1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

মাইকেল জ্যাকসনের মৃতদেহের ছবি দেখানো ঠিক হবে না

২০০৯ সালের ২৫শে জুন পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নিয়েছেন ‘কিং অফ পপ’ বা পপ সম্প্রাট মাইকেল জ্যাকসন৷ তাঁর মৃতদেহের ছবি আদালতে দেখানো হবে কিনা - তা নিয়ে এখন উঠেছে বিতর্ক৷

default

জ্যাকসনের মৃতদেহের ছবি দেখানো যাবে না

মাইকেল জ্যকসনের ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. কনরাড মারে'র আইজীবীরা জানিয়েছেন, জ্যাকসনের মৃতদেহের ছবি যদি আদালতে দেখানো হয় তাহলে তা জুরিপক্ষকে প্রভাবিত করবে৷ কারণ মৃতদেহের ছবিগুলো স্বাভাবিক নয়৷ ছবিগুলো দেখে প্রয়াত মাইকেল জ্যাকসেনর প্রতি জুরিপক্ষের সহানুভূতি হতে পারে৷

ডা. মারে'র আইজীবীরা জানিয়েছেন, মাইকেল জ্যাকসনের অসংখ্য আর্থিক ঋণ ছিল৷ সেই ঋণের হাত থেকে মুক্তি পেতে জ্যাকসন নিজেই প্রোপফল ইঞ্জেকশন নিয়েছিলেন৷ ডা. মারে'র এতে কোনো হাতই ছিল না৷

Conrad Murray

ডা. মারে - কারাদণ্ড হতে পারে, লাইসেন্স বাতিল হতে পারে

অপরদিকে মাইকেল জ্যাকসনের আইনজীবীদের দাবি, ডা. কনরাড মারে প্রোপফল ইঞ্জেকশন দেয়ার পরই মাইকেল জ্যাকসন অজ্ঞান হয়ে যান৷ এবং সেই অবস্থাতেই জ্যাকসনকে রেখে ডা. মারে পালিয়ে যান৷ রোগীর কী হল, তাঁর জ্ঞান ফিরে আসল কিনা, তা নিয়ে ডা. মারে'র কোনো মাথাব্যাথা ছিল না৷

আগামী মাসের ৯ তারিখে মামলার শুনানি শুরু হবে৷ তাই এ মুহূর্তে দুই পক্ষই তৈরি হচ্ছে প্রয়োজনীয় কাজগপত্র নিয়ে আদালতে হাজির হতে৷

ডা. মারে যদি দোষী সাব্যস্ত হন, তাহলে তাঁর চার বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড হতে পারে৷ সেই সঙ্গে চিকিৎসক হিসেবে স্থায়ীভাবে বাতিল করা হতে পারে তাঁর লাইসেন্সও৷

প্রতিবেদন: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদনা: দেবরতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়