1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারত-পাকিস্তান স্বরাষ্ট্র সচিব পর্যায়ে বৈঠক

ভারত-পাকিস্তান স্বরাষ্ট্র সচিব পর্যায়ের বৈঠক আজ শুরু হয়েছে নতুন দিল্লিতে৷ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সেমিফাইনালে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ দেখতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর ভারতে আসা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে এক ইতিবাচক সঙ্কেত৷

default

ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং-এর সঙ্গে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইউসুফ রাজা গিলানি

ভারত ও পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিবদের দুদিনের বৈঠক শুরু হয় ইতিবাচক সুরে৷ পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্র সচিব চৌধুরী কামার জামানের সঙ্গে এসেছেন ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল৷ আলোচনা হয় ব্যাপক ইস্যু নিয়ে, যার শীর্ষে ছিল সন্ত্রাস মোকাবিলার ক্ষেত্রে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা৷ ভারতের স্বরাষ্ট্র সচিব জি.কে পিল্লাই সেই সূত্রে সন্ত্রাসী কাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ৪০ জন পাকিস্তানি সন্দেহভাজনের নামের তালিকা দেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রসচিবকে৷ ২৬/১১-এর মুম্বই সন্ত্রাসী কাণ্ডের তদন্তে কতটা অগ্রগতি হয়েছে তার রিপোর্ট চান৷ অন্যদিকে পাকিস্তান সমঝোতা এক্সপ্রেস বিস্ফোরণ কান্ডে অগ্রগতির রিপোর্ট চায়৷ অন্যান্য ইস্যুগুলির মধ্যে ছিল ভিসা নিয়মবিধি উদার করা, মাদক পাচার রোধ, ভারতে জাল নোট আসা রোধ ইত্যাদি৷ আজকের আলোচনা শেষে ভারতের স্বরাষ্ট্রসচিব জি.কে পিল্লাই বলেন, আলোচনা ইতিবাচক পথেই এগোচ্ছে৷ আগামীকাল যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করা হবে৷

অন্যদিকে, আগামী বুধবার পাঞ্জাবের মোহালিতে বিশ্বকাপ ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান সেমিফাইনাল ম্যাচ দেখতে আসার জন্য প্রধানমন্ত্রী ড.মনমোহন সিং-এর আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী সৈয়দ ইউসুফ রাজা গিলানি দুদিনের সফরে আসছেন ভারতে৷ চৌধুরী জামানের মন্তব্য, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর এই সদিচ্ছার মনোভাবে গোটা পাকিস্তান প্রশংসায় পঞ্চমুখ৷ ম্যাচ দেখার আগেই হয়ত উভয় প্রধানমন্ত্রী বসবেন আলোচনায়৷ ভুটানের রাজধানী থিম্পুতে সার্ক সম্মেলনের ৯ মাস পর এই ক্রিকেট কূটনীতি অবশ্যই ছায়া ফেলবে স্বরাষ্ট্রসচিব পর্যায়ের আলোচনায়৷ কাশ্মীরের পিডিপি নেত্রী মেহবুবা মুফতি মনে করেন, দুদেশের শীর্ষ নেতৃত্বের এই রাজনৈতিক বিচক্ষণতা প্রতিবেশী দুই দেশের মধ্যে শান্তি ও সমঝোতার দিকে দৃঢ় পদক্ষেপ বলে গণ্য হবে৷

মুম্বই হামলার পর দুদেশের সম্পর্কের বরফ কী গলবে ? পর্যবেক্ষকদের মতে,এই বৈঠকে বড় কিছু হবার আশা না থাকলেও যাবতীয় বকেয়া ইস্যু নিয়ে সার্বিক সংলাপের বন্ধ দুয়ার হয়ত খুলতে পারে৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়,নতুন দিল্লি

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন