1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘ভবিষ্যতে ডয়চে ভেলের আরো উৎকর্ষ হোক...’

অন্তরঙ্গ ভালোবাসা নেবেন৷ ডয়চে ভেলে শুধু মিডিয়াই নয়, ডিডাব্লিউ পাঠকদের ব্যক্তি ও সমাজ জীবনের উজ্জ্বল এক বাতিঘরও বটে৷ আমাদের প্রেম, বিরহ, দ্রোহ ও শান্তিতে ডিডাব্লিউ থাকে একজন কাছের মানুষ হয়ে৷

‘‘বাংলা বিভাগের কর্মকর্তাদের নিরলস প্রচেষ্টা ডয়চে ভেলেকে করেছে মহিমান্বিত৷ ডিডাব্লিউ পাঠক জরিপে জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে৷ তাই ভবিষ্যৎ দিনগুলিতে ডয়চে ভেলের আরো উৎকর্ষতা লাভ হোক এই প্রত্যাশাই করি৷'' – এভাবেই লিখেছেন ডা. এস এম এ হান্নান, পাছশুয়াইল রেডিও শ্রোতা ক্লাব, পাবনা, বাংলাদেশ থেকে৷

তিনি আরো লিখেছেন, ‘‘#অন্বেষণে দেখছিলাম মাছের নিরামিষ খাদ্যাভাস সম্পর্কে৷ দারুণ লাগছিল৷ কিন্তু হঠাৎ করে বিএনপির হাফিজ সাহেবের প্রেসব্রেফিং দেখাতে মজাটাই নষ্ট হয়ে গেল৷'' বন্ধু এস এম এ হান্নানের কথায়, ‘‘ডিডাব্লিউ-র পাতাটি খুবই শিক্ষামূলক৷ আর এর সাথে যোগ হয়েছে #অন্বেষণ৷ বুদ্ধিমত্তা দিয়ে যাঁরা এই পাতাটি পরিচালনা করছেন, তাঁদের ধন্যবাদ৷''

- বন্ধুরা, আপনাদের মধ্যে অনেকেই মাঝে মাঝে ছড়া বা কবিতা লিখে পাঠান৷ নতুন বছরে তারই মধ্যে দুটি কবিতাকে বেছে নিলাম আমরা....

আমার দেশ

আমার দেশে সবুজ গাছে

মধুর ফল ধরে

আম জাম কাঠাল পেয়ারা

নিজের হাতে খাই পেড়ে৷

আমার দেশে সবুজ মাঠে

সোনালি ফসল ফলে

নবান্নের উৎসবে

ধুমধাম চলে

আমার দেশের প্রজাপতি

উড়ছে যখন ডালে

দেখতে তাদের ভারি মজা

নাচছে তালে তালে৷

লেখক: আতিয়া সুলতানা রীমা, নাটোর, বাংলাদেশ৷

--------------------

ইতিবাচক মনোভাব

গড়ে তুলুন ইতিবাচক মনোভাব

পাল্টে যাবে চরিত্র আর স্বভাব

থাকবে না আর নেতিবাচক প্রভাব৷

কমে যাবে মূল্যবোধের অভাব৷ ভাবুন

সে পারেনি! আপনি কি তা পারেন?

সে পেরেছে! তার প্রশংসায়

আপনার ক্ষতি কি সে?

কেন বিষ লাগে দেখতে সুখী

সুখীর সুখে না থাকিলে আপনিই যে বেশি দুঃখী

ভেবেছেন কি? হাসছেন বুঝি?

নিজের আলোকিত হৃদয় মন

অন্যের দুঃখে কাঁদবে যখন৷

নিজের করে অন্যের সুখও পাবে তখন৷

তাই প্রয়োজন ইতিবাচক মনোভাব

থাকবে না আর নেতিবাচক প্রভাব৷

অন্যের সাফল্যকে বড় করে দেখুন

তাঁর থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে

নিজেই সফল হতে শিখুন৷

গড়ে তুলুন ইতিবাচক মনোভাব

পাল্টে যাবে চরিত্র আর স্বভাব

থাকবে না আর নেতিবাচক প্রভাব৷

কমে যাবে মূল্যবোধের অভাব৷

লেখক: মাহামুদুল হাসান লেলিন, ঢাকা, বাংলাদেশ৷

- বন্ধু রীমা আর লেলিন, কবিতা দুটির জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ!

সংকলন: দেবারতি গুহ

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন