1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

মঙ্গলগ্রহে প্রাণ? পানির অস্তিত্বের দাবি নাসার

লাল রঙের গ্রহে অবশেষে প্রাণের সন্ধান পাওয়া যেতে পারে৷ কারণ সেখানে দস্তুরমতো জলের স্রোত বইছে বলে দাবি করেছে মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসা৷ পানির অপর নাম জীবন৷ তাই এবার যদি মঙ্গলে প্রাণের অস্তিত্ব মেলে – তাহলে অবাক হবেন কি?

হ্যাঁ, নাসা জানিয়েছে রক্তিম এই গ্রহে নাকি জলের স্রোত বইছে গিরিখাত দিয়ে৷ এছাড়া গ্রীষ্মে গ্রহের অসংখ্য গহ্বরের মধ্যেও পানির অস্তিত্বের প্রমাণ মিলেছে৷ জলের দাগ মিলছে মঙ্গলের গায়েও৷

নাসার দাবি, মঙ্গলগ্রহের তাপমাত্রা শূন্য থেকে পঁচিশ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি হলেই জলের দেখা পাওয়া যাচ্ছে৷ কিন্তু প্রশ্ন হলো, এই পানি আসছে কোথা থেকে? বিষয়টি নিয়ে এখনও নিশ্চিত নয় নাসা৷ তবে তাদের ধারণা, মঙ্গলের মাটির নীচে বরফ বা নোনা কোনো কিছু থেকে জল আসতে পারে৷ তবে পানি যেখান থেকেই আসুক, এর ফলে মঙ্গলে প্রাণ আছে কিনা, তা নিয়ে বিতর্ক আবারো জোরালো হতে শুরু করেছে৷ তাই ভবিষ্যতের মঙ্গল অভিযানে যে সব এলাকায় জল আছে, সে সব এলাকাতেই মহাকাশযান অবতরণের উদ্যোগ নেবে নাসা৷ জলের নমুনা সংগ্রহ করে চলবে পরীক্ষা-নিরীক্ষাও৷ আর প্রাণের সন্ধান মিললে মঙ্গল যাতে বাসযোগ্য হয়ে ওঠে, তার জন্য অক্সিজেন তৈরির কাজ ইতিমধ্যেই শুরু করেছে নাসা৷

অবশ্য জার্মান জ্যোতির্বিজ্ঞানী রাল্ফ ইয়াউমান ডয়চে ভেলেকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ‘‘মঙ্গলগ্রহে পানি পাওয়া গেছে ঠিকই৷ কিন্তু সেই জল অতিরিক্ত পরিমাণে লবণাক্ত৷ অর্থাৎ পান করার অযোগ্য৷ তবে মঙ্গল অত্যন্ত হিমায়িত হলেও, এই লবণাক্ততার ফলেই বরফ দ্রুত গলতে শুরু করবে৷ আর জলের ভারিত্বের কারণে তা বেশি সময় পর্যন্ত মঙ্গলপৃষ্ঠে থেকেও যাবে৷''

Marssonde entdeckt flüssiges Wasser auf dem Mars EINSCHRÄNKUNG & SPERRFRIST

মঙ্গলগ্রহে জলের দাগ...

বলা বাহুল্য, মঙ্গলগ্রহ নিয়ে বিজ্ঞানীদের কৌতূহল আজকের নয়৷ সেখানকার অনেক বৈশিষ্ট্য আমাদের পৃথিবীর সঙ্গে মিলে যায়৷ সে কারণেই বহু বছর ধরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ মঙ্গলগ্রহ সম্পর্কে জানতে গবেষণা করে যাচ্ছিল৷

ডিজি/জেডএইচ

নির্বাচিত প্রতিবেদন