1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ব্লুজ-রক সংগীত তারকা গ্যারি মুর চিরবিদায় নিলেন

পশ্চিমের ব্লুজ-রক সংগীত জগতের এক উজ্জ্বল তারকা গ্যারি মুর৷ তাঁর চার দশকের সংগীত জীবনে ব্লুজ-রক গিটার বাদক ও গায়ক হিসাবে পেয়েছেন বিশ্ব সাফল্য ও জনপ্রিয়তা৷ হয়ে উঠেছেন এক কিংবদন্তি৷

default

গ্যারি মুর (ফাইল ছবি)

৬ জানুয়ারি বহুমুখী প্রতিভার অধিকারি এই রক সংগীত তারকা চিরবিদায় নিলেন৷

রক সংগীতের ইতিহাসে গ্যারি মুর এক অসামান্য প্রতিভা৷ মাত্র ৫৮ বছর বয়সে মৃত্যু বরণ করলেও রক ও ব্লুজ সংগীত জগতে রেখে গেছেন সংগীত কর্মের এক বিরাট সম্ভার৷ গ্যারি মুর ছিলেন একাধারে গীতিকার, সুরকার, প্রযোজক, অসামান্য গিটার বাদক ও গায়ক৷ রক-লোকসংগীত, রক ও হেভি মেটাল, জ্যাজ, ব্লুজ এবং আরো বহু ধারায় সংগীত রচনা করেছেন তিনি৷

গ্যারি মুরের জন্ম ১৯৫২ সালের চার এপ্রিল, উত্তর আয়ারল্যান্ডের রাজধানী বেলফাস্ট শহরে৷ আট বছর বয়সে গিটারে তাঁর হাতেখড়ি৷ প্রথম জীবনে বিটেলস ও এলভিস প্রেসলির প্রতি তাঁর ছিল গভীর অনুরাগ৷ পরবর্তীকালে জিমি হেনড্রিক্স হয়ে ওঠেন তাঁর আদর্শ৷ ১৬ বছর বয়েসেই গিটার বাদক হিসাবে তাঁর খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে৷ হার্ড রক সংগীত গোষ্ঠী ‘স্কিড রো'র সাথে কিছুকাল থাকার পর বিখ্যাত ‘থিন লিজি' রক সংগীত ব্যান্ডে যোগ দেন গ্যারি৷ সেই সাথে ‘থিন লিজি' র সনাতন রক সংগীতের আদল কিছুটা বদলে যায়৷ ব্লুজ সংগীতের প্রভাব দেখা দেয় তাঁর সংগীতে৷

৭০ ও ৮০র দশকে ‘থিন লিজি' সংগীত গোষ্ঠী নিয়ে তিনি জয় করেছিলেন আন্তর্জাতিক সাফল্য ও জনপ্রিয়তা৷ এ সময় ‘থিন লিজি' ছাড়াও একক সংগীত শিল্পী হিসেবে বহু খ্যাতিমান সংগীত শিল্পীর সাথে কনসার্ট পরিবেশন করেন গ্যারি৷ তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বিটেলস খ্যাত জর্জ হ্যারিসন, ওসি ওসবর্ন,অ্যালবার্ট কলিন্স ও বিখ্যাত সংগীত গোষ্ঠী বিচ বয়েজ৷ ১৯৯৩ সালে তাঁর অ্যালবাম ‘স্টিল গট দ্যা ব্লুজ' তাকে এনে দেয় বিশ্বখ্যাতি৷ তিনি হয়ে ওঠেন ব্লুজ-রক সংগীতের প্রতীক৷

রক, ব্লুজ, আর জ্যাজ সঙ্গীতের সংমিশ্রণে এক নতুন আঙ্গিকের সুদক্ষ ও সৃজনশীল সঙ্গীত সৃষ্টি করতে পেরেছিলেন গ্যারি মুর৷ আর সেই সাথে ছিল তাঁর অসাধারণ গিটার বাজানোর ক্ষমতা৷ তাঁর প্রায় তিরিশটিরও বেশি অ্যালবাম বেরিয়েছে বাজারে৷ মৃত্যুর আগে পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে একের পর এক কনসার্ট পরিবেশন করেছেন তিনি৷ ৬ জানুয়ারি, স্পেন'এর কোস্টা দেল সোল'এ একটি হোটেলে ঘুমের মধ্যেই মৃত্যুর কবলে ঢলে পড়েন গ্যারি মুর৷

প্রতিবেদন: মারুফ আহমদ

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন