1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভুল্ফের নির্বাচন নিয়ে প্রতিক্রিয়ার ঝড়

দশম জার্মান প্রেসিডেন্ট পদে ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফের নির্বাচন জার্মানির রাজনৈতিক অঙ্গনের পারস্পরিক সমস্যার এক নিদর্শন হয়ে থেকে যাবে নি:সন্দেহে৷ বিভিন্ন মহল থেকে দেখা যাচ্ছে নানারকমের প্রতিক্রিয়া৷

default

ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফের সঙ্গে ইওয়াখিম গাউক

কী বলছে রাজনৈতিক দলগুলো

প্রথম পর্বের ভোটে চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেলের পছন্দের প্রার্থী, বা তথাকথিত সরকারি প্রার্থী ক্রিস্টিয়ান ভুল্ফের ঝুলিতে কম ভোট পড়ার পর থেকেই উল্লসিত বিরোধীরা৷ বিরোধী সামাজিক গণতন্ত্রী বা এসপিডি দলের শীর্ষ নেতা জিগমার গাব্রিয়েল সাফ বলেছেন, ম্যার্কেলের জোট সরকারেরই এই পরাজয়৷ আরেক বিরোধী দল সবুজ বা গ্রীনদের ওপরের সারির নেত্রী রেনাটে কুয়েনাস্ট আবার একটু ব্যঙ্গ করেই বলেছেন, প্রথম পর্বের ভোটের ফলাফল ম্যার্কেলকে আদৌ শক্তিশালী করেনি৷ টিভির পর্দায় সারাক্ষণই এই নির্বাচনের সরাসরি সম্প্রচার হচ্ছিল বুধবার৷ছিল বিচার বিশ্লেষণ এবং নানান মন্তব্য৷ সেখানেও বলা হয়েছে, ম্যার্কেলের জোটসঙ্গীদের অনেক সাংসদই এই ভোটে চ্যান্সেলরের বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছেন৷ যদিও সরকারের প্রধান জোটসঙ্গী এফডিপি-র শীর্ষ নেতা তথা পররাষ্ট্রমন্ত্রী গিডো ভেস্টারভেলের দাবি, তাঁর ধারণা তাঁর দলের তিন চারজনের বেশি ভুল্ফের বিরোধী প্রার্থী গাউককে ভোট দেন নি৷

NO FLASH Bundespräsidentenwahl 2010 CDU Christian Wulff

মিডিয়াতে বেশ সমালোচিত ম্যার্কেল

জার্মানির সবচেয়ে প্রচারিত দৈনিক বিল্ড-এর বক্তব্য, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের এই ফলাফল ম্যার্কেলের ওপর একটা মস্তবড় আঘাত৷ মধ্য দক্ষিণপন্থী সংবাদপত্র বলে পরিচিত ডি সাইট -এর বক্তব্য, দ্বিতীয় দফায় চ্যান্সেলর পদের দায়িত্ব নেওয়ার মাত্র নয়মাসের মাথায় ম্যার্কেল এবং তাঁর জোটের জন্য এই নির্বাচনের ফলাফল রীতিমত লজ্জার বিষয়৷ ব্যাপারটাকে মহাদুর্যোগ বলে আখ্যা দিয়েছে বাণিজ্য বিষয়ক দৈনিক হান্ডেলসব্লাট৷ আর জার্মানির সবচেয়ে গ্রাহ্য পত্রিকা ডেয়ার স্পিগেলের অনলাইন সংস্করণ আরও একধাপ এগিয়ে গিয়ে বলেছে, প্রথম পর্বের ভোটে সরকারি প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী ভুল্ফের গরিষ্ঠতা না পাওয়াটা ম্যার্কেলের সর্বোচ্চ ব্যর্থতা ছাড়া আর কিছুই নয়৷ নিজের জোটকেই সংগঠিত করতে তিনি ব্যর্থ৷ বলছে ডেয়ার স্পিগেল৷

বিশেষজ্ঞরা কীভাবে দেখছেন ভুল্ফের নির্বাচনকে

বুধবার সারাদিনই জার্মানি সরগরম ছিল এই প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে৷ প্রথম দ্বিতীয় এবং অবশেষে তৃতীয় দফায় ভোটাভুটি গড়ানোর পর তৈরি হয়েছিল রীতিমত টানটান পরিস্থিতির৷ নির্বাচন চলাকালীনই আসতে থাকে একের পর এক মন্তব্য৷ বার্লিনের ফ্রি ইউনিভার্সিটির রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ অস্কার নিডেরমায়ারের মতে, সরকারের জোটকে প্রমাণ করতে স্পষ্টভাবে ব্যর্থ হয়েছেন চ্যান্সেলর ম্যার্কেল৷ এই পরিস্থিতিতে তিনি আরও আস্থা হারাবেন অচিরেই৷ সংবাদসংস্থা এএফপি-র কাছে দেওয়া সাক্ষাত্কারে আর এক রাজনীতি বিশেষজ্ঞ নিলস ডিয়েডেরিচ বলেছেন, এই ফলাফল এবং এই পরিস্থিতি ম্যার্কেলের মানসিক পরাজয় এবং সম্মানহানি ঘটিয়েছে৷

প্রতিবেদন: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সম্পাদনা : সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়