1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেনের মুক্তি দাবি

মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেনের যাবজ্জীবন শাস্তির বিরুদ্ধে দেশব্যাপী প্রতিবাদে সরব হয়েছে গোটা ভারতের বুদ্ধিজীবী মহল৷ সেই সূত্রে আজ নতুনদিল্লিতে এসেছেন সেনের পত্নী ইলিনা সেন৷ এই অবিচারের বিরুদ্ধে বক্তব্য রাখেন তিনি৷

Demonstration, Inhaftierung, Author, Binayak, Sen, Jaipur, বিনায়ক, সেন, মুক্তি, দাবি, জয়পুর, বিক্ষোভ, মানবাধিকারবাদী, চিকিৎসক,

বিনায়ক সেনের মুক্তির দাবিতে জয়পুরে বিক্ষোভ

মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেনের পত্নী ইলিনা সেনের অভিযোগ তাঁর স্বামীকে ভিত্তিহীন অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে৷ সাক্ষ্য প্রমাণের নামে আদালতে পুলিশ যা পেশ করেছে তা জাল৷ তাঁর বাড়ি থেকে যেসব কাগজপত্র এবং কম্পিউটার তথ্য-উপাত্ত পুলিশ নিয়ে গেছে তাকে বিকৃত করা হয়েছে৷ সেসময় কোন সাক্ষী উপস্থিত ছিলেন না বা বাড়ির মালিকের সই নেয়া হয়নি৷ ইলিনা সেন বলেন, তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ তিনি মাওবাদী তাত্ত্বিক নেতা জেলবন্দি নারায়ন স্যান্নালের চিঠি পাচার করেন৷ তিনি লুকিয়ে তো নিয়ে যাননি৷ সেসময় দুজন জেলার সেখানে ছিলেন৷ দ্বিতীয়ত চিঠিতে হিংসার নামগন্ধ ছিল না৷ শুধু তাই নয় আমার বিরুদ্ধেও অভিযোগ আমার সঙ্গেও নাকি পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-এর যোগাযোগ আছে৷ এসবই বানানো৷ তাসত্ত্বেও দায়রা আদালত এই সব কিছু মেনে নিয়ে বিনায়ক সেনকে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধে শাস্তি দেন৷

ভারতীয় বিচার ব্যবস্থার দায়বদ্ধতার প্রশ্ন তুলে বিনায়ক সেনের পত্নী বলেন, এটা শুধু বিনায়ক এবং তাঁর পরিবারের নয় তার চেয়েও বেশি৷ যেভাবে পুলিশি হয়রানির শিকার হতে হয়েছে পুরো পরিবারকে তাতে একসময় বিদেশে আশ্রয় নেবার কথাও ভেবেছিলাম, বলেন ইলিনা সেন৷

Dr. Binayak Sen

মানবাধিকারবাদী চিকিৎসক বিনায়ক সেন

ইলিনার আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ এই অন্যায় বিচারের জন্য ঐ বিচারকের অপসারণ দাবি করেন৷ এই জিনিস চলতে থাকলে সামাজিক মেরুকরণের আশঙ্কা আছে৷ অর্থাৎ সরকারের পক্ষে না আসা মানে সরকারের বিপক্ষে৷ এটা এক নাৎসিবাদী মানসিকতার পরিচয়, বলেন বিশিষ্ট আইনজীবী প্রশান্ত ভূষণ৷

দার্শনিকও ভাষাবিদ নোয়াম চমস্কি, নোবেল বিজয়ী অমর্ত্য সেন, ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপার, মুশিরুল হাসান, অর্থনীতিবিদ অশোক মিত্রের মত বিদ্দজনদের অভিমত বিনায়ক সেন কখনও হিংসার পথে হাঁটেননি৷ চিকিৎসক হিসেবে বরাবরই তিনি থেকেছেন প্রান্তিক মানুষজনদের পাশে৷ তার পরেও তাঁকে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অপরাধে যেভাবে শাস্তি দেয়া হয়েছে, তা অবিশ্বাস্য৷ তাঁরা একথাও বলেছেন, সাংবিধানিক ব্যবস্থার নামে রাষ্ট্র যখন এমন ব্যবস্থা নেয়, তখন সাংবিধানিক ব্যবস্থা নিয়েই প্রশ্ন ওঠে৷

নোবেল বিজয়ী অমর্ত্য সেন বলেছেন, যিনি মানুষের কল্যাণে কাজ করেছেন তাঁকে দেশবিরোধী বলে জেলে পোরা সরকারের চিন্তার বিকৃতি৷ মহৎ কাজের স্বীকৃতি না দিয়ে বিনায়ক সেনকে সারা জীবন জেলবন্দি করে রাখা অন্যায় অবিচার৷ বিচারের প্রহসন৷ বিনায়ক সেনের শাস্তি রদ করার আহ্বান জানিয়ে এবিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের হস্তক্ষেপ চেয়েছে নিখিল ভারত খ্রিষ্টান কাউন্সিল৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ