1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

অন্বেষণ

ভ্যাকুয়াম ক্লিনার? কিনবেন কেন, ভাড়া করুন

বার্লিনের একটি স্টার্ট-আপ ইলেকট্রিকের যন্ত্রপাতি বিক্রি করে না – ভাড়া দেয়৷ গ্রাহকের সুবিধা এই যে, তাঁকে মান্ধাতার আমলের প্রযুক্তি নিয়ে দিন কাটাতে হয় না৷

কম না বেশি, বেশি না কম? বই কি আসবাবপত্র, সব কিছু সাজানো-গোছানো, ছিমছাম – কিন্তু কম৷ মিমি একজন ‘মিনিমালিস্ট'৷ দু'বছর আগে তিনি তাঁর জীবনধারা পুরোপুরি পালটে ফেলার সিদ্ধান্ত নেন৷

মিমি বলেন, ‘‘গোড়ায় আমি নিজেও ঠিক বুঝিনি যে, এ ভাবে বেঁচে থাকার একটা নাম আছে, এটা একটা লাইফস্টাইল৷ আমার শুধু মনে হয়েছিল: আমি আমার জীবনে কিছু একটা বদলাতে চাই, আমি কমাতে চাই৷''

জিনিসপত্র খুব কম থাকবে বা আদৌ থাকবে না৷ জার্মানিতে কেনার বদলে ভাড়া করা এখন একটি গ্রহণযোগ্য বিকল্প৷ গাড়ি না কিনে শেয়ার করা আজ বহু মানুষের কাছে সাধারণ ব্যাপার৷ তাহলে তা অন্যান্য যন্ত্রপাতি, সাজসরঞ্জামের বেলাতেই বা চলবে না কেন? প্রশ্নটা মাথায় আসবার পরেই মিশায়েল কাসাউ বার্লিনে তাঁর স্টার্ট-আপটি প্রতিষ্ঠা করেন – সেও দু'বছর আগের কথা৷ আজ তিনি ইলেকট্রিকের যন্ত্রপাতি ভাড়া দিয়ে থাকেন৷

মিশায়েল বললেন, ‘‘গ্রাহকদের পক্ষে যখন দরকার, তখন একটা পণ্য ব্যবহার করতে পারা ও তার জন্য মাসিক একটা সস্তার ভাড়া দেওয়া অনেক বেশি সুবিধের৷ প্রথমে জার্মানিতে, তারপর সম্ভব হলে সারা বিশ্বের গ্রাহকদের এই কথাটা বুঝিয়ে দেওয়া হল আমাদের কাজ৷ সেটাকেই আমরা আমাদের লক্ষ্য বলে ধরে নিয়েছি৷''

ভিডিও দেখুন 02:50

ভাড়া করুন ভ্যাকুয়াম ক্লিনার

হালফ্যাশন

বাজারে সর্বাধুনিক প্রযুক্তির যন্ত্রপাতি যা পাওয়া যাচ্ছে, ‘গ্রোভার' কোম্পানির গ্রাহকরা সেটাই চান৷ ৩১ বছর বয়সি মাইক কচ স্টার্ট-আপটির প্রথম গ্রাহকদের মধ্যে গণ্য৷ তিনি চান, বাজারে সবচেয়ে নতুন যে অ্যাপ্লায়ান্সটি এসেছে, সেটি ব্যবহার করতে – কিন্তু কিনে নয়, ভাড়ায়, যা কোনো সমস্যাই নয়৷ আজ তিনি যে স্বয়ংক্রিয় হুভার যন্ত্রটি পেয়েছেন, তা নিজে থেকেই গোটা ফ্ল্যাটের ভ্যাকুয়াম ক্লিনিং করতে পারে৷

মাইক কচ-এর বক্তব্য হল, ‘‘প্রযুক্তি সত্যিই এত তাড়াতাড়ি এগিয়ে চলেছে যে, বাস্তবিক কোনো কিছু কিনে কোনো লাভ নেই – কেননা এক বছরের মধ্যেই তার চেয়ে ভালো মডেল বাজারে এসে যাবে৷ তখন সেই পুরনো মডেল নিয়ে বসে থাকতে হবে৷''

অন্তত এক মাসের জন্য যন্ত্রটি ভাড়া করতে হবে – কেনার চেয়ে শেষমেষ ২৫ শতাংশ বেশি দাম দেওয়াও আশ্চর্যের কিছু নয়৷ তবে মাইকের মতো গ্রাহকদের কাছে নিত্যনতুন মডেল ব্যবহার করতে পারার স্বাধীনতার দামও তার চেয়ে কিছু কম নয়৷

মার্টা  গ্রুন্ডসিনস্কা/এসি

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও