1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভাইরাল ভিডিও

মঞ্চ কাঁপালেন ৮০ বছরের ‘সেক্সি দাদু'

গতবছর বেইজিং-এ চাইনিজ ফ্যাশন উইকে ক্যাটওয়াকে নেমে বাজার মাত করেন দেশুন ওয়াং, যদিও তাঁর বয়স ৮০৷ নয়ত তিনি পেশায় চিত্রাভিনেতা৷ সুদীর্ঘ জীবন, বিচিত্র অভিজ্ঞতা৷

‘‘দ্য ফরবিডেন কিংডম'' বা ‘‘ওয়ারিওর্স অফ হেভেন অ্যান্ড আর্থ''-এর মতো ছবিতে যারা দেশুন ওয়াং-কে দেখেছেন, তারা তাঁকে ক্যাটওয়াকে দেখলে সম্ভবত আরো অবাক হতেন৷ খালি গায়ে কিংবা জামাকাপড় পরা অবস্থায় দেশুন যে কোনো কমবয়সি পুরুষ মডেলের সঙ্গে পাল্লা দিতে পারেন, এমন তাঁর স্বাস্থ্য, সৌষ্ঠব, স্টাইল অথবা হাঁটা-চলা৷

দেশুনের জন্ম চীনের শেনিয়াং প্রদেশে, সেখানেই বড় হয়েছেন৷ ২৪ বছর বয়সে হন মঞ্চাভিনেতা; ৪৪-এ ইংরেজি শিখতে শুরু করেন; ৪৯ বছর বয়সে নিজের মুকাভিনয়ের দল গঠন করেন৷ তারপর যান বেইজিং-এ; সেখানে ভবঘুরে হয়ে কিছুদিন কাটান৷ ৫০ বছর বয়সে প্রথম জিম-এ পা দেন, ওয়ার্ক-আউট করতে শুরু করেন৷ ৫৭-য় মঞ্চে ফিরে সৃষ্টি করেন ‘‘লিভিং স্কাল্পচার পার্ফর্মেন্স'', যা কিনা দুনিয়ার একমাত্র ‘‘জীবন্ত'' পার্ফর্মেন্স আর্ট

 

এরপর ৭০ বছর বয়স থেকে রীতিমতো শরীরচর্চ্চা৷ ৭৯ বছর বয়সে প্রথমবার মডেল হিসেবে ফ্যাশন শো-তে অংশগ্রহণ৷ আজ তাঁকে বিশ্বের ‘‘হটেস্ট গ্র্যানপা'' বা সবচেয়ে সেক্সি দাদু বা ঠাকুর্দা বলে বিবেচনা করেন অনেকে – জানিয়েছেন দেশুন নিজেই৷ এবং তিনি যে ইন্টারনেটে ঢেউ তুলেছেন, সেটাও তাঁর অজানা নয়৷

দেশুনের উপদেশ হলো, বয়সটাকে কিছু না করার অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করা উচিত নয়, নিজের মধ্যে সম্ভাবনাটাকেই দেখা উচিত৷ দেশুনেরও এখনও অনেক স্বপ্ন আছে, বলে জানালেন এই ৮০ বছরের তরুণ...৷

এসি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন