1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

যুক্তরাষ্ট্র

ভার্জিনিয়ায় শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের ব়্যালিতে সংঘর্ষ, প্রাণহানি

ভার্জিনিয়ার শার্লটসভিল শহরে এক ব়্যালিতে গাড়ি ঢুকে পড়ায় কমপক্ষে একব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছেন৷ এর আগে শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদী এবং তাদের বিরোধী প্রতিবাদকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধলে সেখানে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়৷

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শার্লটসভিলে সহিংস সংঘর্ষের ঘটনায় তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প৷ বর্তমানে নিউ জার্সিতে নিজের গল্ফ ক্লাবে ‘ওয়ার্কিং হলিডে' কাটানো ট্রাম্প জানিয়েছেন, তিনি পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করছেন৷ সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘এটা অনেক পক্ষ থেকে ঘৃণা, গোঁড়ামি এবং সহিংসতার গুরুতর প্রদর্শনী৷''

‘‘আমাদের দেশে এখন অনেক অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটছে৷ তাই যখন আমি শার্লটসভিলকে দেখি, তখন আমার খুব খারাপ লাগে'', যোগ করেন ট্রাম্প৷ মার্কিন প্রেসিডেন্ট সাধারণ মানুষকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন যে, ‘‘তাদের মনে রাখতে হবে যে তারা সবাই সবার আগে অ্যামেরিকান৷''

এদিকে, শার্লটসভিলের ঘটনার নিন্দা জানাতে গিয়ে সবপক্ষকে দোষারপ করায় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় উঠেছে৷ বিরোধী দলের পাশাপাশি তাঁর নিজের দলের সদস্যরাও তাঁর বক্তব্যের নিন্দা জানিয়েছেন৷ মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্র্যাট দলের সদস্য এডাম শিফ বলেছেন, ‘‘ট্রাম্পের উচিত শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যের বিষাক্ত পুনরুত্থানের বিরুদ্ধে কথা বলা৷ এখানে ‘অনেক পক্ষ' বলে কিছু নেই, আছে শুধু ঠিক এবং ভুল৷''
রিপাবলিকান দলের সদস্য করি গার্ডনার টুইটারে লিখেছেন, ‘‘ট্রাম্পের উচিত শয়তানদের তাদের নাম ধরে ডাকা৷ তারা ছিল শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী এবং ওটা ছিল অভ্যন্তরীণ সন্ত্রাসবাদের ঘটনা৷'' 

ভার্জিনিয়ার মেয়র টেরি ম্যাকঅলিফ শনিবারের সহিংসতার নিন্দা জানিয়ে প্রতিবাদকারীদের ঘরে ফিরে যেতে আহ্বান জানিয়েছেন৷ তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘‘যেসব শ্বেতাঙ্গ আধিপত্যবাদী এবং এবং নাৎসি আজকে শার্লটসভিলে এসেছেন, তাদের জন্য আমার একটি বার্তা রয়েছে৷ দয়া করে ঘরে ফিরে যান এবং কখনো ফিরে আসবেন না৷ আপনার ঘৃণা এবং গোঁড়ামি সঙ্গে নিয়ে যান৷ এ সবের এখানে কোনো জায়গা নেই৷''

প্রসঙ্গত, শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া প্রতিবাদকারীদের মিছিলের মধ্যে গাড়ি চালিয়ে দেয়ার ঘটনায় কমপক্ষে এক ব্যক্তি নিহত এবং ১৯ জন আহত হন৷ ভিডিও ফুটেজে দেখা যায়, গাড়ির আশেপাশ থেকে মানুষ ছিটকে যাচ্ছেন৷ একজনকে দু'টি গাড়ির মধ্যে আটকে যেতেও দেখা গেছে৷ পুলিশ ইতোমধ্যে গাড়িটির সম্ভাব্য চালককে গ্রেপ্তার করেছে৷ এছাড়া, এই ঘটনার কয়েক ঘণ্টা পর, পুলিশের একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে দুই পুলিশ সদস্য প্রাণ হারিয়েছেন৷ হেলিকপ্টারটি শার্লটসভিলের ঘটনা পর্যবেক্ষণ করছিল৷

উল্লেখ্য, শার্লটসভিলের একটি পাবলিক পার্ক থেকে ‘কনফেডারেট' জেনারেল রিবার্ট ই. লি-র ভাস্কর্য সরিয়ে নেওয়া নিয়ে শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদী এবং সাধারণ প্রতিবাদকারীদের মধ্যে সংঘাতের সূত্রপাত ঘটে৷ জাতীয়তবাদীরা মনে করেন, ভাস্কর্যটি সে অঞ্চলের ঐতিহ্যের প্রতীক৷ তবে বিরোধীরা বলছেন, ভাস্কর্যটি স্পষ্টতই বর্ণবাদী দাসত্বের প্রতীক৷ কেননা, লি দাসপ্রথা ধরে রাখতে যুদ্ধ করেছিলেন৷

এআই/ডিজি (এএফপি, রয়টার্স, এপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন