1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

ব্রিটিশ আদালতে জামিন সত্ত্বেও মুক্তি মিলছেনা আসাঞ্জের

ব্রিটিশ আদালতে জামিন পেলেও কারাগারে থাকতে হচ্ছে উইকিলিক্সের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাস্যাঞ্জকে৷ কারণ জামিন পাওয়ার দুই ঘন্টার মধ্যেই ঐ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছে সুইডিশ কৌঁসুলিরা৷

default

উইকিলিক্সের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাস্যাঞ্জ

এর আগে বেশ কয়েকটি শর্ত সাপেক্ষে আসাঞ্জকে জামিন দেয় আদালত৷ প্রধান শর্ত হচ্ছে, আসাঞ্জকে দুই লক্ষ ৪০ হাজার পাউন্ড দিতে হবে, হাতে সবসময় ইলেকট্রিক ট্যাগ লাগিয়ে ঘুরতে হবে, কারফিউ মেনে চলতে হবে, পাসপোর্ট জমা দিতে হবে এবং প্রতি সন্ধ্যায় স্থানীয় থানায় হাজিরা দিতে হবে৷ এদিকে আসাঞ্জের মা ছেলের পাশে দাঁড়াতে অস্ট্রেলিয়া থেকে চলে এসেছেন৷ এবং তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন৷

আসাঞ্জের আইনজীবী মার্ক স্টিফেনস বলছেন মোট অর্থের অর্ধেক জোগাড় করা গেছে৷ বাকীটা খুব শীঘ্রই হয়ে যাবে৷

যুক্তরাষ্ট্রের কয়েক লাখ গোপন কূটনৈতিক নথি ফাঁস করে আলোচনার ঝড় তোলা ওয়েবসাইট উইকিলিক্সের প্রতিষ্ঠাতা অ্যাস্যাঞ্জ সুইডেনে যৌন অপরাধের অভিযোগে ব্রিটেনে গ্রেপ্তার হন৷ তবে অ্যাস্যাঞ্জ তাঁর বিরুদ্ধে সব অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে বলছেন, এ সবই তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র৷

এদিকে ওয়াশিংটনের নিন্দা ও হুমকি-ধামকি সত্ত্বেও যুক্তরাষ্ট্রের গোপন নথি ফাঁস করে যাওয়ার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছেন আসাঞ্জ৷ আটকাবস্থায় মায়ের কাছে এ অঙ্গীকারের কথা জানান তিনি৷ অস্ট্রেলিয়ার টেলিভিশনে মঙ্গলবার এ খবর প্রকাশ হয়েছে৷

লন্ডনের কারাগারে আসাঞ্জের সঙ্গে সাক্ষাতের সময় তিনি নথি ফাঁস চালিয়ে যাবেন কিনা বিষয়টি জানতে আসাঞ্জের মা ক্রিস্টিন আসাঞ্জকে অনুরোধ জানায় অস্ট্রেলিয়ার নেটওয়ার্ক সেভেন টেলিভিশন চ্যানেল৷

সাক্ষাৎ শেষে ক্রিস্টিন ওই টেলিভিশনকে দেওয়া লিখিত বক্তব্যে আসাঞ্জের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, "আমি আমার আদর্শে অবিচল রয়েছি৷ এ পরিস্থিতি আমার মানসিকতায় কোনো পরিবর্তন ঘটাতে পারেনি৷

"এর মধ্য দিয়ে আমার সংকল্প আরো দৃঢ় হয়েছে এবং এটাই সত্য ও সঠিক৷'' বলেন আসাঞ্জ৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: ফাহমিদা সুলতানা