1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বড়লোকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স সাসপেন্ডের পরিকল্পনা!

জার্মানিতে যারা গাড়ি চালাতে গিয়ে ট্রাফিক আইন অমান্য করেন, বিশেষ করে বড়লোকরা, শীঘ্রই নিজেদের গণপরিবহন বা পায়ে হেঁটে রাস্তাঘাটে চলতে দেখতে পারেন৷ নতুন এক আইনে ট্রাফিক আইন অমান্যের শাস্তি আরো কড়া করা হচ্ছে৷

জার্মানির বিচারমন্ত্রী হাইকো মাস জানিয়েছেন, চলতি বছরের শেষনাগাদ তিনি একটি আইন প্রস্তাব করতে যাচ্ছেন, যা ট্রাফিক আইন অমান্যকারীদের ড্রাইভিং লাইসেন্স সাসপেন্ড করতে পারবে৷ জার্মান নিউজ ম্যাগাজিন ‘ডেয়ার স্পিগেলকে' দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান তিনি৷ মাস বলেন, ‘‘কিছুক্ষেত্রে, বিশেষ করে বড়লোক নিয়মভঙ্গকারীদের ক্ষেত্রে, জরিমানা কোনো প্রভাব সৃষ্টি করে না৷''

মাস মনে করেন, এই সব ক্ষেত্রে ড্রাইভিং লাইসেন্স সাসপেন্ড করা হলে তাহবে এক বাস্তবিক পরিনতি৷ তিনি বলেন, ‘‘লাইসেন্স সাসপেন্ড করা হবে কিনা তা কেসভেদে আদালত সিদ্ধান্ত নেবেন৷''

প্রসঙ্গত, জার্মানির সর্বশেষ নির্বাচনেরর পর দুই শীর্ষ রাজনৈতিক দলের মধ্যে জোট করে সরকার গঠন করা হয়েছিল৷ জোট গড়ার সেই চুক্তিতে ট্রাফিক আইন অমান্যকারীদের শাস্তি বাড়ানোর ব্যাপারটিও ছিল৷ সেখানে লেখা হয়েছে, ‘‘যেসব মানুষের ক্ষেত্রে আর্থিক জরিমানা কার্যকরী প্রভাব ফেলে না, তাদের ক্ষেত্রে কারাদণ্ডের বিকল্প হিসেবে প্রাপ্তবয়স্ক এবং তরুণদের ক্ষেত্রে লাইসেন্স সাসপেন্ডের শাস্তি চালু করা হবে৷''

উল্লেখ্য, জার্মানিতে ট্রাফিক আইন অমান্য করার অপরাধের সাধারণ শাস্তি অর্থ জরিমানা৷ তবে অপরাধের মাত্রা বড় হলে অর্থ জরিমানার পাশাপাশি নির্দিষ্ট মেয়াদে লাইসেন্স নিয়ে যাওয়ার নিয়মও রয়েছে৷ নতুন আইনে লাইসেন্স সাসপেন্ড করাটাকে আরো গুরুত্ব দেয়া হবে৷

আদালতে ক্যামেরা

এদিকে, জার্মানির আদালতে ক্যামেরা ব্যবহার নিয়েও আলোচনা চলছে৷ মাস এই বিষয়ে বলেন, ‘‘কিছু জার্মান আদালতে ফিল্ম ক্যামেরার অনুমতি দেয়ার বিষয়টি তিনি বিবেচনা করছেন৷''

‘‘আমার ক্যামেরা ব্যবহারে অনুমতি দিতে চাই, তবে সেটা শুধুমাত্র সর্বোচ্চ কেন্দ্রীয় আদালতে রায় ঘোষণার সময় ব্যবহার করা যাবে'', বলেন মাস৷ ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট আছে এমন মামলার শুনানি অডিওতে রেকর্ড করার অনুমতি দেয়ার ইচ্ছাও ব্যক্ত করেছেন তিনি৷

বাংলাদেশেও কি এভাবে বড়লোকদের লাইসেন্স বাতিল করা সম্ভব? আপনার কি মত? লিখুন নীচের ঘরে৷

এআই/ডিজি (ডিপিএ, এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়