1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

ভাষা না জানলে পাওয়া যায় না ‘হৃদয়'

ঠিক হৃদয় নয়, বলছি হৃদযন্ত্রের কথা৷ ভাষা না জানার কারণে জার্মান একটি ক্লিনিক নাকি এক রোগীর নাম হার্ট প্রতিস্থাপনের অপেক্ষমান তালিকায় রাখতে চায়নি৷ তবে এবার, নতুন এক নীতিমালা হয়ত অঙ্গ প্রতিস্থাপনে স্বচ্ছতা আনতে সক্ষম হবে৷

হাসান রাশোভ-হুসেইন অত্যন্ত অসুস্থ৷ তাঁর হার্ট ঠিকমতো রক্ত পাম্প করতে পারে না৷ ইরাক থেকে আসা এই কুর্দ শরণার্থীর জরুরি ভিত্তিতে হার্ট প্রতিস্থাপন প্রয়োজন৷ কিন্তু বাড ও্যনহাউসেন-এর একটি ক্লিনিক এ ব্যাপারে তাঁকে ‘ওয়েটিং লিস্ট' বা অপেক্ষমান তালিকায় রাখতে রাজি হয়নি৷ কারণ হিসাবে বলা হয়, অপারেশনের পর জটিল নিয়মকানুন বোঝার মতো যথেষ্ট জার্মান ভাষার জ্ঞান রোগীর নেই৷

Prof Gummert

য়ান গুমার্ট জানান, জার্মানির এই নীতিমালায় বলা হয়েছে যে, অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ব্যাপারে কোন রোগীকে অপেক্ষমান তালিকায়ই রাখা হবে

ক্লিনিকের অসহযোগিতা

হাসানের আইনজীবী এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে প্রতিটি মানুষেরই সমান অধিকার রয়েছে৷'' কিন্তু ক্লিনিকটি মনে করছে, এক্ষেত্রে সঠিক পদক্ষেপই নেওয়া হয়েছে৷ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জার্মান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন-এর নীতিমালা অনুযায়ী ৷ ক্লিনিকের প্রধান য়ান গুমার্ট এই প্রসঙ্গে বলেন, জার্মানির এই নীতিমালায় বলা হয়েছে যে, অঙ্গ প্রতিস্থাপনের ব্যাপারে কোনো রোগীকে অপেক্ষমান তালিকাতেই রাখা হবে৷ এতে বলা হয়েছে, ভাষা সমস্যা থাকলে রোগী চিকিৎসার ব্যাপারে সম্পূর্ণ সহযোগিতা নাও পেতে পারেন৷ আসলে অঙ্গ প্রতিস্থাপনের পর ডাক্তারের নির্দেশ যথাযথভাবে পালন করতে হয়৷ তা না হলে ভয়াবহ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে, হতে পারে মৃত্যুও৷ ‘‘...আর এর হাত থেকেই আমরা রোগীদের রক্ষা করতে চাই'', বলেন গুমার্ট৷

অন্য হাসপাতালের খোঁজ

এই ধরনের নীতিমালা ব্যাখ্যার ব্যাপার৷ ঐ ক্লিনিক প্রত্যাখ্যান করার পর হাসান অন্য এক হাসপাতালের সঙ্গে যোগাযোগ করেন৷ ম্যুন্সটার ইউনিভার্সিটি ক্লিনিক হার্ট প্রতিস্থাপনের জন্য তাঁকে ‘ওয়েটিং লিস্ট'-এ স্থান দেয়৷ ভাষাগত বাধার ব্যাপারটা তাদের কাছে তেমন অনতিক্রম্য মনে হয়নি৷ গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপারে দোভাষী নিয়োগ করে তারা৷ আর রুটিন পরীক্ষা-নীরিক্ষার ব্যাপারে হাসানের জার্মান জানা আত্নীয়স্বজনরা সাহায্য করেন৷

Bundesverfassungsgericht Karlsruhe Streit um Kopftuchverbot

জার্মান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগের ফলে অবশ্য সব মানুষই ভাষা না জানলেও সমান অধিকার পাবে

হাসানের আইনজীবী জাহিট টোলান মনে করেন, ভাষা সমস্যা দেখিয়ে রোগীর সঙ্গে বৈষম্যমূলক আচরণ করাটা সংবিধান পরিপন্থি, যাতে সমানাধিকার ও ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠার কথা বলা হয়েছে৷ এ কারণে ক্লিনিকের বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণের মামলা করেন তিনি৷ দাবি করেন ১০.০০০ ইউরো৷ অবশেষে অনেক কাঠখড় পুড়িয়ে মীমাংসা হয় ক্লিনিকটির সঙ্গে৷ রফা হয় ৫০০০ ইউরোতে ৷ তবে এই ভাবে রফা হওয়াতে অঙ্গ প্রতিস্থাপন নীতিমালার ব্যাপারে আদালতের কোনো স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে হয়নি৷

স্পষ্ট নীতিমালা দাবি

জার্মানির রোগী সুরক্ষা সংগঠনের পরিচালনা বোর্ডের অয়গেন ব্রিশ মারাত্মক অসুখে আক্রান্তদের অধিকার রক্ষার দায়িত্বে রয়েছেন৷ তিনি অঙ্গ প্রতিস্থাপন ব্যবস্থায় স্পষ্ট নীতিমালা দাবি করেন৷ তাঁর মতে, এক্ষেত্রে নানা রকমের ব্যাখ্যা থাকা উচিত নয়৷

ভবিষ্যতে যাতে এ ব্যাপারে জটিলতা দেখা না দেয়, সে জন্য জার্মান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন অঙ্গ প্রতিস্থাপন নীতিমালাটিকে স্পষ্ট করার উদ্যোগ নেবে৷ এর ফলে সব মানুষই সমান অধিকার পাবে ভাষা না জানলেও৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন