1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

ব্রিটেনে পাওয়া গেল মল্লযোদ্ধাদের সমাধি

ব্রিটিশ প্রত্নতত্ত্ববিদরা খুঁজে পেয়েছেন রোমান সময়ের গ্ল্যাডিয়েটর'দের সমাধিস্থল৷ চলছে নানা তত্ত্বতালাশ৷

default

এককালে রোমের কোলোসিয়াম’এ মল্লযোদ্ধাদের তাণ্ডব দেখা যেত

রোমান সেই মল্লযোদ্ধাদের কথা কি আপনার মনে আছে? ইতিহাসের অসম সাহসী এই যোদ্ধাদের বলা হতো গ্ল্যাডিয়েটর৷ হাল আমলে এই মল্লযোদ্ধারা বেশ আলোচিত হয়েছেন, কিন্তু অভিনেতা ক্রিক ডগলাস এবং রাসেল ক্রো অভিনীত ‘দি গ্ল্যাডিয়েটর' ছবির কল্যাণে৷ ২০০০ সালে মুক্তি পেয়েছিল সেই ছবি৷ প্রায় ১০ বছর পর আবারো আলোচনায় এই গ্ল্যাডিয়েটর৷ এবার কিন্তু আর রূপালি পর্দায় নয়, খোদ বিলেতি শহর লন্ডনে৷

ব্রিটিশ প্রত্নতত্ত্ববিদরা এবার খুঁজে পেয়েছেন সেই মল্লযোদ্ধাদের বিশাল এক সমাধিস্থল, অন্তত তাদের দাবি এটাই৷ দাবির সত্যতা প্রমাণেরও প্রাণান্ত চেষ্টা তাঁদের৷ বলছেন, উত্তর ইংল্যান্ডের ইয়র্ক শহরে পুরানো এই সমাধিতে তারা যে কংকালগুলো খুঁজে পেয়েছেন, সেই কংকালগুলোর গায়ে চাপানো ছিল লোহার বর্ম৷ কিছু বর্শার সন্ধানও মিলেছে তাদের৷ ফলে তারা যে মল্লযোদ্ধা ছিলেন, তা নিয়ে বির্তক করাটা বোধ হয় ঠিক হবে না৷ গ্ল্যাডিয়েটরদের গায়ে কেন চাপানো ছিল লোহার জাল, বর্ম ? উত্তর – এই সব যোদ্ধাদের লড়তে হতো হিংস্র বাঘ কিংবা সিংহের সঙ্গে৷ আর প্রাণীগুলোর হিংস্রতার হাত থেকে বাঁচতেই এতো কিছু৷

Filmplakat Gladiator

রাসেল ক্রো অভিনীত ‘দি গ্ল্যাডিয়েটর’ ছবিটির কল্যাণে রোমান আমলের যোদ্ধাদের জীবনযাত্রা পর্দায় ফুটে উঠেছিল

দেখা গেছে, এমন অনেক যোদ্ধার কংকাল সেখানে রয়েছে, যাদের অনেকেরই একটি হাত নেই৷ আর যে হাতটি রয়েছে, সেটি যে খুবই পুরুষ্টু ছিল, তা অনুমেয়৷ কিন্তু কেন এই অবস্থা? প্রত্নতত্ত্ববিদদের মতে, খুব ছেলেবেলা থেকেই এদের যুদ্ধ প্রশিক্ষণের কাজটি শুরু হতো৷ হয়তো এক হাতে অস্ত্র ধরে রাখা, একে চালনা করা সহজতর, তাই কেটে দেয়া হতো অন্য হাত৷ প্রত্নতত্ত্ববিদদের প্রধান হান্টার মানের দাবি, এই সমাধিস্থলে থাকা প্রায় সকল গ্ল্যাডিয়েটরই রোমান৷ তাঁরা ২০০৪ সাল থেকে ইয়র্ক শহরে শুরু করেন খনন কার্যক্রম৷ অবশেষে এ বছরেই পান সফলতা৷ খুঁজে পান ৭১ খ্রীষ্টাব্দের মল্লযোদ্ধাদের কংকাল৷ যাহোক, এবার এই সব কংকালের অস্থি এবং তাদের সঙ্গে পাওয়া সেই সব যুদ্ধ-সরঞ্জামের পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে৷ চলছে বিশ্লেষণ৷ প্রত্নতত্ত্ববিদদের ধারণা, আগামী কিছু দিনের মধ্যেই তাঁরা আরও অনেক তথ্য উদ্ঘাটন করতে পারবেন, যে সব তথ্যে হয়তো মিলবে ইতিহাস সম্পর্কে নতুন কিছু৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার
সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়