1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ভারত

ভাইরাল ভিডিওর পর কাশ্মীরে সহিংসতা বাড়ল

চলতি মাসের ৯ তারিখে অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল৷ নির্বাচনের দিনের একটি ভিডিও সম্প্রতি প্রকাশের পর পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে৷

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা তাদের একটি জিপের সামনে এক তরুণকে বেঁধে রেখেছে৷ এভাবে তাকে ‘মানব বর্ম' হিসেবে ব্যবহার করে সেনাসদস্যরা নির্বাচনি দায়িত্ব পালন করেন বলে অভিযোগ উঠেছে৷ ভিডিওতে এক সেনা সদস্যকে বলতে শোনা গেছে, যারা পাথর ছুঁড়বে তাদের এই ধরণের শাস্তি দেয়া হবে৷

ভিডিওটি প্রকাশের পর সামাজিক মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠলে সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে বিষয়টি তদন্তের উদ্যোগ নেয়া হয়৷ সেনাবাহিনীর মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল রাজেশ কালিয়া বলেছেন, অপরাধ প্রমাণিত হলে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে৷

পুলিশও এই ঘটনায় সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে৷

এদিকে, ভিডিও প্রকাশের পর পুলিশ সদস্যের ঘরবাড়িতে হামলা বেড়েছে৷ কাশ্মীরের পুলিশ প্রধান কর্মকর্তাদের দক্ষিণ কাশ্মীরে বাড়িতে থাকার ব্যাপারে সাবধান করে দিয়েছেন৷

যে তরুণকে বেঁধে রাখা হয়েছিল তার নাম ফারুক আহমেদ দার৷ উপ-নির্বাচনে ভোট দিয়ে বের হওয়ার পর তাকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয় বলে স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন তিনি৷

কাশ্মীরের এক মানবাধিকার কর্মীখুররম পারভেজ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘‘মানব বর্ম হিসেবে ব্যবহারের ঘটনা এটাই প্রথম নয়৷ এর আগেও এমন হয়েছে৷ তবে এবার ভিডিও প্রকাশ হওয়ায় বিষয়টি সবার নজরে এসেছে৷''

জেডএইচ/ডিজি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়