1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ভারতে ক্রিকেট বেটিং’কে আইনগত বৈধতা দিতে বললেন লর্গাট

যদিও বলা হয় বেটিং গেম ক্রিকেট৷ কিন্তু এ তো আর ঘোড়ার রেস নয়, কিংবা নয় লটারি, এ যে ক্রিকেট! এই খেলায় বাজি ধরাটা বেআইনি৷ কিন্তু তারপরেও কী থেমে আছে বেটারদের দৌরাত্ম্য?

ভারত, আন্তর্জাতিক, ক্রিকেট, কাউন্সিল, আইসিসি, প্রেসিডেন্ট, হারুন, লর্গাট, International, Cricket, Council, Chief, Executive, Haroon, Lorgat, cricket, London, ICC organization reacted as quickly as

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসির প্রেসিডেন্ট হারুন লর্গাট

বিশ্বের যে প্রান্তেই খেলা হোক না কেন, বেটিং গেম ক্রিকেটের কলকাঠি নড়ানোর রথী-মহারথীরা থাকেন প্রচণ্ড ব্যস্ত৷ হাল আমলে হাইটেকের মাধ্যমেও চলছে বাজি ধরা৷ বলা হয়, খেলা শুরু হবার আগে থেকেই বুকিরা বসে থাকে কোটি কোটি টাকা নিয়ে৷ ‘ফেল কড়ি, মাখ তেল, বদলে দাও খেলার ফলাফল' – এ কথা হয়তো তাদের জন্যই প্রযোজ্য!

সে যাই হোক এবার ক্রিকেটের শীর্ষ সংগঠন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসির প্রেসিডেন্ট হারুন লর্গাট বলেছেন আর নয়৷ আসছে বিশ্বকাপকে মুক্ত রাখতে হবে জুয়ার ছোবল থেকে৷

অন্যদিকে, ভারতে বেটারদের দৌরাত্ম্য থামাতে নতুন এক ফর্মুলা ছড়িয়ে দিলেন তিনি৷ বললেন, ভারতের উচিত হবে ঘোড়দৌড় কিংবা ক্যাসিনোর মতো ক্রিকেটের জুয়াকে আইন করে বৈধতা দেয়া৷ কেবল ক্রিকেট নয়, সব খেলা নিয়েই হতে পারে বৈধ জুয়া খেলা, মত তাঁর৷

অবশ্য যুক্তিও আছে তাঁর৷ বলছেন, এমনিতে প্রতি বছর কোটি কোটি টাকা অবৈধভাবে ক্রিকেটের জুয়াতে লগ্নি হচ্ছে৷ যদি আইন করে বৈধতা দেয়া হয়, তাহলে এই খাত থেকে প্রচুর অর্থ আসতে পারে৷ আইনগতভাবে বৈধ বলে এ নিয়ে অন্য অপরাধ ঘটনাবার সুযোগও যাবে কমে! তিনি জানিয়েছেন, আইসিসি নিজস্ব গোয়েন্দা লাগিয়ে বেট ধরা বিষয়ে একটি প্রতিবেদনও ইতিমধ্যে চূড়ান্ত করেছে৷ যেখানে ক্রিকেট জুয়াড়ি এবং জুয়ার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে রয়েছে নানা তথ্য৷

বলা হয়, কেবল ভারত পাকিস্তানের ক্রিকেট খেলার সময় মুম্বইকে কেন্দ্র করে প্রায় ২০ মিলিয়ন ডলারের বেট ধরে জুয়াড়িরা৷ আসন্ন বিশ্বকাপ ক্রিকেটকে কেন্দ্র করে বেটাররা যে জুয়ার নতুন কলা-কৌশল নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে, তা কী আর বলার অপেক্ষা রাখে! আইসিসির কাছে এ নিয়ে রয়েছে বেশ কিছু তথ্য৷ আর এ নিয়ে তারা সর্তকও করছে তিন আয়োজক দেশের নিরাপত্তা বাহিনীকে৷ কাজ করে যাচ্ছে আইসিসির নিজস্ব ইউনিটও৷

খেলোয়াড়দের জুয়া স্পর্শ করবে না বলেই আশাবাদী আইসিসির প্রেসিডেন্ট হারুন লর্গাট ৷ তিনি বলেন, বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই সৎ৷ আর সততার কাছে অসৎ সব সময়ই পরাজিত হয়- বললেন তিনি৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক