1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভাষার মাসে কয়েক ব্লগারকে হত্যার পরিকল্পনা

গত কয়েকদিন ধরে একটি সংবাদ ঘুরপাক খাচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে৷ বাংলাদেশের কয়েকজন ব্লগারকে হত্যার পরিকল্পনা করছে জঙ্গি গোষ্ঠী আনসারুল্লাহ বাংলা টিম৷ গোয়েন্দা বরাতে এই তথ্য প্রকাশ করেছে ঢাকার একটি জাতীয় দৈনিক৷

আলোচিত কয়েকজন ব্লগারের মধ্যে দু'জনের অবস্থান ইউরোপে৷ তাঁদের একজন অনন্য আজাদের সঙ্গে সর্বশেষ আশঙ্কা নিয়ে কথা হয়েছে কয়েকবার৷ চলতি মাসে ঢাকা যাবার পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি৷ তবে সেটা একান্ত আপনজন ছাড়া কাউকে জানাননি তিনি৷

অনন্যর এই পরিকল্পনার মাঝেই ৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকার দৈনিক যুগান্তর জানিয়েছে, চার ব্লগারকে হত্যার পরিকল্পনা করা হচ্ছে চলতি মাসে, যার মধ্যে আছেন তিনিসহ আরো তিনজন ব্লগার৷

নুর নবী দুলাল নামক আরেক ব্লগার, যিনি ‘ইস্টেশন' ব্লগের মডারেটর, তাঁকে হত্যার পরিকল্পনার কথা তিনি পত্রিকা মারফতই জেনেছেন৷ দুলাল বলেন, ‘‘২০১৩ সালের পর থেকেই আমি চরম আস্থাহীনতায় ভুগছি৷ নিলয় নীল এর হত্যাকাণ্ডের পর থেকে আত্মগোপনে থাকি সব সময়৷ এখনো একই অবস্থায় আছি৷''

যুগান্তরে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, আলোচিত ব্লগারদের সতর্ক করা হয়েছে৷ তবে অনন্য আজাদ ও নুর নবী দুলাল জানিয়েছেন, তাঁদের কেউ সতর্ক করেনি৷ পত্রিকার মাধ্যমে জেনেছেন তাঁরা৷ এই বিষয়ে জানতে চাইলে সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ তানভীর হাসান জোহা জানান, কোন ব্লগার হুমকির মুখে আছেন কিংবা কাকে হত্যার পরিকল্পনা করা হচ্ছে তা ইন্টারনেট নজরদারির মাধ্যমে তাঁরা জানতে পারেন৷ প্রাপ্ত তথ্য তাঁরা পুলিশকে জানান৷ আর ব্লগারদের জানানোর দায়িত্ব পুলিশের৷

যুগান্তর পত্রিকায়ও তানভীর হাসান জোহার বরাতে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে৷ বর্তমান সরকারের তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি বিভাগে কর্মরত এই বিশেষজ্ঞ ডয়চে ভেলেকে জানান, জঙ্গিদের দ্বারা পরিচালিত বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপ পর্যবেক্ষণ করে তারা কয়েকজন ব্লগারের নাম পেয়েছেন৷ তাঁদের উপর হামলার সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা করা হচ্ছে৷ এ জন্য প্রয়োজনীয় প্রস্তুতিও নিচ্ছে তারা৷

DW Bengali Arafatul Islam

আরাফাতুল ইসলাম, ডয়চে ভেলে

তিনি বলেন, ‘‘আধুনিক প্রযুক্তি এবং ধরা পড়া জঙ্গিদের ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে জঙ্গি তৎপরতা সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন তথ্য বের করা সম্ভব হচ্ছে৷ হত্যার মূল পরিকল্পনাকারীরা শিক্ষিত এবং পর্যাপ্ত তথ্যের অভাবে তাদের ঠিকভাবে ধরা যাচ্ছে না৷''

ডয়চে ভেলের সঙ্গে আলাপকালে জোহা একজন ব্লগারের নাম উল্লেখ করেছেন যার বাড়তি নিরাপত্তা প্রয়োজন৷ তিনি বলেন, ‘‘গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার যদিও সঙ্গে লোকজন নিয়ে চলাফেরা করেন, আমার মনে হয় তার নিরাপত্তা আরো বাড়ানো উচিত৷ আমি গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে এ ব্যাপারে কথা বলেছি৷''

উল্লেখ্য, গত বছর বাংলাদেশে চার মুক্তমনা ব্লগার এবং এক প্রকাশককে কুপিয়ে হত্যা করে উগ্রপন্থিরা৷ চলতি মাসে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস এবং বইমেলাকে কেন্দ্র করে ব্লগারদের উপর আরো হামলার আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

ব্লগারদের রক্ষায় কী করা যেতে পারে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়