1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারতে কংগ্রেস-জোট সরকারের কাজকর্মের খতিয়ান

মনমোহন সিং-এর নেতৃত্বে গত চার বছরে কংগ্রেস-জোট সরকারের কাজকর্মের সাফল্যের খতিয়ানের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে দেখা দিয়েছে সংকট৷ প্রশ্ন উঠেছে, আমজনতা উন্নয়ন কর্মসূচির সাফল্যের কতটা সুফল পেয়েছে৷

Indians participate in a candlelight vigil protesting against a leader of the ruling Congress party on accusations he raped a woman in a village in the early hours of the morning, in Gauhati, India, Friday, Jan. 4, 2013. Footage on Indian television showed the extraordinary scene of local women surrounding Bikram Singh Brahma, ripping off his shirt and repeatedly slapping him across the face. A Dec. 16 gang rape on a woman, who later died of her injuries, has caused outrage across India, sparking protests and demands for tough new rape laws, better police protection for women and a sustained campaign to change society's views about women. (AP Photo/Anupam Nath)

Indien Vergewaltigung Mord Frau Protest Demonstration Banner Kerzen Bikram Singh Brahma

মনমোহন সিং-এর নেতৃত্বে দ্বিতীয় কংগ্রেস-জোট সরকারের চার বছর পূর্ণ হলো৷ আগামী বছরে সাধারণ নির্বাচনের আগে এটাই সরকারের শেষ রিপোর্ট কার্ড৷ সরকারের বিগত বছরগুলি গেছে এক টালমাটাল সময়ের মধ্য দিয়ে৷ একের পর এক দুর্নীতিতে সরকার জর্জরিত৷ জনমানসে একটা নেতিবাচক ভাবমূর্তি৷ সরকারের কথিত ব্যর্থতাকে হাতিয়ার করে সরকারকে বিদ্ধ করতে কসুর করেনি বিরোধী দলগুলি সংসদের ভেতরে ও বাইরে৷

বিরোধীদের আক্রমণকে ভোঁতা করতে বুধবার প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং তথ্য ও পরিসংখ্যান দিয়ে দেশের সামনে তুলে ধরলেন সরকারের কাজকর্মের সাফল্যের খতিয়ান৷ যেমন, দুর্নীতি রোধে বিভিন্ন সামাজিক প্রকল্পে ভরতুকির টাকা নগদে সরাসরি হস্তান্তর করা, ১০০ দিনের কাজ সুনিশ্চিত করা, মুদ্রাস্ফীতি চলতি বছরে হয়েছে নিম্নমুখী৷

প্রধানমন্ত্রী ফিরিস্তি অনুযায়ী, মহাত্মা গান্ধী জাতীয় গ্রামীণ কর্মসংস্থান গ্যারান্টি স্কিমে প্রায় পাঁচ কোটি পরিবারের কর্মসংস্থান হয়েছে৷ মিড-ডে মিল স্কিমে ১২ লাখ প্রাথমিক স্কুলের ১০ লাখ পড়ুয়া খাবার পাচ্ছে৷ গত ৯ বছরে দেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে পাঁচ বছর৷ জননী শিশু সুরক্ষা প্রকল্পে উপকৃত হয়েছেন ১ কোটি ২০ লাখ গর্ভবতী মহিলা৷ আনা হয়েছে দুর্নীতি বিরোধী লোকপাল আইন, লোকায়ুক্ত আইন, সংসদে পেশ করা হয়েছে খাদ্যসুরক্ষা বিল ও জমি অধিগ্রহণ বিল৷ মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধ দমনে বলবৎ করা হয়েছে সংশোধিত ফৌজদারি বিধি৷

সাফল্যের দাবি নস্যাৎ করে বিরোধী দল বিজেপি মনে করে, মনমোহন সিং প্রধানমন্ত্রী হতে পারেন, আসলে তিনি না সরকারের নেতা, না দলের নেতা৷ মন্ত্রিসভার সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সমস্যা নিয়ে আলোচনা করেন, কিন্তু সমাধানের জন্য তাকিয়ে থাকেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর দিকে৷ কংগ্রেস-জোট সরকার বিভাজিত৷ জোট সরকারের জন্য দরকার শক্তিশালী নেতা৷ অন্যদিকে নানা কেলেঙ্কারিতে সরকার জেরবার৷ মুদ্রাস্ফীতি আকাশছোঁয়া৷ বিনিয়োগ বাড়েনি৷ আর্থিক সংস্কার স্রেফ নামেই, কাজে কিছু হয়নি৷ পররাষ্ট্র নীতি দুর্বল৷ তৃণমূল কংগ্রেস এবং ডিএমকে-র মতো শরিকদলগুলি জোট ছেড়ে বেরিয়ে গেছে৷ সরকার কার্যত হয়ে পড়েছে সংখ্যালঘু৷

ছোট এবং আঞ্চলিক দলগুলিকে নিয়ে তৃতীয় ফ্রন্ট গঠন করে নির্বাচনে নামার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়ে বিজেপি মনে করে, তৃতীয় ফ্রন্টের কোনো অস্তিত্ব নেই৷ উল্লেখ্য, সমাজবাদী পার্টির নেতা মুলায়েম সিং-এর তৃতীয় ফ্রন্ট গড়ার চেষ্টা আপাতত ভেস্তে গেছে৷

সম্প্রতি এক জনমত সমীক্ষায় বলা হয়েছে, বর্তমানে একটা প্রতিষ্ঠান বিরোধী হাওয়া বইছে৷ ৯ বছর ক্ষমতায় থাকার পর কংগ্রেস জোট সরকারের পায়ের নীচের মাটি ক্রমশই আলগা হয়ে আসছে৷ কয়েক মাসের মধ্যে যদি ভোট হয়, তাহলে কংগ্রেসের ঝুলিতে যাবে গতবারের চেয়ে অনেক কম আসন৷ গত নির্বাচনে তারা পেয়েছিল ২০৬টি আসন৷

Indian Prime Minister Manmohan Singh, blue turban, talks to Congress party president Sonia Gandhi, at a function to mark the completion of three years of the government in New Delhi, India, Tuesday, May 22, 2012. (Foto:Manish Swarup/AP/dapd)

ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এর সঙ্গে কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী

বিজেপিও খুব একটা সুবিধাজনক অবস্থায় নেই৷ একা সরকার গড়া তো দূরের কথা – শরিক দল জোটাতেও মুশকিল হবে, যদি মোদীকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তুলে ধরা হয়৷ ২০০৪ সালের বিজেপি-জোটের শরিক দলগুলি বেঁকে বসতে পারে৷ যেমন জেডি (ইউ) নেতা নীতিশ কুমার৷ সমীক্ষা অনুযায়ী, আঞ্চলিক দলগুলি এবং নির্দল প্রার্থীরা আগামী সংসদীয় ভোটে বড় ভূমিকা নিতে পারে৷

একথা ঠিক, সমীক্ষার ফলাফল সবসময় সঠিক হয়না৷ তবে সমীক্ষার একটা বিশ্বাসযোগ্যতা থাকে৷ হালের কর্ণাটক বিধানসভা ভোটের সমীক্ষার ফলাফল মিলে গিয়েছিল৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন