1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘ব্লেড রানার' পিস্টোরিয়াস: অলিম্পিক থেকে কারাগারে

দুই পা নেই৷ তারপরও কার্বন ফাইবার ব্লেডের ওপর ভর দিয়ে অলিম্পিকে দৌড়াতেন তিনি৷ আর আজ, নিজ বান্ধবী ও মডেল রিভা স্টিনকেম্পকে হত্যার দায়ে পিস্টোরিয়াসকে ছ'বছরের কারাদণ্ড দিল দক্ষিণ আফ্রিকার এক আদালত৷

অস্কার পিস্টোরিয়াসের – না, তিনি সাধারণ কোনো অ্যাথলেট ছিলেন না৷ অসুখের কারণে মাত্র এক বছর বয়সেই পিস্টোরিয়াসের হাঁটুর নীচ থেকে দুই পা কেটে ফেলতে হয়েছিল৷ কিন্তু তারপরও দমে যাননি তিনি৷ বরং কার্বন ফাইবার ব্লেডের ওপর ভর দিয়ে দৌড়ে ‘ব্লেড রানার' নামে খ্যাত হয়েছিলেন পিস্টোরিয়াস৷ ২০১২ সালে অলিম্পিকেও অংশ নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার এই অ্যাথলেট৷

এর আগে ২০০৮ সালের বেইজিং প্যারালিম্পিকে একশ, দু'শ এবং তিন'শ মিটার দৌড়ে সোনা জয় করেন তিনি৷ এমনকি টাইম ম্যাগাজিনের বিবেচনায় বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির মধ্যেও ছিলেন এই ক্রীড়াবিদ৷

অলিম্পিকে ‘ব্লেড রানার'

কার্বন ফাইবার ব্লেডের ওপর ভর দিয়ে এভাবেই অলিম্পিকে দৌড়েছিলেন ‘ব্লেড রানার'

অথচ ইতিহাসের পাতা থেকে উঠে এসে এই ক্রীড়াবিদ যেন অচিরেই মিলিয়ে গেলেন তমসে৷ ২০১৩ সালের ‘ভালোবাসা দিবসে' খুন হন তাঁর বান্ধবী৷ খুনের দায়ে অভিযুক্ত হন পিস্টোরিয়াস৷ তাঁর বাড়ি থেকেই উদ্ধার করা হয় রিভার মৃতদেহ৷ দেহে চার-চারটি গুলির ক্ষতচিহ্ন ছিল সেই স্বর্ণকেশীর৷

ডিজি/এসিবি

‘ব্লেড রানার’-এর এই করুণ পরিণতি সম্পর্কে আপনার মন্তব্য কী? জানান আমাদের, লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন