক অ্যাকাউন্টে হতাশা প্রকাশ করেছেন এভাবে, ‘‘আলীমের আজীবন কারাবাসের রায়ে হতাশ হলাম৷ শহীদদের আত্মার প্রতি ন্যায়বিচারের স্বার্থে অবিলম্বে এই খুনি হায়েনার ফাঁসির যৌক্তিকতা প্রমাণ করে আপিল করা হোক৷''

ব্লগার অমি রহমান পিয়ালও নীরব থাকেননি৷ ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘‘রাজাকার নেতা আলীমের আমৃত্যু কারাদণ্ড...আমি ক্ষুব্ধ, অপরাধীদের বয়স বিবেচনায় আনেন, অপরাধের গুরুত্ব না?'' গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকারও এ রায় শুনে হতাশ৷ ফেসবুক অ্যাকাউন্টে আগের দিন শুধু রায় ঘোষণার পরের কর্মসূচি ঘোষণার মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখলেও বুধবার তাঁর লেখায় আইনের যথার্থতা নিয়েও প্রশ্ন উঠে এসেছে৷ আব্দুল আলীমকে মানবিক কারণে মৃত্যুদণ্ড না দেয়ায় ক্ষুব্ধ, হতাশ ইমরান এইচ সরকারের প্রশ্ন, ‘‘মানবাধিকার তুমি কার? গণহত্যার মাস্টারমাইন্ডের, না দেশপ্রেমিকের?'' শেষ বাক্যে একটি মন্তব্য, ‘‘কী বিচিত্র মানুষের আইন!''

সংকলন : আশীষ চক্রবর্ত্তী

সম্পাদনা : জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়