1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বয়সের সীমা বাতিল দেখতে চান ব্লাটার

আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি কর্মকর্তাদের বয়সের যে ঊর্ধ্বসীমা স্থির করে দিয়েছে, তার বিরুদ্ধে গর্জে উঠেছেন ফিফার প্রধান সেপ ব্লাটার৷ আগামী ডিসেম্বর মাসে আইওসি বিষয়টি নতুন করে খতিয়ে দেখবে৷

Sepp Blatter

সেপ ব্লাটার

খেলাধুলার জগতে বয়স খুবই গুরুত্বপূর্ণ৷ বুড়ো হাড়ে ভেলকি দেখাতে আর ক'জন পারেন! তাই যা করার তা দ্রুত করার জন্য চাপ থাকে৷ কিন্তু কর্মকর্তাদের বয়স নিয়ে কী এসে যায়? তাঁরা সুস্থ, সবল থাকলেই তো হলো৷ সল্ট লেক সিটি অলিম্পিক গেমস-এর সময় ঘুস কেলেঙ্কারির জের ধরে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি কর্মকর্তাদের বয়সের সীমাও স্থির করে দিয়েছিলো৷ সেই নিয়ম অনুযায়ী যে সব কর্মকর্তা ১৯৯৯ সালের পর আইওসি-তে যোগ দিয়েছেন, তাঁদের ৭০ বছর বয়স হলেই পদত্যাগ করতে হবে৷ যাঁরা তার আগে থেকেই রয়েছেন, তাঁদের ক্ষেত্রে বয়সের সীমা ৮০৷

বলা বাহুল্য, বিষয়টি বয়স্ক কর্মকর্তাদের জন্য বেশ অস্বস্তিকর৷ শুধু বয়সের কারণে তাঁরা সহজে অবসর নিতে প্রস্তুত নন৷ যেমন ফিফার প্রধান সেপ ব্লাটার৷ তাঁর বয়স ৭৭৷ তিনি আইওসি-র বিধানের বিরোধিতা করে বলেছেন, বিষয়টি সংগঠনের সদস্যদের উপর ছেড়ে দেওয়া উচিত৷ কোনো কর্মকর্তা যদি ঠিকমতো কাজ করতে না পারেন, ভোটের মাধ্যমেই তাঁকে অব্যাহতি দেওয়া উচিত৷ অথবা বয়সের কারণে দুশ্চিন্তা থাকলে তাঁকে নির্বাচিত করারই প্রয়োজন নেই৷ ফিফা-র নিজস্ব রিপোর্ট অনুযায়ী বয়সের সীমা বেঁধে দেওয়ার অর্থ বৈষম্য করা৷ তাই আইওসি-রও উচিত, এমন নিয়ম বাতিল করা৷ আইওসি-র বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী ব্লাটার-কে তিন বছরের মধ্যে পদত্যাগ করতে হবে৷ নতুন করে প্রার্থী হওয়ার তো প্রশ্নই ওঠে না৷

আইওসি-র বয়স সংক্রান্ত নিয়ম এখনো চূড়ান্ত রূপ পায় নি৷ অনেকে বয়সের সীমা ৭০ থেকে বাড়িয়ে ৭৫ করার পক্ষে সওয়াল করছেন৷ চলতি বছরের ডিসেম্বর মাসে বিষয়টি নতুন করে খতিয়ে দেখা হবে৷ অর্থাৎ ২০১৫ সালে পঞ্চম বারের মতো ফিফা-র শীর্ষ পদে প্রার্থী হওয়ার স্বপ্ন এখনই ত্যাগ করার প্রয়োজন নেই ব্লাটার-এর৷

এসবি / এআই (এপি, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন