1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারতের নাগরিকত্ব ত্যাগ করলেন মকবুল ফিদা হুসেন

হিন্দু দেব-দেবীর নগ্ন ছবি আঁকার জন্য ভারতে যথেষ্ট বিতর্কের পাত্র হয়ে উঠেছিলেন কিংবদন্তি চিত্রশিল্পী মকবুল ফিদা হুসেন৷ আর সে কারণেই মধ্যপ্রাচ্যে বসবাস করছিলেন ভারতের এই ‘পিকাসো’৷

default

আদি গোদরেজ-এর সঙ্গে চিত্রশিল্পী মকবুল ফিদা হুসেন

সম্প্রতি কাতারের নাগরিকত্ব গ্রহণের পর, সোমবার দোহায় নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসে তাঁর পাসপোর্ট হস্তান্তর করেন ভারতের ৯৫ বছর বয়স্ক এই স্বনামধন্য চিত্রশিল্পী৷ কাতারের ইংরেজি দৈনিক গাল্ফ টাইমসের উদ্ধৃতি দিয়ে ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে এ তথ্য৷

হুসেনের অনেক চিত্রকর্ম ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে বলে একসময় আপত্তি জানায় ভারতের হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা৷ শুধু তাই নয়, পুরাকাহিনি অবলম্বনে হিন্দু দেব-দেবীদের ছবি আঁকার দায়ে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা মকবুল ফিদা হুসেনকে হত্যাও হুমকি দেয়৷ এছাড়া, ১ কোটি ১৫ লক্ষ ডলার পুরস্কারও ঘোষণা করে তারা৷ পরবর্তীতে, অর্থাৎ ১৯৯০-এর দশক থেকে ফিদা হুসেনের বিরুদ্ধে শিবসেনা ও আরএসএস-এর সংগ্রাম শুরু হয়৷ ভারতের বিভিন্ন আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা হয় প্রায় ৯০০ অভিযোগ৷ তাই ২০০৬ সালে নিজের আপত্তিকর চিত্রকর্মের জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা প্রার্থনা করলেও, তখন থেকেই স্বেচ্ছা নির্বাসিত জীবন কাটাচ্ছিলেন মকবুল৷ এমনকি নিরাপত্তার অভাবে, সে সব মামলা মোকাবিলা করতে ভারতে যেতেও পারেননি তিনি৷

সোমবার ফিদা হুসেনের ছেলে ওয়াইজ হুসেন বলেন যে, তাঁর পিতা এখন আর ভারতের নাগরিক নন৷ দোহায় নিযুক্ত ভারতীয় দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা বলেন, ভারতের আইনে দ্বৈত নাগরিকত্ব নিষিদ্ধ থাকার কারণে তাঁর ভারতীয় পাসপোর্ট হস্তান্তর করেছেন প্রখ্যাত এই চিত্রকর৷ এ অবস্থায় দ্বৈত নাগরিকত্বের অধিকারী ব্যক্তির ভারতীয় পাসপোর্ট ফেরত দেওয়া বাধ্যতামূলক৷ বাবা তাই করেছেন৷ এর বেশি কিছু নয়৷ জানান মকবুল ফিদা হুসেনের পুত্র ওয়াইজ হুসেন৷

উল্লেখ্য, মকবুল ফিদা হুসেনের জন্ম ১৯১৫ সালে ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে৷ তিনি কোনরকম প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা ছাড়াই ছবি আঁকা শিখেছিলেন বিখ্যাত এই চিত্রশিল্পী৷

প্রতিবেদক : দেবারতি গুহ

সম্পাদনা : সাগর সরওয়ার

সংশ্লিষ্ট বিষয়