1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভিয়েতনাম সরকার বলছে ‘চুপ করো'

সাবেক সরকারি কর্মকর্তা তিনি৷ অবসর জীবনেও বসে থাকেননি৷ ব্লগ লিখে জানাতেন ক্ষোভ, আনন্দ, দুঃখ, বেদনা-সব৷ সেখানে সরকারের সমালোচনা করতে গিয়েই ডেকে এনেছেন বিপদ৷ ফাম ভিয়েত দাও তাই এখন জেলে৷

৬১ বছর বয়সি এ ব্লগারকে ‘গণতান্ত্রিক স্বাধীনতার অমর্যাদা' করার অভিযোগে গ্রেপ্তার করেছে ভিয়েতনাম পুলিশ৷ গণতন্ত্রের মূল কথা যদি মত প্রকাশের স্বাধীনতা হয়, তাহলে সে দেশের সরকারের কাছে গনতন্ত্রের সংজ্ঞা কী সেটাই হতে পারে প্রশ্ন৷ কমিউনিস্ট শাসিত দেশটিতে অবাধ তথ্যপ্রবাহের বালাই নেই৷

Police officers escort French-Vietnamese math professor Pham Minh Hoang out of a courthouse in Ho Chi Minh City, Vietnam, Wednesday, Aug. 10, 2011. Hoang was sentenced to three years in Vietnamese prison for belonging to a banned pro-democracy group and publishing an anti-communist blog online, his lawyer said. (Foto:Vietnam News Agency, Hoang Hai/AP/dapd)

ব্লগারদের গ্রেপ্তারের ঘটনা নতুন নয় ভিয়েতনামে...

হালে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে সব বয়সের মানুষ তথ্য এবং মত বিনিময় শুরু করায় সরকর যে মহা দুশ্চিন্তায় সেটা বোঝাই যায়৷ এ বছরের শুরুর পাঁচ মাসেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে ৪৬ জন ব্লগার এবং সমাজ কর্মীকে৷ গত বছর সংখ্যাটা অনেক বেশি ছিল৷

গত মাসের শেষ দিকে গ্রেপ্তার করা হয় ৪৯ বছর বয়সি ব্লগার তুরুং দু নাথকে৷ সাংবাদিকতা ছেড়ে ব্লগ খুলে লেখালেখি শুরু করা তুরুংয়ের বিরুদ্ধে আনা হয় গণতান্ত্রিক স্বাধীনতার অপব্যবহার করে রাষ্ট্রবিরোধী কর্মকাণ্ড পরিচালনার অভিযোগ৷

এদিকে এভাবে একের পর এক ব্লগার এবং ভিন্নমতাবলম্বী গ্রেপ্তার করে ভিয়েতনাম সরকার পড়ছে সমালোচনার মুখে৷ যুক্তরাষ্ট্রসহ বেশ কিছু দেশ মতপ্রকাশের স্বাধীনতার গুরুত্ব দিয়ে আটক সবাইকে মুক্তি দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে৷ ভিয়েতনামের অর্থনীতিবিদ নগুয়ান কুয়াং এ সরকারের এমন স্বৈরাচারী আচরণ দেখে বলেছেন, ‘‘সরকার আসলে বলছে, তোমরা সবাই চুপ করো৷'' এমন ইঙ্গিত দিলেও লেখালেখি বন্ধ করে সবাই কিন্তু চুপ করে বসে থাকছে না!

এসিবি/ডিজি (এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন