1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারতের পরীক্ষা সংক্রান্ত যে ভিডিওটি ভাইরাল

বাংলাদেশে জিপিএ-ফাইভ পাওয়া শিক্ষার্থীদের প্রতিবেদন নিয়ে হইচই হওয়ার পর দেশের পরীক্ষা পদ্ধতি নিয়ে উঠেছিল প্রশ্ন৷ আর বিহারের একটি প্রতিবেদন এতটাই ভাইরাল হয়েছে যে, ঐ রাজ্যের প্রথম স্থান অধিকারীকে হাজত বাস করতে হচ্ছে৷

বিহারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় প্রথম হয়ে প্রথমবার এসেছিলেন খবরে৷ আর গত কয়েকদিনে তাকে নিয়ে হইচই গণমাধ্যম থেকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম – সবখানে৷ তিনি রুবি রাই৷ উচ্চমাধ্যমিকে ‘প্রথম স্থানাধিকারী' এই তরুণী আসলে যে প্রথম স্থানাধিকারী নন, তা ফাঁস হতে খুব একটা সময় লাগেনি৷ শুধু রুবি নয়, রাজ্যের ১৪ জন শীর্ষস্থান অধিকারী শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে উঠেছে অভিযোগ৷

‘টাইমস নাও' নামে ভারতের একটি চ্যানেল রুবি ও দ্বিতীয় স্থান অধিকারী শিক্ষার্থীকে তাদের পাঠ্য বই থেকেই সাধারণ কিছু প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করে যেগুলোর উত্তর তারা দিতে পারেনি৷ ‘পলিটিক্যাল সাইন্স' বা রাষ্ট্রবিজ্ঞান মানে জিজ্ঞেস করলে রুবি বলেন, যেখানে রান্না করা শেখানো হয়৷

এই প্রতিবেদনের ভিডিওটি ভাইরাল হলে গত শনিবার রুবি রাইয়ের আবারো পরীক্ষা নেন একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি৷ এছাড়া আরও ১৩ জন শিক্ষার্থীর পরীক্ষা নেয়া হয়, যেখানে কেউই সঠিক উত্তর দিতে পারেনি৷ এরপরই রুবি রাইকে জেলহাজতে পাঠানো হয়৷

১৪ জন শিক্ষার্থীকে যে প্রশ্নগুলো করা হয়েছিল, তা ছেপেছে আনন্দবাজার পত্রিকা৷

ভারতের মানচিত্রে তার নিজের রাজ্য বিহারের অবস্থান জানতে চাওয়ায় রুবি কী জবাব দিয়েছেন — তা নিয়ে চলছে হাসাহাসি, কটাক্ষ, রসিকতা৷ অপরাধ করলে শাস্তি যে প্রাপ্য, তা নিয়ে নিশ্চয়ই কোনো সংশয় নেই৷ বিপুল অর্থের বিনিময়ে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মেধাতালিকার প্রথম স্থান বা অন্য যে কোনো গৌরবজনক স্থান কিনে নেওয়ার চেষ্টা যে অপরাধ, তা নিয়েও কোনো দ্বিমত থাকা উচিত নয়৷ কিন্তু প্রশ্ন উঠেছে মূল অপরাধী আসলে কে?

অভিভাবক থেকে বিশেষজ্ঞরা সবাই বলছেন যাঁরা বিপুল ঘুস নিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের মেধাতালিকা বিক্রি করলেন, শিক্ষাব্যবস্থা সামলানোর দায়িত্ব যাঁদের কাঁধে, দেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে গড়ে তোলার দায়িত্ব যাঁদের হাতে, তাঁদের কি বিচার হওয়া উচিত নয়?

তাঁরা বলছেন, গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাটাই এখন প্রশ্নের মুখে৷ তাই রাঘববোয়ালদের বের করে তাদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তাঁরা৷ বলছেন, এ লজ্জা কেবল রুবি রাইয়ের নয়, এ লজ্জা ভারতের!

বন্ধুরা, প্রশ্নপত্র ‘লিক’ হওয়া বা পরীক্ষায় টোকাটুকি হওয়ার পিছনে প্রধান দায় কার? জানান নীচের ঘরে৷

এপিবি/ডিজি

নির্বাচিত প্রতিবেদন