1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারত-নিয়ন্ত্রিত অশান্ত কাশ্মীরে সহিংসতা অব্যাহত

শ্রীনগরসহ কাশ্মীরের বিভিন্ন শহরে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়েছে৷ নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে নিহত হয়েছে এক পুলিশ৷ আর পরিস্থিতির সমাধানসূত্র নিয়ে দিল্লিতে বসেছে নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটির বৈঠক৷

default

সহিংস বিক্ষোভের জের আজও অব্যাহত কাশ্মীর উপত্যকায়

কাশ্মীরের উত্তপ্ত পরিস্থিতির মোকাবিলায় নতুনদিল্লিতে নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটির বৈঠকে শান্তি প্যাকেজ নিয়ে আলোচনা হয়েছে৷ এর মধ্যে রয়েছে উপত্যকা থেকে সামরিক বাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা আইন আংশিক প্রত্যাহার৷ সোমবার বৈঠকটির সভাপতিত্ব করেছেন প্রধানমন্ত্রী ড: মনমোহন সিং৷

শনিবারের সহিংস বিক্ষোভের জের আজও কাশ্মীর উপত্যকায় অব্যাহত৷ উপত্যকায় অনির্দিষ্টকালের কারফিউ৷ নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে শ্রীনগরসহ রাজ্যের অন্যত্র নিহত চার এবং আহত প্রায় জনা চল্লিশ৷ অ্যামেরিকায় কোরআন পোড়ানোর এক উড়ো খবর পরিস্থিতিকে করে তোলে আরো উত্তপ্ত৷ শ্রীনগরের অদূরে একটি খৃশ্চান স্কুল পুড়িয়ে দেয় বিক্ষুব্ধ মুসলিম আন্দোলনকারিরা৷

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা সোমবার নতুনদিল্লিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি. চিদাম্বরমের সঙ্গে পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করেন৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা শিবশঙ্কর মেনন ও স্বরাষ্ট্রসচিব জি.কে পিল্লাই৷ কাশ্মীরের বর্তমান অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে শান্তি প্যাকেজের রুপরেখা নিয়ে মত বিনিময় হয়৷ পরে মুখ্যমন্ত্রী মিলিত হন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে৷

Kaschmir Auschreitungen Gewalt Proteste Militär

‘‘কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছোতে চাই আমরা’’ : ড: মনমোহন সিং

প্রধানমন্ত্রী ড: মনমোহন সিং বলেন, ‘‘কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছোতে চাই আমরা৷ আলোচনা করতে চাই সংবিধানের কাঠামোর মধ্যে সবার সঙ্গে, সব গোষ্ঠির সঙ্গে৷ যাঁরা সহিংসতা বর্জন করবে৷'' নতুনদিল্লিতে প্রতিরক্ষা বাহিনীর শীর্ষ কমান্ডারদের সম্মেলনে ড: সিং বলেন, কাশ্মীরিরা দেশের নাগরিক৷ তাই তাদের অভাব অভিযোগের প্রতিকার অবশ্যই করতে হবে৷

এদিকে, বিরোধি দল বিজেপি'র অভিযোগ, কাশ্মীর পরিস্থিতির মোকাবিলায় কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার চরম ব্যর্থ৷ সরকার দিশাহীনতায় ভুগছে৷ বিজেপি'র মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লার পদত্যাগের দাবি জানানো হয়েছে৷ এক বিবৃতিতে বিজেপি বলেছে, এখন তোষামোদের সময় নয়, নিতে হবে কড়া পদক্ষেপ৷ কাশ্মীর থেকে সামরিক বাহিনীর বিশেষ ক্ষমতা আইন তুলে নেওয়া ভুল হবে৷

কাশ্মীর বিশ্লেষকরা মনে করেন, আন্দোলন যেদিকে মোড় নিচ্ছে তাতে মনে হয় প্রতিষ্ঠিত নেতাদের হাত থেকে নেতৃত্ব চলে গেছে তরুণ প্রজন্মের হাতে৷ যাঁরা এখনও নেতৃত্ব দেবার যোগ্যতা অর্জন করেনি৷ তাই সরকারের উচিৎ উপত্যকার তৃণমূল স্তর থেকে আলোচনা শুরু করা৷ আগামি মাসে কমনওয়েলথ গেমস৷ আর তার পরের মাসে আসছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা৷ বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণের এটাই উপযুক্ত সময়৷ তাই কাশ্মীর আন্দোলনকারিরা সেটাকে স্বাভাবিকভাবেই কাজে লাগাতে চাইবে৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ