1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মসজিদে বোমা হামলা, জেএমবির অর্থের খোঁজ

বাংলাদেশের রাজশাহীর বাগমারা এলাকায় আহমদিয়া মুসলিম জামাতের একটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় বোমা বিস্ফোরণে একজন নিহত এবং অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছেন৷ পুলিশের অবশ্য দাবি, আত্মঘাতী হামলাকারীই ঐ হামলায় নিহত হয়৷

অডিও শুনুন 02:23

জেএমবি এখন স্লিপার সেল পদ্ধতিতে কাজ করছে: সানোয়ার হোসেন

এ নিয়ে গত একমাসে বাংলাদেশে অন্ততপক্ষে চারটি মসজিদে হামলার ঘটনা ঘটলো৷ এর আগে গত ১৯শে ডিসেম্বর শুক্রবার জুমার নামাজের সময় চট্টগ্রামের পতেঙ্গায় বিএনএস ঈশা খাঁ ঘাঁটিসংলগ্ন মসজিদ ও নেভি হাসপাতালসংলগ্ন মসজিদে বোমা হামলা চালানো হয়৷ তাতে ছয়জন আহত হন৷ এরপর গত ২৬শে নভেম্বর মাগরিবের নামাজের সময় বগুড়ার শিয়া মসজিদে ঢুকে মোয়াজ্জিমকে গুলি করে হত্যা করা হয়৷

মসজিদ ছাড়াও এ সময়ে মন্দির, মন্দিরের পুরোহিত ও যাজকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে বাংলাদেশে৷ এ সব হামলায় নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহেদিন (জেএমবি) জড়িত বলে দাবি করছে পুলিশ৷

এদিকে ঢাকা মাহানগর গোয়েন্দা পুলিশ বৃহস্পতিবার ঢাকার মিরপুরের একটি বাড়ি থেকে সাতজন জেএমবি সদস্য, ১৭টি দেশীয় গ্রেনেড এবং বিস্ফোরক ও জিহাদী বই উদ্ধার করেছে৷ গোয়েন্দা বিভাগের জঙ্গি বিষয়ক সেলের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার সানোয়ার হোসেন ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘মিরপুরের ঐ বাড়িটি তারা তাদের অফিস হিসেবে ব্যবহার করতো৷ তারা এখানে বসেই নানা ধরনের হামলার পরিকল্পনা করে৷'' তবে সানোয়ার হোসেনের দাবি, ‘‘জেএমবি এখন আর আগের মতো শক্তিশালী নয়৷ তাদের হামলার প্রধান উদ্দেশ্য হলো নিজেদের অবস্থানের জানান দেয়া এবং নতুন সদস্যদের আকৃষ্ট করা৷''

তিনি জানান, ‘‘‘জেএমবি' তাদের সদস্য এবং তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে অর্থ সংগ্রহ করছে৷ আমরা তাদের একটি তালিকা করছি৷ এছাড়া তারা দেশের বাইরে থেকেও অর্থ পায়, বিশেষ করে প্রবাসী বাংলাদেশিদের একটি গ্রুপ তাদের অর্থ সহায়তা দিয়ে থাকে৷''

সানোয়ার হোসেন আরো জানান, ‘‘জেএমবি এখন স্লিপার সেল পদ্ধতিতে কাজ করে৷ তারা ছোট ছোট গ্রুপে ভাগ হয়ে তৎপরতা চালায়৷ তাই তাদের মূল নেতৃত্বে এখন কারা আছে, তা এখনও জানা যায়নি৷ কারণ তাদের এক গ্রুপ আরেক গ্রুপের পুরো খবর জানে না৷''

তাঁর কথায়, সাভারে ব্যাংক ডাকাতি, পুলিশ হত্যা, হোসেনি দালান এলাকায় আশুরার মিছিলে হামলা – এ সবই জেএমবির কাজ৷ তারা মসজিদ, মন্দিরসহ অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোতে হামলার সঙ্গেও জড়িত৷

আপনাদের কী মনে হয়? জেএমবির মতো একটা দলকে কারা আর্থিক সাহায্য করছে? জানান নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও