1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

মরুভূমিতে বাতাস থেকেই পানি উৎপাদন!

মরুভূমির রুক্ষ পরিবেশে পানির অভাব বড় সমস্যা৷ এক ডাচ শিল্পী ও উদ্ভাবক অভিনব উপায়ে বাতাস থেকেই পানি সৃষ্টি করতে চান৷ তাঁর পরীক্ষামূলক প্রকল্প মালির মরুভূমিতে সফলভাবে কাজে লাগানো হয়েছে৷

মালির মরুভূমিতে সূর্যের গনগনে উত্তাপের মাঝে পাঁচদিন ধরে নতুন এক উদ্ভাবনের ফল যাচাই করা হচ্ছে৷ দেখতে সাধারণ মনে হলেও দু'টি বাক্স আসলে এক শিল্পীর সৃষ্টি৷ নেদারল্যান্ডসের সেনাবাহিনী মালিতে তাদের শান্তি মিশনে এই আইডিয়া কাজে লাগাতে চায়৷ এখনো বড়ো আকারে তার প্রয়োগ সম্ভব না হলেও এর মাধ্যমে একদিন মরুভূমিতে পানি আনার সম্ভাবনা রয়েছে৷

সাহারা মরুভূমির মাঝে গাও অঞ্চলের জন্য এমন সম্ভাবনা সামরিক কমান্ডারের মনে ধরেছে৷ ডাচ সেনা ইউনিটের প্রধান জেনারেল টম মিডেনডর্প বলেন, ‘‘এমন প্রকল্প জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে সাহায্য করতে পারে৷ পানির অভাবের মধ্যে আমরা স্থানীয় মানুষের জন্য বোঝা হতে চাই না, বরং তাদের আরও সাহায্য করতে চাই, এই এলাকায় সংকটের অন্যতম কারণের সমাধান করতে চাই৷ পানির জন্য তাদের সংঘর্ষে যেতে না হলে তো সমস্যার একটা অংশের সমাধান হয়ে যাবে৷’’

গড়ে তোলার কাজসহজ হলেও সমস্যা কম ছিল না৷ চারিদিকে বালু, উচ্চ তাপমাত্রা – যা এমনকি সোলার প্যানেলের জন্যও অত্যন্ত বেশি৷ যন্ত্র শীতল রাখার তরল পদার্থ নিয়েও সমস্যা রয়েছে৷ এই উদ্ভাবনের মূলে রয়েছে সোলার সেল ও সাধারণ কিছু বাক্স৷ বাক্সের গায়ে ধাতুর তৈরি হিটিং ব্যবস্থা লাগানো আছে৷ বাতাসের তাপমাত্রা বেশি হওয়া সত্ত্বেও তার উপর শীতল পানির বিন্দু তৈরি হয়৷ সবকিছু ঠিকমতো চললে সৌরশক্তি চালিত একটা ছোট পাম্প ভিতরেই তরল পদার্থকে শীতল রাখে৷ তখন বাতাসে আর্দ্রতা বৃষ্টির মতো ঝরে পড়ে৷ ২৪ ঘণ্টায় ৮ লিটার পরিষ্কার পানি পাওয়া যাবে৷ শিল্পী ও উদ্ভাবক হিসেবে আপ ফ্যারহেখেন বলেন, ‘‘অর্থ বা ব্যয় নিয়ে কথা হচ্ছে না৷ আমি বলতে পারি, যে আমরা নিজেরাই প্রকল্পের জন্য অর্থ দিচ্ছি৷ তাই সস্তার ও নির্ভরযোগ্য সরঞ্জাম ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছি৷’’

উদ্ভাবক একটি ছোট সংস্করণও তৈরি করেছেন, যা দিয়ে দিনে এক গ্লাস পানি সংগ্রহ করা যায়৷ তিনি গোটা বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উদ্দেশ্যে এই প্রকল্পে অংশ নেবার ডাক দিচ্ছেন, যাতে আরও উন্নত সরঞ্জাম তৈরি করা যায়৷ দ্য হেগ ইনস্টিটিউট ফর গ্লোবাল জাস্টিস-এর ড. পাট্রিক হুন্টইয়েন্স বলেন, ‘‘আরও পানি উৎপাদন করতে এই ইউনিটকে আরও নিখুঁত করে তুলতে হবে, কারণ দু'টিই আসলে প্রোটোটাইপ৷ কৃষিক্ষেত্রে ড্রিপ সেচের জন্যও এই সমাধানসূত্র বড় অবদান রাখতে পারে৷’’

এই উদ্ভাবন এখনো বড় আকারে প্রয়োগ করার সময় আসেনি৷ কিন্তু মরুভূমিতে এই আইডিয়া কাজে লাগিয়ে হাতেনাতে মৌলিক ফল পাওয়া গেছে৷

এলকে মাইভাল্ড/এসবি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক