1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভুয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্ম্য দিন দিন বাড়ছে

ঢাকায় তারা বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেল ও পত্রিকার জাল পরিচয়পত্র ব্যবহার করে ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষকে হুমকি দিয়ে চাঁদা আদায় করে৷ এতে বিপাকে পড়ছেন পেশাদার সাংবাদিকরা৷

পুলিশ জানিয়েছে, ভুয়া সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযানের নেয়া হবে৷

ঢাকার কারওয়ান বাজার এলাকা থেকে তানভীর আহমেদ নামে এক ভুয়া সাংবাদিককে পুলিশ বুধবার দুপুরে গ্রেপ্তার করে৷ তার কাছ থেকে দুটি টেলিভিশন চ্যানেল এবং চারটি পত্রিকার জাল পরিচয়-পত্র উদ্ধার করা হয়৷ এছাড়া, তার মোটরবাইকেও লাগানো ছিল টেলিভিশন চ্যানেলের স্টিকার৷ সে ইনসিওরেন্স কোম্পানির একজন কর্মকর্তার কাছ থেকে চাঁদা আদায়ের সময় হাতেনাতে ধরা পড়ে৷ প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা শহীদুল ইসলাম ডয়চে ভেলেকে জানান, ক্ষতিকর রিপোর্ট করার হুমকি দিয়ে এই ভুয়া সাংবাদিক গত ছয় মাস ধরে তাঁর কাছে থেকে প্রতিমাসে প্রায় পাঁচ হাজার টাকা করে নিত৷ পরে তিনি জানতে পারেন যে, সে আসলে সাংবাদিক নয়৷ তখন তিনি তাকে ধরে পুলিশে দেন৷ পুলিশ তার ছয়টি ভুয়া পরিচয়-পত্র এবং মোটরসাইকেল জব্দ করেছে৷

Jamaat-e-Islami Partei ruft zu Nationalstreik auf

পুলিশ জানিয়েছে, ভুয়া সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযানের নেয়া হবে

ঢাকা মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার মাসুদুর রহমান ডয়চে ভেলেকে জানান, তারা প্রায় প্রতিদিনই এরকম ভুয়া সাংবাদিকদের নানা বেআইনি তত্‍পরতার খবর পান৷ চলতি বছরে তারা এ পর্যন্ত অন্তত ২০ জন ভুয়া সাংবাদিকে আটক করেছেন৷ তিনি জানান, এইসব ভুয়া সাংবাদিকদের ঠাটবাট এমন যে তাদের সাধারণ মানুষ সহজে ধরতে পারেন না৷ এমনকি পেশাদার সাংবাদিকরাও তাদের দেখে মাঝেমধ্যে বিভ্রান্ত হন৷ তারা অনেকেই দামি গাড়িতে চলা-ফেরা করে৷ আর ক্যামেরায় জাল স্টিকার লাগিয়ে মানুষকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায় করে৷ মাসুদুর রহমান জানান, তারা এইসব ভুয়া সাংবাদিকের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

এদিকে, আটক হওয়ার পর ভুয়া সাংবাদিক তানভীর আহমেদ পুলিশকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে যে তাদের চক্রের সদস্য চারজন৷ তাদের ক্যামেরা, গাড়ি সব কিছু আছে৷ আর জাল পরিচয়-পত্র তারা নিজেরাই কম্পিউটারে তৈরি করে থাকে৷ এসব পরিচয়পত্র তারা তৈরি করে একাধিক নামে৷ সে পুলিশকে জানায়, ঢাকায় বর্তমানে এরকম অন্তত ২০টি ভুয়া সাংবাদিক চক্র আছে এবং তারা দলবেধে চলা-ফেরা করেন৷

ঢাকার কয়েকজন পেশাদার সাংবাদিক ডয়চে ভেলেকে জানান, শুধু পুলিশকে উদ্যোগ নিলেই হবে না, বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এবং সাংবাদিক ইউনিয়নকে ভুয়া সাংবাদিক চিহ্নিত করতে ব্যবস্থা নিতে হবে৷ নয়ত সাংবাদিকদের প্রতি মানুষের আস্থা কমে যাবে আর পেশাদার সাংবাদিকরা বিব্রতকর অবস্থায় পড়বেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন