1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ভারতীয় বিমানবাহিনী দিবসে ভারত-রুশ প্রতিরক্ষা চুক্তি

ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৭৮-তম বার্ষিকী অনুষ্ঠানে বিমানবাহিনীর প্রধান এয়ারচিফ মার্শাল পি.ভি নায়েক প্রতিবেশী অঞ্চলের পরিস্থিতিকে তুলনা করেন এক জীবন্ত আগ্নেয়গিরির সঙ্গে৷ তাই প্রস্তুতি ও সতর্কতাই এখন বিমান বাহিনীর মূলমন্ত্র৷

default

ভারতীয় বিমানবাহিনী যে কোনো পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকতে চায়

দিল্লির উপকণ্ঠে গাজিয়াবাদের হিন্ডন বিমানঘাঁটিতে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ৭৮-তম বার্ষিকী পালিত হয় বিমান কসরৎ, এয়ারশো, কুচকাওয়াজ ও দক্ষতার জন্য সাহসিকতা পুরস্কার প্রদান ইত্যাদির মধ্য দিয়ে৷ এই উপলক্ষ্যে বিমান বাহিনীর প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল পি.ভি নায়েক প্রতিবেশী এলাকার পরিস্থিতিকে জীবন্ত আগ্নেয়গিরির সঙ্গে তুলনা করে বলেন, যেকোন সময়ে অগ্ন্যুৎপাত ঘটতে পারে আগাম জানান না দিয়েই৷ তার মোকাবিলা করার জন্য ভারতীয় বিমানবাহিনীকে তৈরি থাকতে হবে প্রতি মুহূর্তে৷ এই চ্যালেঞ্জের জবাব দিতে বিমানবাহিনীর আধুনিকীকরণ ও অত্যাধুনিক বিমান প্রতিরক্ষা সাজসরঞ্জাম সংগ্রহ করার কথাও বলেন তিনি৷ মাঝারি পাল্লার বহুমুখী লড়াকু বিমান এবং ফিফথ জেনারেশন জঙ্গি বিমান সেই কাজে যথেষ্ট সাহায্য করতে পারে৷ এয়ার চিফ মার্শাল নায়েক পঞ্চম প্রজন্মের রুশ জঙ্গি বিমান সম্পর্কে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘‘এই বিমান ভারতীয় বিমানবাহিনীতে যোগ দিতে পারে ২০১৭ সাল নাগাদ৷ প্রথমে ২০০ থেকে ২৫০টি এই শ্রেণীর বিমানের অর্ডার দেয়া হবে৷ ডিজাইন তৈরির কাজ সন্তোষজনকভাবে এগিয়ে চলেছে৷ সব কিছু ঠিকঠাক চললে ঐ সময়সীমা ধরতে পারবো৷'' উল্লেখ্য, ৭০-এর দশকের মিগ-২১ বিমান যে-ভাবে দুর্ঘটনায় ধ্বংস হচ্ছে, তা পূরণ না হওয়া উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে৷

Indien Verteidigungsminister A. K. Antony

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ.কে অ্যান্টনি

এদিকে পঞ্চম প্রজন্মের লড়াকু বিমান সরবরাহের জন্য রাশিয়ার সঙ্গে গতকাল এক প্রাথমিক চুক্তি সই হয়৷ ফলে পঞ্চম প্রজন্মের মোট ৩০০টি লড়াকু বিমান সরবরাহের পথ পরিষ্কার হলো৷ নতুন দিল্লিতে রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনাতোলি সেরডুকভের সঙ্গে এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী এ.কে অ্যান্টনি৷ কিছু টেকনিক্যাল বিষয় চূড়ান্ত হয়ে গেলে আগামী ডিসেম্বরে রুশ প্রেসিডেন্ট দিমিত্রি মেদভেদেভের ভারত সফরকালে তিন হাজার কোটি মার্কিন ডলারের এই প্রতিরক্ষা চুক্তি আনুষ্ঠানিকভাবে সই হবে৷ রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী আন্তঃসরকার মিলিটারি টেকনিক্যাল কমিশনের বৈঠকে যোগ দিতে এখন ভারতে৷ তিনি বলেন, এই চুক্তি কার্যকর করবে রাশিয়ার সুখয় ও ভারতের হিন্দুস্থান এরোনটিক্সে৷ পঞ্চম প্রজন্মের এই লড়াকু বিমান চুক্তি হবে দুদেশের মধ্যে বৃহত্তম প্রতিরক্ষা সহযোগিতা চুক্তি৷ এতে অত্যাধুনিক সামরিক পরিবহন বিমান অন্তর্ভুক্ত৷ বড় কথা, এটা নিছক ক্রেতা-বিক্রেতা চুক্তি নয়, উৎপাদনে উভয়েরই অংশগ্রহণ থাকবে৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি
সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়