1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ভারতে শিশুশ্রম: যেন এক অভিশাপ

অত্যন্ত দুর্ভাগ্যের বিষয়, বিশ্বের মধ্যে ভারতেই শিশু শ্রমিকের সংখ্যা সবথেকে বেশি৷ আদমশুমারি অনুযায়ী, ভারতে শিশু শ্রমিকের সংখ্যা ৬ কোটি থেকে ১২ কোটি৷ তবে প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে বেশি, যেটা লোকচক্ষুর বাইরে থেকে যায়৷

৭ থেকে ১৪ বছরের বালক-বালিকারা সাধারণত শিশু শ্রমিকের মধ্যে পড়ে৷ সমাজ বিজ্ঞানীদের মতে, দারিদ্র্য ও সামাজিক সুরক্ষার অভাবই শিশু শ্রমের অন্যতম কারণ৷ উন্নত দেশগুলিতে যে সামাজিক সুরক্ষার ব্যবস্থা আছে, ভারতের মতো দেশগুলিতে তার বিন্দু বিসর্গ নেই৷ ধনী দরিদ্রের মধ্যে ব্যবধান ক্রমশ বাড়ছে, উদার অর্থনীতির কারণে বেসরকারীকরণ হয়েছে লাগাম ছাড়া, সমাজের একটা বড় অংশ হয়ে পড়েছে বেকার, যার কোপ গিয়ে পড়ছে সমাজের শিশু জীবনে৷ সর্বজনীন শিক্ষা বা বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষার সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত গরিব পরিবারের অভিভাবকরা তখন বাধ্য হয়ে অন্ন সংস্থানের তাগিদে নাবালক নাবালিকাদের পাঠায় কাজ করতে৷

বিপজ্জনক কাজে শিশু শ্রম নিষিদ্ধ করে সম্প্রতি এক বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে শ্রম মন্ত্রণালয়৷ বিপজ্জনক কাজ বলতে বলা হয়েছে ঘরের ঝি চাকরের কাজ, রাস্তার ধারের খাবার দোকান, স্থানীয় ভাষায় যাকে বলা ধাবা, চায়ের দোকান, রেস্তোরাঁর কাজ, পাথর ভাঙার কাজ এবং মোটর গ্যারেজের কাজ৷

Kinderarbeit in Delhi (Indien)

‘দারিদ্র্য ও সামাজিক সুরক্ষার অভাবই শিশু শ্রমের অন্যতম কারণ’

এইসব কাজে না আছে কাজের নির্দিষ্ট সময়, না আছে উপযুক্ত মজুরি৷ রোজ ১০ থেকে ১৫ ঘণ্টা কাজের বিনিময়ে মজুরি পায় নগণ্য৷ চরম শোষন চলে এইসব শিশু শ্রমিকদের ওপর৷ ঘর গৃহস্থালির কাজে নাবালিকাদের হামেশাই যৌন শোষণ এবং অন্যান্য নির্যাতনের শিকার হতে হয়৷ এমন কি পেট ভরে খেতে পর্যন্ত দেয়া হয় না৷ দিল্লিতেই কাজের মেয়েদের ওপর নির্যাতনের একাধিক করুণ ঘটনা সংবাদমাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে৷ যেমন এক সরকারি আমলা কাজের নাবালিকাকে ঘরে বন্ধ করে বেড়াতে চলে গেছে৷ জনৈক সাংসদ ও বিধায়কের স্ত্রী কাজের মেয়ের গায়ে গরম খুন্তি দিয়ে পুড়িয়ে দেয় কথা না শোনার কথিত অপরাধে৷ এই নিয়ে পুলিশ ‘কেস' করে কিছু স্বেচ্ছাসেবি সংস্থা৷ তাই মনে হয় সরকার আইন করেই খালাস৷ তার সঠিক বাস্তবায়ন নিয়ে কারো যেন মাথাব্যথা নেই৷

দেখা গেছে শিশু শ্রমিকের বেশির ভাগ আসে তপশিলি জাতি-উপজাতি, অন্যান্য অনগ্রসর জাতি এবং দলিত সম্প্রদায় থেকে৷

Kinderarbeit in Delhi (Indien)

ভারতে শিশু শ্রমিকদের বেশির ভাগ আসে তপশিলি জাতি-উপজাতি, অন্যান্য অনগ্রসর জাতি এবং দলিত সম্প্রদায় থেকে

এছাড়া একটা অংশ আসে বাস্তুহারা পরিবার থেকে উন্নয়নের কাজে যাঁদের ভিটে-মাটি হারাতে হয়৷ কিংবা সংঘর্ষ পীড়িত এলাকা থেকে৷ এছাডাও আরো একটা মর্মান্তিক দিক আছে শিশু শ্রমিকদের৷ সেটা হলো বেগার শিশু শ্রমিক প্রথা৷ শিশুর অভিভাবক হয়ত মহাজনের কাছ থেকে ঋণ নিয়েছে এই শর্তে যে, কাজ করে তা শোধ করে দেবে৷ সেটাতেও যুক্ত করা হয় শিশুদের বিশেষ করে চাষাবাদের কাজে কিংবা ইঁটভাটা বা পাথর ভাঙার কাজে৷ ভারতে শিশু শ্রমের সম্পূর্ণ বিলোপসাধনের জন্য সবথেকে যেটা দরকার, সেটা হলো রাজনৈতিক সদিচ্ছা আর দারিদ্র্য দূরীকরণ৷ দারিদ্র্যের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে শিশু শ্রম৷ নিয়োগকর্তারা কম মজুরিতে শিশুদের খাটায় অনেক গুণ বেশি৷ আর দরকার বাধ্যতামূলক সর্বজনিন শিক্ষা ব্যবস্থা

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়